Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬, ১৯ শাবান ১৪৪০ হিজরী।

মেয়ের জবানবন্দিতে ফেঁসে গেল বাবা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

রাজধানীর গেন্ডারিয়ায় আয়েশা আক্তার (২) নামে এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার পরে ভবন থেকে ফেলে হত্যার ঘটনায় ফেঁসে গেছে এক পাষন্ড বাবা। গত মঙ্গলবার আদালতে দেওয়া নিজের মেয়ের জবানবন্দীতে ফাঁস হয়ে গেছে নাহিদ (৪৫) নামের ওই ব্যক্তির কুকর্ম। গতকাল ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ওয়ারী জোনের ডিসি মো. ফরিদ উদ্দিন। এর আগে গত শনিবার বিকেলে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার সাধনা ঔষধালয়ের পাশে দীননাথ সেন রোড এলাকা থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশু আয়েশাকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা নাহিদকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।
ফরিদ উদ্দিন বলেন, ঘটনার পর নিহত শিশুর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে আসামি নাহিদকে গ্রেফতার করতে গেলে সে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নিজ বাসার তৃতীয় তলার জানালা দিয়ে লাফিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এতে তার দুই পা ভেঙে যায়। নাহিদ বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে ঘটনার পর আসামি নাহিদের মেয়ে ঘটনার কথা জানালে হত্যা রহস্য উন্মোচিত হয়।
পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, গত মঙ্গলবার বাবার কুকর্মের কথা তুলে ধরে আদালতে জবানবন্দি দেয় মেয়ে বুশরা। সে আদালতকে জানায়, ঘটনার দিন শনিবার সন্ধ্যার দিকে বাসার বারান্দায় বসে ছিল সে। এ সময় তার বাবার শোয়ার কক্ষ থেকে শিশুর কান্নার আওয়াজ শুনতে পায় সে। এরপর বাবার ঘরে গিয়ে আয়েশাকে কাঁদতে দেখেন। শিশুটি তখন তার বাবার কোলে ছিল। এই সময় নাহিদ বুশরাকে ধমক দিয়ে বলে-তুই এখানে এসেছিস কেন? তখন বুশরা অন্য রুমে চলে যায়। এরপর তার বাবা শিশুটিকে তিন তলার খোলা জানালা দিয়ে নিচে ফেলে দেয়।
ডিসি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নাহিদ জানায় যে, আয়েশাকে খিচুড়ি খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে বাসায় ডেকে আনে। পরে শিশুটি চিৎকার করা এবং তার মেয়ে ঘটনা দেখে ফেলায় শিশুটিকে ফেলে দেয় সে। তিনি বলেন, নাহিদ গুরুতর অসুস্থ থাকায় তাকে বেশি কিছু জিজ্ঞাসা করা যায়নি।



 

Show all comments
  • এম আল আমিন হোসেন প্রধান ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ৭:১০ এএম says : 0
    মেয়ে টিকে ধন্যবাদ |এ ধরনের অপরাধের জন্য প্রকাশ্যে ফাসিঁ ও সব টিভি তে লাইভ দেখানোর আইন পাস করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি |
    Total Reply(0) Reply
  • Enamul Hafiz Latifee ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
    প্রচন্ডরকমের কষ্ট অনুভূত হচ্ছে, এ ধরণের মানুষগুলোর চিন্তা-ভাবনা-আচার-আচরণ সত্যিই কি কোন নিকৃষ্ট পশুর চেয়ে কম? কেনো আমরা এতো ট্রায়ালে যাচ্ছি? কেনো মেডিকেল রিপোর্ট আর ডিএনএ টেস্টের উপর ভিত্তি করে ধর্ষকের ফাঁসি দিচ্ছি না?
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    জনসমক্ষে ফাসি দেয়া হোক।
    Total Reply(0) Reply
  • Umaiza ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    My 4 and 1 years daughters faces are coming to my mind. what a disgusting incident!
    Total Reply(0) Reply
  • Alauddin ahmed ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    নিউজটা পড়ে চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি।এরা কি মানুষ?শিশু ধর্ষনে ক্লিয়ার মৃত্যুদন্ড এবং ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে এ মামলার নিষ্পত্তি করতে হবে। রাজনৈতিক প্রয়োজনে এদেশে তো কত আইনই হয় সরকার কি শিশুদের সুরক্ষায় মানবিক দিক বিবেচনা করে এবিষয়ে একটু নজর দিতে পারেনা?এদেশে ধর্ষন কবে বন্ধ হবে?
    Total Reply(0) Reply
  • Maruf ahmed ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    Do not wait for the justice, find him and do ..........?
    Total Reply(0) Reply
  • Tamim Hasan ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    I lost my words to curse this hound. Really I could not find any word to pray to Allah for justice.
    Total Reply(0) Reply
  • mohammad rahman ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    একটা সমাজ কতটুকু সভ্য তা নির্ণিত হয় ১) ঐ সমাজে শিশুরা কত নিরাপদে থাকে ২) ঐ সমাজে মহিলারা কতটুকু নিরাপদে বসবাস করে !
    Total Reply(0) Reply
  • Sohel S.parvez ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    দুই বছরের শিশু কে ধর্ষণের অভিযোগ???!!!আমি আসলেও বুঝতে পারছি না সত্যি ঘটনাটা ঘটেছে কি না?দেশের সব লোক কি ধর্ষক হয়ে যাচ্ছে নাকি?কি অদ্ভুত।মানুষ এরকম পিশাচ হয়ে যাচ্ছে কি ভাবে?
    Total Reply(0) Reply
  • sakura fubuki ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    Please give him straight dead penalty
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    That is not a human being, he is worse than animal. Do not wait for the justice, find him and do ..........?
    Total Reply(0) Reply
  • Shahriar Rahman Mamun ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    মানবতার মৃত্যু !!!
    Total Reply(0) Reply
  • mahmood ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৮ এএম says : 0
    can't control crying after reading this news.
    Total Reply(0) Reply
  • Shameer Ahmed ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৮ এএম says : 0
    Deserve Capital Punishment ( Death ) ,, NO MERCY
    Total Reply(0) Reply
  • Soyeb Islam ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৮ এএম says : 0
    জানোয়ার৷ এদের ক্রশফায়ার হয় না?
    Total Reply(0) Reply
  • Iqbal Hasan ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৮ এএম says : 0
    If the allegations against Nahid are proven to be true that "animal" should be beaten to death in public. Just hanging him won't be punishment enough.
    Total Reply(0) Reply
  • Fatema Akter Rubina ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৯ এএম says : 0
    ফাসি দাবী
    Total Reply(0) Reply
  • Raihan kabir ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫৪ এএম says : 0
    ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই,
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

২৪ এপ্রিল, ২০১৯
২১ এপ্রিল, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ