Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।
শিরোনাম

সংলাপসহ তিন কর্মসূচি ঘোষণা ঐক্যফ্রন্টের

নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনরায় নির্বাচন দাবি

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

জাতীয় সংলাপ করার ঘোষণা দিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। গতকাল রাজধানীর বেইলী রোডে ড. কামাল হোসেনের বাসায় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকে নেতারা এ সিদ্ধান্ত নেন। এ ছাড়া নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করা ও নির্বাচনে সহিংসতা হওয়া এলাকায় গণসংযোগের কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়েছে। স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের শেষে ফ্রন্টের মুখপাত্র বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তবে জাতীয় সংলাপ কবে হবে তার দিনক্ষণ কিছুই জানানো হয়নি। কর্মসূচির সিদ্ধান্ত জানিয়ে ফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, আমরা আজকে ফ্রন্টের বৈঠক করেছি যেখানে ৩০ ডিসেম্বর কী ঘটেছিলো তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করছি নির্বাচন যে করা হলো, যে নির্বাচন আমরা আশা করেছিলাম, জনগন যে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে তাদের প্রতিনিধি বাছাই করতে পারতো সেটা তো হয় নাই।
কোনো একটা জিনিস হয়েছে যে, যেটাকে প্রচার করা হচ্ছে যে, নির্বাচন হয়েছিলো এবং সেটার ফলাফলের ভিত্তিতে এই সরকার যেটা গঠন করা হয়েছে সেটা করা হয়েছে। আমরা কিছু কর্মসূচি নিয়েছি এর মধ্যে একটা জাতীয় সংলাপ হবে। পরে ফ্রন্টের পক্ষ থেকে একটি লিখিত বিবৃতি মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম পড়ে শুনান। বিবৃতিতে বলা হয়, নির্বাচন কমিশনের নিকট আমাদের জোর দাবি হচ্ছে, অনতিবিলম্বে নির্বাচনের কেন্দ্রভিত্তিক ফলাফলের সঠিক অনুলিপি প্রদানের ব্যবস্থা করা হোক। জনগন যেন কেন্দ্রভিত্তিক ফলাফলের অনুলিপি পাওয়ার পর তা আদালতে উপস্থাপনের মাধ্যমে প্রমাণ করতে পারে, ৩০ ডিসেম্বর সংবিধান অনুযায়ী বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি। এমতাবস্থায় দেশের জনগন নির্দলীয় সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের অধীনে পুনরায় একটি অবাধ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচনের জোর দাবি করছি।
বিবৃতি বলা হয়, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সরকারি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা ভীতি সন্ত্রস্ত্র হয়ে জনগন ভোট দিতে পারেনি। ফলে জনগন নিজেদের মতামত প্রকাশের অধিকার ও গণতান্ত্রিক অধিকার তথা সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছে। ইউএন কনভেনশন এন্ড হিউম্যান রাইটসের মতে শুধু সাংবিধানিক অধিকার নয় বরং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগনের মানবাধিকারও কেড়ে নেয়া হয়েছে। বাংলাদেশের সংবিধান ও আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের এসব বেআইনি কর্মকান্ড গুরুতর অপরাধ। ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন দেশের মালিক জনগনের সাথে প্রতারনা করেছে। অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের অপব্যবহার করে এবং সেনা বাহিনীর কার্যকর ভুমিকাকে নিষ্ক্রিয় করে নির্বাচন কমিশন পুলিশ ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের মৌখিক নির্দেশ দিয়ে সরকারি মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী বাহিনীকে ব্যালট পেপারে নৌকা ও লাঙ্গল মার্কায় সিল মেরে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে রাখতে সাহায্য করেছে।
ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির আসম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, গণফোরামের সুব্রত চৌধুরী, মোস্তফা মহসিন মন্টু, জগলুল হায়দার আফ্রিক, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান, শহিদুল্লাহ কায়সার, গণস্বাস্থ্য সংস্থার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।



 

Show all comments
  • Jashim Uddin ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৩ এএম says : 0
    সাংঘাতিক কর্মসুচী সরকার ভয় পেয়েছে। পালানোর পথ খুঁজতেছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • Selim Reja Raj ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৪ এএম says : 0
    দোয়াকরে মানুষ কে আর হাসাবেন না
    Total Reply(0) Reply
  • Md Motalib ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৪ এএম says : 0
    কার সাথে সংলাপ করবেন, কার কাছে মামলা করবেন, আপনারা জানেনা, আদালত চলে একজনের হুকুমে, মামলা করলে সরকারের জন্য ভালই হবে, আদালত রায় দেবে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। তাই সরকার বৈধ।
    Total Reply(0) Reply
  • Mejbahul Islam ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ৯:১১ এএম says : 0
    আমি ইনকিলাব এর সংবাদ পছন্দ করি
    Total Reply(0) Reply
  • AS Choton ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৪ এএম says : 0
    জাতিকে একটা একটা মোবাইল দেওয়া হোক সংলাপের জন্য!
    Total Reply(0) Reply
  • Mahbubul Alam ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৪ এএম says : 0
    প্রধানমন্ত্রীর বাসায় গিয়ে পোলাও কোর্মা আর কেক খেতে মন চাইতেছে না কি।
    Total Reply(0) Reply
  • Ziaul Hoq ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৫ এএম says : 0
    কর্মসূচিতো নয় বরং অকর্মার সূচি,এগুলা বাংলাদেশে রাজনীতি করবে! সব কটাকে উগান্ডায় রাজনীতি করার জন্য পাঠানো দরকার!!
    Total Reply(0) Reply
  • শেখ মোঃ সুমন ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৫ এএম says : 0
    কোন লাভ নাই কাকুরা নাকে তেল দিয়া ঘুমান পাচ বছর পরে খবর নিয়েন।
    Total Reply(0) Reply
  • Kh Rasel ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৫ এএম says : 0
    সংলাপ ই করে যান সারা জীবন!
    Total Reply(0) Reply
  • মহি উদ্দিন নাদির ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৫ এএম says : 0
    কার সাথে সংলাপ করবেন !!!! আর তামশা বাদ...
    Total Reply(0) Reply
  • Ponir Matubber ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৬ এএম says : 0
    বি এন পি তথা জাতিয় ঐক্যফ্রন্ট ৩০০ আসনের নির্বাচনী অনিয়ম তদান্ত করতে করতে সময় যাবে ৫ বছর । তার মানে অবৈধ সরকার আবার গায়ের জোরো ৫ বছর ক্ষমতায় থাকছে আর তোমরা তদান্ত করতে থাক ।
    Total Reply(0) Reply
  • dibatu Sadia Marwa ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৬ এএম says : 0
    হুদুম পেচাঁ বসে আছে আর সম্ভব নয় কেউ পার পাবেনা সকল মানুষের জান নিবের সময় এখন
    Total Reply(0) Reply
  • Maynul Hasan ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৬ এএম says : 0
    এই সব করে লাভ হবে না
    Total Reply(0) Reply
  • Z Jubel Ahmed ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 1
    কিসের সংলাপ, কিসের মামলা কাফনের কাপর গায়ে দিয়ে রাজপথে আসতে হবে
    Total Reply(0) Reply
  • Jasim Uddin ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 0
    দেশের মানুষ যদি সব কিছু সাধারন ভাবে গ্রহন করে নেয় তবে বিএনপির ঠেকা পড়ছে কি রাস্তায় নেমে মৃত্যু বরণ করা, করা বরণ করা। এরচেয়ে ভাল যেভাবে চলছে সেভাবেই চলুক। যেদিন সাধারন মানুষের দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাবে সেদিনই তারাই সিদ্ধান্ত নেবে কি কর্মসূচি দেয়া দরকার। সেটাই হবে আসল কর্মসূচি। আপাতত পিএনপির উচিত সময়ের গায়ে হেলান দিয়ে বেঁচে থাকা।
    Total Reply(0) Reply
  • আব্দুল্লাহ আল মমিন ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৭ এএম says : 0
    সংলাপ সংলাপ না খেলে কমেডি কমেডি খেলেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Raju Hossain ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৮ এএম says : 0
    কার সাথে সংলাপ? এই খেলা আর কত?
    Total Reply(0) Reply
  • Fokhrul Islam Khan ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৮ এএম says : 0
    সময়পোযোগী কর্মসূচী আশাকরি সরকার পরিবর্তন হবে,,,,,
    Total Reply(0) Reply
  • Nozrul Islam ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৮ এএম says : 0
    জানিনা এ সব পুরোনো গান আর কত দিন শুনবো।সংলাপ কার সাথে করবেন।কিসের সংলাফ করবেন।
    Total Reply(0) Reply
  • Shafiq Ahmed ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৯ এএম says : 0
    জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের ঐক্য ধরে রাখতে এসব কর্মসূচী প্রয়োজন । একই সাথে চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্তুতি হিসাবে ওয়ার্ড/ইউনিয়ন/উপজেলা/জেলায় সকল দল ও অংগসংগঠনসমুহের পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে শক্তিশালি কমিটি গঠন/পূনর্গঠন জরুরী । আগামী অক্টোবর পর্যন্ত তত্বাবধায়ক সরকারের দাবীতে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সমর্থন আদায়ে সাধারণ কর্মসূচী অব্যাহত রাখতে হবে । ইতিমধ্যে সরকারের মোটিভ বুঝা যাবে এবং সেপ্টেম্বর থেকে কঠোর আন্দোলন শুরু করার পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি গ্রহন করা উচিৎ ।
    Total Reply(0) Reply
  • Ikbal Hasan ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৯ এএম says : 0
    সংলাপ করেন । আন্দোলন করতে হলে আগে নেতা ও কর্মি একসাথে মাঠে নামতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Tareq ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:০৯ এএম says : 0
    ডঃকামাল গংদের বাদ দিয়ে বিএনপির উচিত নিজের পথে হাঁটা,এরকম একটা মহাভোট ডাকাতির নির্বাচন হলো অথচ একটা হরতালের ডাক এলোনা।এসব সুশীলদের সাথে জোট করে বিএনপি আরও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে,কামাল গংর তলে তলে আওয়ামী এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতেছে।বিএনপি যত সুশীল আচরণ করবে সরকার তত অত্যাচার,দমন,পিড়নের এর মাত্রা বাড়িয়ে দিবে।তাই আগের পথেই বিএনপিকে চলা উচিত!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Sahadat Hossen ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:১০ এএম says : 0
    এই পর্যন্ত কোনটি কাজে লাগছে??? কোন কর্মসূচি বাস্তবায়ন হইছে?? রাজনীতী না পারলে চেড়ে দেন,, প্লিজ সাধারন মানুষকে টেনশনে রাখবেন না,,
    Total Reply(0) Reply
  • XYZ ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৩৩ এএম says : 0
    BNP ,IT IS TIME FOR SLEEP AND NAP,
    Total Reply(0) Reply
  • Nahid hasan ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:৩০ পিএম says : 0
    এসব কর্মসুচি ঘোষনা ইদুর গর্তে থাকার শামিল এসব কর্মসুচি ঘোষনা না করে পাচঁ বছরের জন্য নাকে তেল দিয়ে ঘুমান তাতে শরীরের পক্ষে অনেক উপকার হবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ঐক্যফ্রন্ট


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ