Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫, ১৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

প্রশ্ন : আমার স্ত্রী রাগান্বিত হলে তার হিতাহিত জ্ঞান থাকে না। গালমন্দ করে। স্বামীকেও ছাড়ে না। এমনকি স্বামীর পিতা মাতাকে ও অন্যান্য মুরব্বীদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। এমনকি .. বাচ্চা, .. বাচ্চা এসবও বলে। শরীয়তের দৃষ্টিতে এবিষয়টি নিয়ে আলোচনা করলে ভালো হয়।

আল আমিন
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:১৬ এএম

 উত্তর : মুসলমানকে গালি দেওয়া ফাসেকি কাজ। বড় গুনাহ। রাগের সময় হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলা একট মারাত্মক আত্মিক রোগ। অতিরিক্ত রাগও শরীয়তে নিন্দনীয়। রাগের সময় বলা হয়েছে দাঁড়িয়ে থাকলে বসে পড়। হাত-মুখ ধুয়ে অজু করে শান্ত হও। যদি রাগের কারণ ঘটে তবুও অকথ্য ভাষা প্রয়োগ করা যাবে না। এসব ভাষা অভ্যাস থেকে আসে। পারিবারিক শিক্ষার অভাবেও আসে। এমন আচরণ পরিবর্তন করতে হবে। সংযম ও ধৈর্য শিখতে হবে। আল্লাহ পবিত্র কোরআনে বলেছেন, ‘আল্লাহ সদাচরণকারীদের ভালোবাসেন। যারা রাগকে সংবরণ করে, ক্রোধ গিলে ফেলে, মানুষের ভুল ক্ষমা করে দেয়, উপরন্তু তাদের প্রতি অনুগ্রহ করে।’ আল কোরআন। এমন হতে হবে। বিশেষ করে সম্মানিত ও বড়দের তো গালি দেওয়ার প্রশ্নই উঠে না। স্বামীকে স্ত্রী গালি দিতে পারে না। বুঝিয়ে বলতে পারে। স্বামীর পিতা-মাতা ও মুরব্বীদের গালি দেওয়া কল্পনাও করা যায় না। স্ত্রীকে এসব বুঝেই চলতে হবে। তবে যদি স্বামীর এমন কোনো দোষ থাকে, যে জন্য স্ত্রী পাগলের মতো হয়ে গালাগালি করে, তাহলে এর অন্য প্রতিকার আছে। অকথ্য ভাষায় গালাগালি নয়। আর মুরব্বীদের তো গালি দেওয়ার কোনো যুক্তি বা কারণই থাকতে পারে না। এখানে কি সমস্যা, তা বুঝতে হলে কেস স্টাডি করতে হবে। বড় আলেম বা মুফতিরা এর সমাধান দিতে চেষ্টা করবেন। তবে, গালি দেওয়ার কোনো বৈধতা বা সুযোগ নেই।

সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতাওয়া বিশ্বকোষ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • Y Khan ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৮ এএম says : 0
    I think,your wife is a mental patient. Please take her to mental doctor. Thanks
    Total Reply(0) Reply
  • আমিন মুন্সি ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫০ এএম says : 0
    শায়েখকে জাঝাকাল্লাহ। কী সুন্দর সমাধান
    Total Reply(0) Reply
  • Zulfiqar Ahmed ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫১ এএম says : 0
    স্ত্রী একটা মাথায় চেপে বসলে বুঝতে হবে স্বামীর ব্যক্তিত্বের মধ্যে সমস্যা আছে, তার দুর্বলতায় স্ত্রীর মধ্যে এই রোগ তৈরি হয়েছে।
    Total Reply(0) Reply
  • তানভীর আহমাদ ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫২ এএম says : 0
    অসাধারণ উত্তর। পরামর্শটি আমার কাছে ভালো লাগলো।
    Total Reply(0) Reply
  • Harun Ur Rashid ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৩ এএম says : 0
    বিয়ের সময় শরিয়তের নিয়মকানুন মেনে করলে এই ধরনের সমস্যায় পড়তে হত না।
    Total Reply(0) Reply
  • আলা উদ্দিন ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৫৪ এএম says : 0
    শায়েখ নদভী ও ইনকিলাবকে জরুরি সব প্রশ্নের উত্তর প্রকাশ করায় কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।
    Total Reply(0) Reply
  • khan Md. Harun-OR-Rashid ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:১৮ এএম says : 1
    তার সাথে সবসময় সকলে ভাল ব্যবহার করবে। তার স্বামী তাকে যেন সর্বদা সালাম দিয়ে কথা শুরু করেন। সেক্ষেত্রে তার পরিবর্তন আসতে পারে। সে যাকে মান্য করে তাকে দিয়ে পরামর্শ দেয়ালে কাজে আসতে পারে। তাকে নামাজের প্রতি তাগিদ দিলেও পরিবর্তন আসবে ইনশ্ আল্লাহ।
    Total Reply(0) Reply
  • মীর আহাম্মেদ আলী পলিট ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৩৫ এএম says : 0
    এখানে সমাধান বা প্রতিকারের কথা লিখা হয় নাই। কি করা উচিত বা উচিত না সেই ব্যপারে বলা হয়েছে। আমার মনে হয় ব্যপারটা পারিবারিক ভাবে সমাধান করা উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • jack ali ৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:২০ পিএম says : 0
    Please Respected Mufti--Only Allah has the sole Authority to Give Fatwa-Even Allah Mentioned in the Qur'an that Your Prophet [SAW] never give any Fatwa I.E.....Sura 53 Ayat:3-4: "Prophet [SAW] never speaks on his own until Allah [SWT] reveal to him" Also another Ayat no:69: Verse 44-46 "Allah [SAW] said He would grab his hand and cut off his artery" So please Quote the Quranic verses and Haadith and Haadith numbers so people will read the Qur'an and Hadith----This will encourage and help them to learn Islam----Majority of Muslim don't know meaning of Muslim means/Meaning of Islam/They don't know that if they don't deny the Taghut they will be regarded as muslim----Hence All the name sake Muslim rulers ruling the by Taghuti Law
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ