Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৫ চৈত্র ১৪২৫, ১১ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

নিরাপত্তা পরিষদে মুসলিমদের প্রতিনিধিত্ব চাই : এরদোগান

এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা যুক্তরাষ্ট্রকে দেখাবে না তুরস্ক

ইনকিলাব ডেস্ক : | প্রকাশের সময় : ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

জাতিসংঘের কাছ থেকে ন্যায়বিচার আশা করা উচিত নয় বলে জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেপ এরদোগান। আর তাই নিরাপত্তা পরিষদে একচ্ছত্র আধিপত্যকারী পাঁচ সদস্যের সঙ্গে মুসলিমদের প্রতিনিধি চান তিনি। তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আনাদোলুর এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, এক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এমন কথা বলেন এরদোগান। সায়েন্টিফিক অ্যান্ড টেকনোলোজিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিল অব তুর্কি এবং টার্কিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস একটি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বুধবার তিনি বলেন, ‘ন্যায়বিচারসহ অন্য কোনো কিছুই আমি জাতিসংঘ ও নিরাপত্তা পরিষদের কাছ থেকে আশা করি না। এমন কোনো কিছু সেখানে খোঁজ করবেন, কেননা সেখানে এমন কিছুই নেই।’ তিনি আরও বলেন, ‘মুসলিমরা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে তাদের নিজেদের বিভিন্ন বিষয় ও আন্তর্জাতিক সমস্যা নিয়ে কথা বলার সুযোগ পায় না। মুসলিমদেরকে কোনো প্রকার সুযোগ দেয়া হয় না সেখানে। মুসলিম বিশ্বে কমপক্ষে ১৭০ কোটি মানুষ আছে, কিন্তু জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে তাদের কোনো প্রতিনিধি নেই। এটা দেখলেই সব বোঝা যায়।’ আর এসব কারণেই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সংস্কার চান তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান। তাইতো তিনি নিরাপত্তা পরিষদের ক্ষমতাধর ৫ দেশের সমালোচনা করেন। আর জাতিসংঘের এই সংস্কার প্রক্রিয়ায় তার স্লোগান হল, ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ’ অর্থাৎ এই পৃথিবী ওই পাঁচ দেশের চেয়ে বড়। দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ বিগার দ্যান ফাইভ অর্থাৎ এই পৃথিবী নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ দেশের চেয়ে বড় বলে স্লোগানের মাধ্যমে নিয়মিত জাতিসংঘের সমালোচনা করেন এরদোগান। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্য হল- যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। অপর এক খবরে বলা হয়, রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার পর তা কোনোভাবেই আমেরিকাকে দেখতে দেয়া হবে না। তুরস্কে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সি ইয়ারকভকে এ নিশ্চয়তা দিয়েছেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু। তিনি বলেন, এস-৪০০ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র যাতে কোনো রকম গবেষণা করার সুযোগ না পায় আংকারা সে ব্যবস্থা নেবে। তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে রাশিয়ার গণমাধ্যম স্পুৎনিক এ খবর দিয়েছে। সূত্রটি বলেছে, “আমাদের মন্ত্রী রাশিয়াকে এই নিশ্চয়তা দিয়েছেন যে, এমন কোনো আলাচনা হয় নি যার কারণে যুক্তরাষ্ট্ররাশিয়ার এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করতে পারে।” চাভুসওগ্লু বুধবার টুইটার বার্তায় রুশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাক্ষাতের কথা জানিয়েছেন তবে বিষয়টি নিয়ে তিনি বিস্তারিত কিছু বলেন নি। সম্প্রতি দুটি সূত্রের বরাত দিয়ে ব্লুমবার্গ টেলিভিশন চ্যানেল জানিয়েছে, এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণের জন্য আমেরিকাকে প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক। স্বল্প সময়ের মধ্যে তুরস্কের কাছে রাশিয়ার এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সরবরাহ করার কথা রয়েছে। তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকার এ রিপোর্ট নাকচ করেছেন। আনাদোলু, ব্লুমবার্গ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ