Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

উত্তরায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১২ পিএম

ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে রাজধানীর উত্তরায় তৃতীয় দিনের মতো বিক্ষোভ করছেন পোশাক শ্রমিকরা। আজ মঙ্গলবার সকাল ৯টায় আজমপুরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করেন পোশাক শ্রমিকরা।

এ সময় পুলিশ তাদের টিয়ারশেল নিক্ষেপ করলে শ্রমিকরা রেললাইনের ওপর অবস্থান নেয়। পোশাক শ্রমিকরা ওই এলাকায় দুটি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

জানা গেছে, আজমপুরে শাহজালাল অ্যাভিনিউয়ে পুলিশ ও পোশাক শ্রমিকরা মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছেন। শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছেন। পুলিশও দফায় দফায় টিয়ারশেল নিক্ষেপ করছে। এ সময় ওই এলাকায় প্রাণ গ্রুপের একটি গাড়ি ও একটি প্রাইভেটকার ভাঙচুর করতে দেখা গেছে শ্রমিকদের।

এদিকে দক্ষিণখানে সকালে নিপা গার্মেন্টের সামনে পুলিশ ও পোশাক শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে ১০ শ্রমিক ও পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা একটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন।

অন্যদিকে মিরপুরের কালশীর ২২তলা গার্মেন্ট এলাকায় অবস্থান করে বিক্ষোভ করছেন পোশাক শ্রমিকরা। এতে ওই এলাকায় যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

সকাল ৮টার পর থেকে পোশাক শ্রমিকরা কালশী সড়কে অবস্থান নেয়। এ সময় পুলিশ দিয়ে তাদের সরিয়ে দেয়। এ সময় পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

গত কয়েক দিন ধরেই রাজধানীর উত্তরার বিমানবন্দর সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করছেন পোশাককর্মীরা।

গতকাল সোমবার দ্বিতীয় দিনের বিক্ষোভে বাসে আগুন ও পুলিশের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের হামলায় ১০ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আর বাস শ্রমিকদের হামলায় এক পোশাক শ্রমিক আহত হন।

এদিন বেতন বৃদ্ধির দাবিতে গাজীপুরে বিভিন্ন পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ ও মহাসড়ক অবরোধ করেন। এ সময় শ্রমিক-পুলিশ ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এর আগে রোববার উত্তরা ও আবদুল্লাহপুরের বিভিন্ন গার্মেন্ট শ্রমিকরা একই দাবিতে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভ চলাকালে উত্তরখান এলাকায় শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে অন্তত ১০ পুলিশ সদস্য আহত হন। ঘটনার একপর্যায়ে কে বা কারা গাড়িতে আগুন দেয়।



 

Show all comments
  • Arafat Sorker Adrib ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৩ পিএম says : 0
    শ্রমিকদের মারছেন বুঝবেন মরলে
    Total Reply(0) Reply
  • চিরুতা চিরতা ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৩ পিএম says : 0
    এখন সকল দল মত বাদ দিয়ে ফেসিবাদ এর বিরুদ্ধে আন্দোলন ঝাপিয়ে পরা উচিত
    Total Reply(0) Reply
  • এম এম আর আই ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৩ পিএম says : 0
    শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার দেওয়া হোক
    Total Reply(0) Reply
  • MD Zahir Meah ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৪ পিএম says : 0
    ওরা পারবে তাদের দাবী আদাই করতে,,,বিএনপি না
    Total Reply(0) Reply
  • Md Alamgir Chowdhury Liton ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৪ পিএম says : 0
    আলোচনার জায়গাগুলো আজ টিয়ারগ্যাস আর বুলেটের দখলে।
    Total Reply(0) Reply
  • রুহুল টেক্সটাইল জেটেব ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৫ পিএম says : 0
    সবই দাদাদের কেরামতি!
    Total Reply(0) Reply
  • Hasan Fakri ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৫ পিএম says : 0
    একটি স্ফুলিঙ্গ থেকে বিরাট দাবানল সৃষ্টি হতে পারে।
    Total Reply(0) Reply
  • Barkat Ullah ৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৪৬ পিএম says : 0
    শ্রমিকদের প্রতি সমর্থন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ