Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ জানুয়ারি ২০১৯, ০৭ মাঘ ১৪২৫, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

প্রশ্ন : দেশে পশু কোরবানি দেয় জবাই করে; এতে প্রাণীর অনেক কষ্ট হয়। এটা খুব নিষ্ঠুরতা মনে হয়। এক কোপে যদি মাথা থেকে দেহ আলাদা করলে পশুর কষ্ট কম হতো। আল্লাহর নাম নিয়ে এক কোপে যদি মাথা থেকে পশুর দেহ আলাদা করা হয়, তাহলে কোরবানি হবে কি?

মুসা আলী
ইমেইল থেকে।

প্রকাশের সময় : ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:১৪ এএম

উত্তর : আমাদের দেশে শুধু নয়, পৃথিবীর সব দেশেই মুসলমানরা পশুকে এভাবেই জবাই করেন। মুসলমানরা নিজের ইচ্ছায় করেন না, এভাবে আল্লাহ ও রাসূল (সা.) করতে বলেছেন বলেই করেন। আপনার কাছে জবাই করাটা কষ্টের কিংবা নিষ্ঠুরতা মনে হলেও পশুর স্রষ্টা মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন এভাবেই প্রয়োজনে পশু জবাইয়ের হুকুম দিয়েছেন। বিজ্ঞানেও প্রমাণিত আছে যে, মাথায় ধরে পশুকে মাটিতে শুইয়ে দিলে কিংবা তার গলদেশে অবস্থিত প্রধান তিনটি রগ কেটে দিলে সাথে সাথেই পশুটির মস্তিষ্ক বোধ ও অনুভ‚তি শক্তি হারিয়ে ফেলে। তখন দেখতে যেমনই মনে হোক, পশুর মারাত্মক কোনো কষ্ট বা যন্ত্রণা হয় না। এ সময়টিতে তার দেহের প্রবাহিত রক্ত (যা হারাম) সজোরে নির্গত হয়ে শেষ হয়। কয়েক মিনিট তার দেহ আন্দোলিত হওয়ার সুযোগ শরিয়ত এ জন্য রেখেছে যে, তার দেহের প্রতিটি শীরা-উপশীরা ও কোটি কোটি কোষ থেকে মানুষের জন্য ক্ষতিকর পদার্থ রক্তের সাথে যেন নিঙড়ে বের হয়ে যেতে পারে। এক কোপে মাথা আলাদা করা বা বলি দেওয়ার পদ্ধতি ইসলামী শরিয়ত সমর্থন করে না। এতে জবাইয়ের উদ্দেশ্য ও রহস্য কোনোটাই পূরণ হয় না। জবাই করাই ইসলামের পদ্ধতি। এ পদ্ধতি ছাড়া কোরবানি আদায় হবে না। এভাবেই হালাল পশু জবাই করতে হবে। উটের ক্ষেত্রে নহর পদ্ধতিও স্বীকৃত। জেনে রাখা উচিত, তিনটি রগ কাটার পর পশুকে রক্ত প্রবাহিত হয়ে সে নিস্পন্দন হওয়া পর্যন্ত সময় দেয়া ওয়াজিব। এর আগে ছোট ছুরি দিয়ে খুঁচিয়ে গলার হাঁড়ের মধ্যকার রগগুলো কেটে দিয়ে দ্রুত মেরে ফেললে, যদি যথেষ্ট পরিমাণ প্রবাহিত রক্ত নিঙড়ে বের হওয়ার আগেই পশুটি মারা যায়, তাহলে তার গোশত হালাল হওয়া নিয়েও যথেষ্ট সংশয় রয়েছে। সুতরাং ইলেকট্র্রিক শক কিংবা কোপ মাথা আলাদা করে ফেলা জায়েজ নয়। পশুদের প্রতি দয়ার বিধান হিসেবে নবী করিম (সা.) কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন। এক পশুকে আরেক পশুর সামনে জবাই না করা। বেশি সময় বেঁধে ফেলে না রাখা। তীক্ষ্ন ধারালো ছুরি ব্যবহার করা। তার প্রাণ বের হয়ে থিতু হওয়ার আগেই চামড়া ছোলা শুরু না করা ইত্যাদি শরিয়তে রয়েছে।

সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতাওয়া বিশ্বকোষ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • Foysol Ahmed ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:০৯ এএম says : 1
    অত্যন্ত জ্ঞানগর্ভ উত্তর দেয়ার জন্য শায়েখকে ধন্যবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Zulfiqar Ahmed ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:০৯ এএম says : 1
    জাঝাকাল্লাহ। উপকারী প্রশ্ন। আমার মনে অনেক দিন থেকেই প্রশ্নটা ঘুরপাক খাচ্ছিল।
    Total Reply(0) Reply
  • Zulfiqar Ahmed ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:১০ এএম says : 1
    ইসলামি বিধান কতটা বিজ্ঞান সম্মত তাই না!! ধন্যবাদ।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Kowaj Ali khan ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৩৪ এএম says : 1
    আসলে আমরা দেখতে পাই পশুর কষ্ট। আসলে পশুটা কত যে আল্লাহ তা'আলার রহমতে দুনিয়া হইতে শান্তি নিয়ে গেলো আমরা তাহা দেখতে পাই না। পৃথিবীতে প্রমান আছে কোরবানির জন্য পশু জবেহ হইতে অনেক জায়গায় মাথা পেতে দেয়। সোবহানআল্লাহ ৷ **********
    Total Reply(0) Reply
  • parvez ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ৯:২০ এএম says : 2
    হাস্যকর ও অবান্তর প্রশ্ন। জবাব দেবারই দরকার ছিল না।
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ জুনায়েদ ৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ৫:১০ পিএম says : 1
    আলহামদুলিল্লাহ।শায়েখকে অনেক অনেক জাযাকাল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply
  • Ayub Ali ৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ১১:৩৫ এএম says : 0
    good post for muslim
    Total Reply(0) Reply
  • arif ১৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ৪:০৬ এএম says : 0
    good
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ