Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬, ১৭ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

ঝিনাইদহে হামলা আর গণগ্রেফতারের অভিযোগ মজিদের

ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪:১৪ পিএম

ঝিনাইদহ জেলাজুড়ে হামলা আর পুলিশের গনগ্রেফতারে দিশেহারা হয়ে পড়েছে বিএনপি। শুক্রবার দলের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে হামলা ও গ্রেফতারের এ সব তথ্য জানান ঝিনাইদহ-২ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী এড আব্দুল মজিদ। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি উল্লেখ করেন বৃহস্পতিবার রাতে শহরের আরাপপুর রাবেয়া ক্লিনিকের সামনে থেকে শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক রাকিবুল হাসান খান দিপু , সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ ও পৌর ছাত্রদলের সভাপতি ইমদাদুল ইসলাম আকূলসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। হলিধানী ইউনিয়নের শালিয়া গ্রামের কনছের আলী মন্ডলের ছেলে আলমকে হাত পা ভেঙ্গে দিয়েছে নৌকার সমর্থকরা। শুক্রবার দুপুরে শহরের সৃজনী মোড়ে হরিণাকু-ু উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল ইসলাম, হরিণাকু-ু উপজেলার ফলসি ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আজিম উদ্দীন ও ভায়না ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিমকে নৌকার সমর্থকরা হামলা করে তাদের কুপিয়ে জখম করা হয়। এ সময় তাদের দুইটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নৌকার সমর্থকদের হাত থেকে সাংবাদিকরাও বাদ যাচ্ছে না। বৃহস্পতিবার রাতে সদর উপজেলার ইস্তেফাপুর গ্রামের মজনুকে মরধরের সময় ছবি ওঠাতে গিয়ে হামলার শিকার হন আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি সুলতান আল একরাম নামে এক সংবাদ কর্মী। থানার পাশে কনিকা স্টুডিওর সামনে একরামকে লাঞ্চিত করা হয়। এদিকে ভিন্ন মতের হওয়ায় সদরের আড়–য়াডাঙ্গা গ্রামের জিন্দার আলীর ছেলে মশিয়ার রহমানকে মারধর করে হাত ভেঙ্গে দেওয়া হয়। তিনি জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুর সমর্থক বলে নিজেই জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ