Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা বন্ধে স্মার্টফোন অ্যাপ

প্রকাশের সময় : ৯ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : বন্যপ্রাণী নিয়ে অবৈধ বাণিজ্য বন্ধ করতে বিশ্বজুড়ে অভিনব এক প্রচারণা শুরু হয়েছে। পরিবেশ সংরক্ষণবাদীরা এজন্যে সাধারণ লোকজনকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। তারা একটি স্মার্টফোন অ্যাপ তৈরি করেছেন যাতে লোকজন বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা হচ্ছে এরকম সন্দেহ হলেই তার ছবি ও তথ্য তুলে ধরতে পারবেন। অ্যাপটির নাম ওয়াইল্ডলাইফ উইটনেস। অস্ট্রেলিয়ার একটি সংস্থা বন্যপ্রাণীর ব্যবসার ওপর নজর রাখে এরকম একটি নেটওয়ার্কের সাথে মিলে এই অ্যাপটি তৈরি করেছে।
বলা হচ্ছে, এই তথ্য ও ছবি ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট বাহিনী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে পারে। জাতিসংঘ বলছে, অর্থের হিসেবে প্রতিবছর এই বাণিজ্যের পরিমাণ প্রায় হাজার হাজার কোটি টাকা। পরিবেশ সংরক্ষণবাদীরা বলছেন, বন্যপ্রাণী ও এসব প্রাণীর অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিক্রি বন্ধে নানা ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হলেও এই ব্যবসা দিনে দিনে বাড়ছে। যেসব প্রাণী প্রায় হারিয়ে যেতে চলেছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সেসব প্রাণীর শিকারও বেড়ে গেছে। তারা বলছেন, বাঘ, গ-ার ও হাতি শিকার গত কয়েক বছরে বৃদ্ধি পেয়েছে। কারণ, এসব প্রাণীর বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের চাহিদাও আগের তুলনায় বেড়েছে। বলা হয় চীনেই এর সবচে বড় বাজার। যুক্তরাজ্যে সুপরিচিত একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান চ্যাটাম হাউজ তাদের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে বলেছে, এই চাহিদা বাড়ছে অত্যন্ত উদ্বেগজনক হারে। প্রতিবেদনের গবেষকরা বলেছেন, হাতির দাঁতের ব্যবসা ২০০৭ সালের তুলনায় দ্বিগুণ হয়েছে। তারা বলছেন, গ-ারের শিং-এর দাম এখন সোনা ও প্লাটিনিয়ামের চেয়েও বেশি। যুক্তরাষ্ট্রে এক কিলোগ্রাম শিঙ-এর দাম প্রায় ৬৬ হাজার ডলার। অপরাধ প্রতিরোধী সংস্থাগুলো বলছে, অপরাধীরা এখন বন্যপ্রাণীকে এমনভাবে টার্গেট করছে যা ড্রাগ, অস্ত্র ও মানব পাচারের প্রায় সমান পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। স্মার্টফোন অ্যাপটি বিশেষ নজর রাখবে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দিকে কারণ এই এলাকাকে বন্যপ্রাণীর অবৈধ বাণিজ্যের কেন্দ্র বলে মনে করা হয়। সূত্র : বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্যপ্রাণীর অবৈধ ব্যবসা বন্ধে স্মার্টফোন অ্যাপ
আরও পড়ুন