Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

কাদের খানের ইন্তেকাল

বলিউডের রথি-মহারথিদের শোক

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

বলিউডের স্বনামধন্য মঞ্চাভিনেতা ও চিত্রনাট্য লেখক কাদের খান ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। দীর্ঘ রোগভোগের পর নতুন বছরের প্রথম প্রহরেই কানাডায় ইন্তেকাল করলেন তিনি।
দৈনিক ইনকিলাবে গতকালের সংখ্যায় ‘মৃত্যুর গুজব’ বলে একটি প্রতিবেদন ছাপা হয়েছিল। সেখানে তার পুত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত মৃত্যুর খবরকে গুজব বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। কাদের খানকে কানাডাতেই দাফন করা হবে বলে জানা গেছে। এদিকে বলিউডের বহু সাড়া জাগানো ছবির অভিনেতা কাদের খানের ইন্তেকালে শোক নেমে এসেছে বোম্বে ছবিপাড়ায়। তার সহকর্মীরা শোক প্রকাশ করে ফেসবুক ও টুইটার ভরিয়ে তুলেছেন।
বিগ বি লেখেন, ‘কাদের খান চলে গেলেন। একজন অসামান্য মঞ্চাভিনেতাকেও হারালাম আমরা। হারালাম এক অসাধারণ লেখককেও। তার সঙ্গ খুব উপভোগ করতাম।
তিনি ছিলেন হিন্দি সিনেমার বিশাল জগতে কমেডির একমে বা দ্বিতীয়ম শাহেনশাহ। অথচ, মজার ব্যাপার হল, গত শতাব্দীর সাতের দশকের মাঝামাঝি থেকে নয়ের দশক পর্যন্ত বহু হিট ছবির চিত্রনাট্য ও সংলাপও লেখা তার। তিনটি ফিল্মফেয়ার রয়েছে তার ঝুলিতে। যাদের মধ্যে ১৯৮২ সালে ‘মেরি আওয়াজ সুনো’ এবং ১৯৯৩ সালে ‘অঙ্গার’-এর জন্য পাওয়া ফিল্মফেয়ার দুটি পান তার লেখা সংলাপের জন্য। জন্ম ১৯৩৭ সালের ১১ ডিসেম্বর। অভিনেতা হিসেবে কেরিয়ার শুরু করেন বেশ পরে। ছত্রিশ বছর বয়সে এসে। ১৯৭৩ সালে রাজেশ খান্না অভিনীত ‘দাগ’ ছবি দিয়ে। সাত এবং আটের দশকে ছবিতে অভিনয় করলেও চিত্রনাট্য এবং সংলাপ লিখেছেন অনেক বেশি। এই পুরো চিত্রটা বদলে গেল নয়ের দশকে এসে। হিন্দি ছবি তথা ভারতীয় সিনেমার দর্শক পেল এক নতুন ঝকঝকে ত্রয়ীকে। গোবিন্দা-কাদের খান-ডেভিড ধাওয়ান। একের পর এক কমেডি ছবি। প্রত্যেকটিই দুর্দান্ত হিট। দীর্ঘ রোগভোগের পর গতকাল কানাডায় ৮১ বছর বয়সে ইন্তেকাল করলেন অভিনয়ের জগতে আসার আগে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং-এর অধ্যাপনা করা কাদের খান।
তার ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করে বাণী দিয়েছেন, অমিতাভ বচ্চন, মনোজ বাজপেয়ী, অর্জুন কাপুর, অনুপম খের, আনিস বাজমি, মধুর ভান্ডারকর। অমিতাভ বচ্চনের বহু হিট ছবির সঙ্গে জড়িয়ে ছিল চিত্রনাট্যকার এবং সংলাপ লেখক কাদের খানের নাম। তাকে স্মরণ করে বিগ বি লেখেন, ‘কাদের খান চলে গেলেন। খুবই শোকের খবর এটি। আমার প্রার্থনা ও সমবেদনা রইল তার পরিবারের জন্য। একজন অসামান্য মঞ্চাভিনেতাকেও হারালাম আমরা। হারালাম এক অসাধারণ লেখককেও। তার সঙ্গ খুব উপভোগ করতাম’।
অনুপম খের লেখেন, ‘আমাদের দেশের অন্যতম সেরা অভিনেতা ছিলেন কাদের খান সাব। সেটে তার সঙ্গে কাজ করা অতি শিক্ষণীয় এবং মনে রাখার মতো অভিজ্ঞতা। ক্যামেরার সামনে তার নিজেকে ক্রমশ উন্নতি করার দক্ষতা ছিল প্রশ্নাতীত। আমরা তাকে মিস করব খুব।
হিন্দি সিনেমায় তার লেখক হিসেবে অবদানের জন্য ২০১৩ সালে সাহিত্য শিরোমণি পুরস্কার পান কাদের খান। সূত্র : এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইন্তেকাল


আরও
আরও পড়ুন