Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫, ১৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

৫০ বছর রাজনীতির জীবনে এমন হামলার মুখোমুখি হইনি: নোমান

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৭:৩৮ পিএম | আপডেট : ৭:৩৯ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮

নগরীর হালিশহরে রোববার বিকেলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-পাহাড়তলী) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমানের র‌্যালীতে হামলা হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন বিএনপির অন্তত ১০ নেতা। তবে আবদুল্লাহ আল নোমানকে দলের নেতা-কর্মীরা ঘেরাও করে রাখায় তিনি রক্ষা পান। তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে আবদুল্লাহ আল নোমান এই হামলার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করে বলেছেন তার প্রাণনাশের জন্যই এই আক্রমন। তিনি বলেন, আমার ৫০ বছর রাজনীতির জীবনে এরককম আর হামলার মুখোমুখি হইনি।
হামলার শিকার ও ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নগর বিএনপির সহসভাপতি এডভোকেট আবদুস সাত্তার দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, হালিশহর নয়াবাজার মোড়ে বিএনপির বিজয় দিবসের র‌্যালীর প্রস্তুতি চলছিল। এসময় যুবলীগ নেতা সুমন দেবনাথের নেতৃত্বে একদল সস্ত্রাসী লাঠি সোটা, লোহার রড ও অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। তারা লাঠি দিয়ে এলোপাথারি আঘাত করে। এসময় গুলির শব্দও শোনা যায়। হামলায় অনেকে আহত হয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, ঘটনার সময় পুলিশে খবর দেওয়া হলেও তারা আসেনি।
এদিকে কাজির দেউড়ীর নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলনে আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, বিজয় দিবসের মিছিল করতে সাধারণত পুলিশ প্রশাসনের অনুমতি লাগে না। এরপরও কয়েকদিন আগে পুলিশ প্রশাসনের কাছে হালিশহরের নয়াবাজার মোড়ে বিজয় মিছিল করার কথা জানিয়েছি। এমনকি আজকে যাওয়ার সময়ও পুলিশকে জানিয়েছি। কিন্তু আধ-ঘণ্টা ধরে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তাণ্ডব চালিয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করেছে। এসময় পুলিশের সাহায্য চেয়েও পাইনি। তিনি বলেন, আমার ৫০ বছর রাজনীতির জীবনে এরককম আর হামলার মুখোমুখি হইনি। তারা অস্ত্র নিয়ে হামলা করেছে। এরমধ্যে দু’জনকে অস্ত্র বের করতে দেখেছি। কোনোরকম প্রাণ রক্ষা হয়েছে আমার। এ পরিস্থিতিতে নির্বাচন থেকে সরে আসা উচিত উল্লেখ করে নোমান বলেন, সারাদেশে যেভাবে হামলা-মামলা হচ্ছে, আমার মনে হয় না নির্বাচনের পরিবেশ আছে। এরপরও নির্বাচনে থাকব কারণ জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে। ওরাই আমাদের শক্তি। আমার বিশ্বাস ৩০ তারিখ নির্বাচনে জনগণ অন্যায় প্রতিরোধ করবে।
হালিশহর থানার ভারপপ্রপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম ওবায়দুল হক বলেন, হামলার কোনো ঘটনা ঘটেনি। নয়াবাজার মোড়ে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের মিছিল মুখোমুখি হয়েছে। এসময় দুই দলকেই দু’দিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ