Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১১ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

নিরাপদ পানি নিয়ে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর কথা

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

পানি বিশুদ্ধকরণ ফিল্টার পিওর ইট নিয়ে কথা বলেছেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। সম্প্রতি পণ্যটির গুণাগুণ বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি বিশুদ্ধ পানি সম্পর্কে কিছু কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, ছোটবেলায় সবাই পড়েছি বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ। সেই হিসাবে পানির অভাব আমাদের এদেশে নেই। তবে পানযোগ্য পানির হিসেব করতে গেলে সমীকরণে বেশ কিছু রদবদল এসে যায়। বর্তমানে দেশের ৮৬% বাসা বাড়ির মানুষ টিউবওয়েল কিংবা সাপ্লাই পানি পান করে। তবে পিপাসা মেটাতে আমরা যা পান করছি তার সবই কিন্তু নিরাপদ পানি নয়। এই যুক্তিতে পৃথিবীতে অন্য দেশের মতোই বিশুদ্ধ পানির সংকটে বাংলাদেশও ভুগছে। বেশ কিছুদিন আগে জাতীয় টেলিভিশনে নিরাপদ পানির উপর প্রচারিত হওয়া একটি প্রতিবেদন থেকে জনতে পেরেছিলাম দেশের প্রায় সাড়ে সাত কোটি মানুষ অপরিচ্ছন্ন এবং অনিরাপদ উৎসের পানি পান করছে। পানির নিরাপদ উৎসগুলোর ৪১ শতাংশই ক্ষতিকারক ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়াযুক্ত। পাইপের মাধ্যমে বাসাবাড়িতে সরবরাহ করা পানিতে এই ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি সবচেয়ে বেশি, প্রায় ৮২ শতাংশ। ফলে বাড়ছে পানিবাহিত রোগের সংক্রামণ। চঞ্চল বলেন, আমি নিজেও বেশ অবাক হয়েছি যখন জানলাম আমাদের পাকস্থলী ও অন্ত্রের প্রদাহের জন্য দায়ী এই ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়া। এছাড়াও জন্ডিস, ডায়রিয়া, কলেরার মতো রোগ দেখা দিচ্ছে মহামারি আকারে নিরাপদ ও বিশুদ্ধ পানি পান না করার কারণে। আর দুঃখজনক হলেও পানিবাহিত রোগের বড় শিকার শিশুরা। দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতে, পাঁচ বছর বা এর কমবয়সী শিশু মৃত্যুর শতকরা ৬ শতাংশই ঘটে থাকে পানিবাহিত রোগের জন্য।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পানি

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ