Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

দক্ষিণ-পশ্চিমের আমজনতার প্রত্যাশা

মিজানুর রহমান তোতা | প্রকাশের সময় : ১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

নতুন বছরের শুরুতে দক্ষিণ-পশ্চিমের আমজনতা ফেলে আসা নানা স্মৃতি হাতড়ে অতীত ও ভবিষ্যতের হিসাব-নিকাশ করছেন। সবারই প্রত্যাশা নতুন বছরের নতুন ভোর আলোয় উজ্জ্বল হোক। রাজনৈতিক সংস্কৃতি, শিষ্টাচার ও সৌহার্দ্যপুর্ণ পরিবেশ, সহনশীলতা ও সহমর্মিতার রাজনীতি হোক।
একইসঙ্গে বিশাল এই অঞ্চলের সব সম্ভাবনা সঠিকভাবে কাজে লাগানো হবে। এই অঞ্চলের ২২ হাজার ৭শ’৩৭ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের ৫৯টি থানার ৬শ’ ৬৭টি ইউনিয়ন প্রায় ৩ কোটি মানুষের আবাসস্থল। বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষের কথা, কালের গর্ভে হারিয়ে যাওয়া ২০১৮ সাল সার্বিক বিষয়ে কেটেছে মোটামুটি। পুরানোকে ধুয়ে মুছে নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়ে প্রতাশা করেছে, ২০১৯ কাটুক গেল বছরের চেয়ে ভালো। বিশেষ করে মাথা উচু করে দাঁড়ানোর স্বপ্ন পুরণ হোক।
বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনের আশীর্বাদপুষ্ট ও স্বাধীনতার প্রবেশদ্বার সীমান্তবর্তী যশোর, খুলনা, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা, সাতক্ষীরাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল অনেক সম্ভাবনাময় অঞ্চল এটি। বিদায়ী বছরেও সন্ত্রাস ও মাদক শূন্যের কোঠায় আনা যায়নি। এমনকি নতুন করে উঠতি বয়সের সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন এলাকার পাড়া মহল্লায় ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে।
দেশের ৩৭ শতাংশ এলাকা দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষাকারী পদ্মার শাখা-প্রশাখা অভিন্ন নদ-নদী পানিশূন্যতায় উদ্বিগ্ন। শুষ্ক মৌসুমে এ অঞ্চলে পানি সংকট হয় তীব্র। এখন শীতকালেও বহু টিউবওয়েলে পানি উঠছে না। যশোর, খুলনা ও সাতক্ষীরার বিরাট এলাকায় কপোতাক্ষ নদপাড়ের মানুষ কৃষি, শিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্য অর্থনীতিতে বিরাট ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এখনো। পানিবদ্ধতা নিরসনে সরকার কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিলেও তা যথাযথভাবে ব্যয় না করে নামকাওয়াস্তে কাজ দেখিয়ে লুটপাট হওয়ায় সমস্যার সমাধান হয়নি শুধু গেল বছর নয়, বছরের পর বছর ধরে। নতুন বছরে প্রত্যাশা রয়েছে কপোতাক্ষ নদের স্থায়ী সমাধানের জন্য জোরালো পদক্ষেপ নেয়া হবে।
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত দেশের একমাত্র সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোল, দ্বিতীয় সমুদ্র বন্দর মংলা, নদীবন্দর নওয়াপাড়া, ভোমরা ও দর্শনা স্থলবন্দরের অবকাঠামো উন্নয়ন দেখতে চায় জনগণ। এসব বন্দর থেকে সরকার প্রতিবছর হাজার হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায় করে। অথচ বন্দর বা বন্দর এলাকার উল্লেখযোগ্য উন্নয়নে ব্যয় হচ্ছে না।
সাধারণ কৃষকদের কথা, এনজিওদের ঋণের জালে আটকেপড়া কৃষকদের বের করে আনা দরকার। তাছাড়া মধ্যস্বত্বভোগীদের লাগাম টেনে ধরার জোরদার ব্যবস্থাপনা দরকার। একইভাবে দরকার কৃষিপণ্যের উপযুক্ত মূল্যের ব্যবস্থা। বিশেষ করে সারাদেশের মোট চাহিদার ৬৫ ভাগ সবজি উৎপাদন করে অঞ্চলটি। মাঠের মূল্য আর বাজার মূল্যের বিস্তর ফারাকের কারনে উৎপাদক চাষী ও ভোক্তা উভয়েই ঠকেছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের কথা, গেল বছর এ অঞ্চলের সরকারি দলের প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলের নেতা ও কর্মীদের নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতনের অভিযোগ মারাত্মকপর্যায়ে ওঠে। নতুন বছরে সেটি যাতে না হয় তাও প্রত্যাশা করা হয়েছে সচেতন মহল থেকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দক্ষিণ-পশ্চিম

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
২৮ আগস্ট, ২০১৭

আরও
আরও পড়ুন