Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

পাকিস্তানে ইতিহাসের বৃহত্তম বিদেশি বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে সউদী আরব

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০৪ এএম

পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী আসাদ উমর বৃহস্পতিবার বলেছেন, সউদী আরবের কাছ থেকে যে বিনিয়োগ প্যাকেজ আসছে তা ‘পাকিস্তানের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বিদেশী বিনিয়োগ হতে যাছে’। শিগগিরই এটা ঘোষণা করা হবে।
ইসলামাবাদে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “বল এখন আমাদের কোর্টে। আগামী সপ্তাহে আমাদের মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পেতে হবে এবং এরপর ঘোষণা দেয়া হবে”।
তিনি আরও জানান যে সউদী ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের তরফ থেকে এ ব্যাপারে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য বার্তা পেয়েছেন।
ইসলামাবাদের জন্য ঋণ সহায়তা প্যাকেজ নিয়ে সম্প্রতি আলোচনা চালিয়ে আসছে পাকিস্তান ও সউদী আরব। সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার পর যেখানে সউদী বিনিয়োগ সম্মেলন থেকে বিভিন্ন দেশ ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিজেদের সরিয়ে নিয়েছে, সেখানে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যোগ দেন এবং বিদেশী বিনিয়োগকারীদের পাকিস্তানে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়েছেন। ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রধানমন্ত্রীর এটা ছিল দ্বিতীয় সউদী আরব সফর। পাকিস্তানকে আর্থিক সঙ্কট থেকে বের করে আনাতে বন্ধুপ্রতীম দেশগুলো থেকে সহায়তা লাভের প্রচেষ্টা হিসেবে ওই সফরে যান তিনি।
এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন যে, তাকে সবসময়ই জিজ্ঞাসা করা হয় যে, “কখন আপনারা চোরদের জেলে ভরবেন? এটা পাকিস্তানের জনগণের দাবি”।
উমর বলেন যে, তিনি রোববার এক ডিনারে পাকিস্তানের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, কর্পোরেট এবং নির্বাহী অভিজাতবর্গের সাথে যোগ দেন। তারা ইমরান খানকে পরামর্শ দেন যেন তিনি “দুর্নীতি নিয়ে আপাতত মাথা না ঘামিয়ে সামনে এগিয়ে চলেন”।
তিনি বলেন, “কিন্তু পাকিস্তানের নাগরিকদের সাথে যেখানেই দেখা করেছি, তারা জিজ্ঞাসা করেছে যে, কখন আমরা চোরদের জেলে পাঠাবো। এই শ্রেণীভাগটা সবসময়ই ছিল”।
“এটা একটা চ্যালেঞ্জ, এটা একটা দু-ধারী তলোয়ার। আপনি সমাজে দায়বদ্ধতা আনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এর অর্থ হলো যদি একজন পকেটমার চুরির দায়ে জেলে যায়, তাহলে জনগণের সম্পদ লুটের জন্য দায়ি ব্যক্তিকেও জেলে যেতে হবে। নেতৃবৃন্দের দায়িত্ব হলো এটা নিশ্চিত করা যাতে এ ধরনের পরিস্থিতি তৈরি না হয়”।
মন্ত্রী বলেন যে জনগণের কল্যাণ নিশ্চিত করার জন্য সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। রেডিও পাকিস্তান তাদের রিপোর্টে এ তথ্য জানিয়েছে। তিনি বলেন যে, জনগণকে সেবা দিতে সরকার অর্থনৈতিক অর্জনের দিকে মনোযোগ দিয়েছে, এবং নাগরিকরা শিগগিরই ‘দৃশ্যমান অগ্রগতি’ দেখতে পাবে। সূত্র : সাইথ এশিয়ান মনিটর।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ