Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬, ১৫ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

বাবা পুকুর পাহারায় ব্যস্ত মালিক ধর্ষণ করল মেয়েকে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

কুমিল্লা লাকসাম উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামে এক কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গতকাল ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে লাকসাম থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই কিশোরীর বাবা বেশ কিছুদিন ধরে কৃষ্ণপুর এলাকায় তাজুল ইসলাম মজুমদারের (৪২) মাছের পুকুরে পাহারাদারের কাজ করতো। পুকুরের পাশেই একটি টিনের ঘরে বাবা-মা ও এক ভাইসহ বসবাস করতো ওই কিশোরী। গত বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে পুকুরের মালিক তাজুল ইসলাম মজুমদার কৌশলে ঘরের উত্তর পাশে নিয়ে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এ সময় কিশোরীর মা ঘুমিয়ে ছিলেন এবং বাবা পুকুর পাহারায় ব্যস্ত ছিলেন। ঘটনার পর ওই কিশোরী কান্নাকাটি করতে থাকে। কিশোরীর ভাই ফিরোজ মাহমুদ বাইরে থেকে এসে কান্নার কারণ জানতে চাইলে তাজুল ইসলাম তাকে মারতে আসে। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। অভিযুক্ত তাজুল ইসলাম মজুমদার কৃষ্ণপুর এলাকার মৃত আবু তাহের মজুমদারের ছেলে।

এদিকে ঘটনাটি স্থানীয় উত্তরদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদকে জানালে তিনি আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেন। পরে কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় লাকসাম থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাজুল ইসলাম মজুমদারকে গ্রেফতার করেছে।
এ বিষয়ে লাকসাম থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) নজরুল ইসলাম জানান, ভিকটিমের শারীরিক পরীক্ষাসহ ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। অভিযুক্ত তাজুল ইসলাম মজুমদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।



 

Show all comments
  • Ramjan Sk ৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:১৫ এএম says : 0
    Or fasee deoya uchit
    Total Reply(0) Reply
  • Mazharul ৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:২০ পিএম says : 0
    Oke amon sikha dite hobe jate keu amon kaj na kore
    Total Reply(0) Reply
  • Rajon ৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৭:২৯ এএম says : 0
    Je dhorshon korese...or meyekeo dhore dhorshon korte hobe...tahole o bojbe ...
    Total Reply(1) Reply
    • মুক্তি ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:০১ পিএম says : 0
      ওরা নষ্ট মানুষ বুঝবে না
  • Mukti ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৮ পিএম says : 0
    সব ধর্ষণের সাথে রাষ্ট্রীয় সহায়তা থাকে বলে এরা সহজে পার পায়। সরকারের কোন মাথা ব্যাথা নাই কেন ? এটা তাদের মর্মাহত করে না কেন ? অধিকাংশ ধর্ষক তাদের সাথে জড়িত। তাই মজলুম রা জাগ্রত হতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • শিমুল ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১১:০৪ পিএম says : 0
    ওরা মানুষ না অ মানুষ
    Total Reply(0) Reply
  • শিপন ২৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:২২ পিএম says : 0
    কোরানের আইন যতদিন চালু না হবে ততদিন এসব বন্ধ করা যাবে না,,
    Total Reply(0) Reply
  • কারবারী ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৯ পিএম says : 0
    ওর ...টা কেটে ফেলা হোক।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ