Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

পাবনা-৩ আসনে ৫ প্রার্থীর প্রচারণা চলছে

চাটমোহর (পাবনা) থেকে আফতাব হোসেন | প্রকাশের সময় : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৬:১৯ পিএম

একাদেশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পাবনা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দের পরপরই ৫জন প্রার্থী ব্যাপক প্রচার চালাচ্ছেন। পাবনা-৩ (চাটােমাহর, ভাঙ্গুড়া ও ফরিদপুর) আসনে আওয়ামী লীগ হতে বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ মকবুল হোসেন নৌকা, বিএনপি হতে সাবেক এমপি কেএম আনোয়ারুল ইসলাম ধানের শীষ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুল মুত্তালিব হাত পাখা এবং গণতন্ত্রী পার্টি থেকে খায়রুল আলম কবুতর প্রতীক পেয়ে পোস্টর, লিফলেট দিয়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন। আলহাজ্ব হাসানুল ইসলাম রাজা বিএনপি হতে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করলে ঋণ খেরাপির দায়ে তা বাতিল হয়ে যায়। পরবর্তীকে তিনি আপিল করে তাঁর মনোনয়ন ফিরে পান। বর্তমানে তিনিও স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সিংহ প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছেন। পাবনা-৩ আসনে ৫জন প্রার্থী হলেও মূলতঃ ২জন প্রার্থীর প্রচার প্রচারনা বেশি পরিলক্ষিত হচ্ছে। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ মকবুল হোসেন নৌকা এবং বিএনপি হতে সাবেক এমপি কেএম আনোয়ারুল ইসলাম ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব মোঃ মকবুল হোসেন নৌকা প্রতীকে পরপর ২বারের সংসদ সদস্য অপর দিকে বিএনপি হতে কেএম আনোয়ারুল ইসলামও ২বারের সংসদ সদস্য ছিলেন। উভয়েরই নির্বাচনের দারুন দক্ষতা রয়েছে। নির্বাচনের দিকে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির ২ প্রার্থী বেশ অভিঙ্গও বটে। তাঁরা এবং তাঁদের নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা প্রতিনিয়ত গ্রাম, মহল্লায় ব্যাপক ভাবে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকের প্রচার করছেন এবং স্ব স্ব প্রার্থীর জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন। অপর দিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুল মুত্তালিব হাত পাখা এবং গণতন্ত্রী পার্টি থেকে খায়রুল আলম কবুতর প্রতীকের তেমন প্রচার দেখা যাচ্ছে না তাঁদের প্রচার চলছে ঢীমে তালে। আলহাজ্ব হাসানুল ইসলাম রাজা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে তাঁর মনোনয়ন আপিল করে ফিরে পেয়ে সিংহ প্রতীকে সবেমাত্র প্রচারণা চালাচ্ছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ