Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

আমজাদ হোসেনের মৃত্যুতে সংস্কৃতি অঙ্গনে শোকের ছায়া

বিনোদন রিপোর্ট: | প্রকাশের সময় : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৭ এএম

দেশের খ্যাতিমান চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের মৃত্যুতে সংস্কৃতি অঙ্গণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার মৃত্যুতে তারকারা শোক প্রকাশ করছেন। তার মৃত্যুতে সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি তাঁর আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। তিনি বলেন, একুশে পদক বিজয়ী আমজাদ হোসেনের মৃত্যুতে দেশ একজন ক্ষণজন্মা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিকে হারালো। তিনি ছিলেন একাধারে চলচ্চিত্র নির্মাতা, পরিচালক, লেখক ও অভিনেতা। তাঁর মৃত্যুতে সাংস্কৃতিক জগতের বিশেষ করে চলচ্চিত্র অঙ্গণের যে অপূরণীয় ক্ষতি হলো তা সহজে পূরণ হবার নয়। চলচ্চিত্রে তাঁর মূল্যবান অবদানের জন্য বাংলাদেশের মানুষ তাকে দীর্ঘকাল স্মরণে রাখবে। আমজাদ হোসেনের বিখ্যাত চলচ্চিত্র গোলাপী এখন ট্রেনে চলচ্চিত্রের গোলাপী চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন ববিতা। সিনেমাটি অসামন্য জনপ্রিয়তা পায়। আমজাদ হোসেনের মৃত্যু সংবাদ শুনে ববিতা শোকে মুহ্যমান হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, কতো স্মৃতি যে আছে আমজাদ ভাইয়ের সাথে। তাঁর অনেক ছবিতে অভিনয় করেছি। তার পরিচালিত আমার অনেকগুলো সিনেমা জনপ্রিয়। তাঁর মৃত্যু সংবাদ খুবই দুঃখের। তাঁর মতো এমন জিনিয়াস মানুষ আমি জীবনে খুব কম পেয়েছি। তার আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করি। তিনি বলেন, সারা বাংলাদেশের প্রত্যেক মানুষের গল্প গোলাপী এখন ট্রেনে। যেসময় ছবিটি মুক্তি পায় সেসময়ের প্রতিটি গ্রাম বাংলার মানুষের গল্প ছিল এটি। ছবির প্রত্যেকটা ডায়ালগ কী যে অসামান্য ছিলো, ভাবতেও ভালো লাগে এখন। সেসময়তো অফিস আদালতেও গোলাপী এখন ট্রেনের সংলাপগুলো মানুষ বলে বেড়াত। তার মৃত্যু মানতে কষ্ট হচ্ছে। শাকিব খান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক ফ্যান পেজে লিখেছেন, দেশ বরেণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতা আমজাদ হোসেন আর বেঁচে নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর চলে যাওয়ায় চলচ্চিত্রে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। গুণী এই মানুষটির মৃত্যুতে জানাই গভীর শোক। ওপারে ভালো থাকবেন প্রিয় আমজাদ হোসেন। চিত্রনায়ক ওমর সানী লিখেছেন, আমজাদ হোসেনের মৃত্যুর সংবাদ মেনে নিতে পারছি না। তিনি ছিলেন এক কথায় অলরাউন্ডার। তার পরিচালনা, চিত্রনাট্য লেখার হাত, অভিনয় সবকিছুই ছিল দুর্দান্ত। উনার অভাব পূরণ হবার নয়। নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বলেন, সব নদী ফুরায় এ জীবনের সব লেনদেন। আমাদের দেখা হয়তো কম হতো, কথা কম হতো, আমাদের পথও হয়তো আলাদা ছিলো যেমন করে আলাদা হয়ে যায় দুই ভিন্ন সময়ের নদী। কিন্তু অগ্রজের প্রতি শ্রদ্ধার বিন্দুমাত্র কমতি ছিলো বলে মনে পড়ে না। আপনার মধ্যেও অণুজের প্রতি স্নেহের কোন কমতি দেখি নাই। ভালো থাকবেন, আমজাদ ভাই, চিরশান্তির দেশে। বিজ্ঞাপন নির্মাতা ও চলচ্চিত্র পরিচালক অমিতাভ রেজা বলেন, গোলাপীকে নিয়ে ট্রেনে করে চলে গেলেন আমজাদ ভাই। নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান মানিক বলেন, কিংবদন্তী চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন আর নেই। আমরা গভীরভাবে শোকাহত। চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ স¤পাদক জায়েদ খান বলেন, এবার সত্যি সত্যি চলে গেলেন দেশবরেণ্য চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন। আমি তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আমজাদ হোসেন

১৩ জানুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ