Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

পল্লবীতে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে রিকশাচালক নিহত

স্টাফ রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

রাজধানীর মিরপুরের পল্লবীতে দুর্বৃত্তের ছুরিকাঘাতে আতিকুল ইসলাম (২১) নামে এক রিকশাচালক নিহত হয়েছেন। গতকাল ভোর ৪টার পরে কোন এক সময়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আতিকুল সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা উপজেলার বলাই শিমলা গ্রামের ওসমান প্রামাণিকের ছেলে। তিনি পল্লবীতে একটি রিকশার গ্যারেজে থাকতেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আতিক পল্লবীর ওই গ্যারেজের ভেতরে একটি কক্ষে একাকী থাকতেন। গতকাল ভোর ৪টার পরে আতিকুলের চিৎকার শুনে গ্যারেজের অন্যরা রুমের ভেতরে গিয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় বিছানায় পরে থাকতে দেখেন। তখন তারা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আতিকুলকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাাতলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ছুরিকাঘাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ থেকে তার মৃত্যু হয়েছে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।
পল্লবী থানার এসআই ফারুকাজ্জামান মল্লিক বলেন, গ্যারেজ থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। প্রাথমিকভাবে কে বা কারা তাকে হত্যা করেছে সেটি জানা যায়নি। তবে শত্রুতাবশতঃ এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে পুলিশ ধারণা করছে। এ বিষয়ে গ্যারেজের অন্যান্য লোকসহ আশপাশের বাসীন্দাদের সাথে কথা বলে হত্যার প্রকৃত কারণ ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, আতিকুলের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। গতকাল সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
আতিকুলের বড় ভাই রাশিদুল বলেন, গতকাল ভোরে এক পরিচিত ব্যক্তি তাদেরকে ফোন করে তার ভাইকে ছুরিকাঘাত করার কথা জানান। পরে তারা ঢাকায় এসে পল্লবী থানায় গিয়ে আতিকের লাশ শনাক্ত করেন। রাশিদুল বলেন, আতিক পল্লবীর যে রিকশার গ্যারেজের ভেতরে থাকতেন সেখানেই তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে বলে তিনি শুনতে পেরেছেন। তবে কে বা কারা তার ভাইকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে তিনি কিছুই জানাতে পারেননি।
পল্লবী থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছে। এ ঘটনায় গতকাল রাত পৌনে ৮টা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। লাশ দাফন শেষে পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হবে বলে তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ