Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

জবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষ, আহত ১০

জবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০১৯, ৫:৫৯ পিএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে বিকৃত ছবি পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীদের দুই গ্রুপের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত ক্যম্পাসে দফায় দফায় এ সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ছাত্রলীগের অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়। তবে ছাত্রলীগ নেতাদের দাবি বাসে বসাকে কেন্দ্র করে জুনিয়রদের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে।
জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর সাথে জবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের একত্রিত ছবি এডিট করে কয়েকজন কর্মী তাদের পছন্দের নেতার একক ছবি ফেইসবুকে পোস্ট দেয়। এতে ফেইসবুকেই পাল্টা পাল্টি কথা কাটাকাটি হয়। পরে বৃহস্পতিবার ধানমন্ডি ৩২ এ বঙ্গবন্ধুর প্রকৃতিতে ফুল দেয়া শেষ করে ক্যাম্পাসে আসার পরই এক গ্রুপের কর্মীরা অন্য গ্রুপের কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী শাহরিয়ার শাকিল গুরুতর আহত হয়। শাকিল আহতের ঘটনা ছড়িয়ে পরলে দ্রুতই ক্যাম্পাসে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং পাল্টাপাল্টি ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। উভয় পক্ষের সংঘর্ষে সভাপতি গ্রুপের মার্কেটিং বিভাগের সোহান (১১তম ব্যাচ), গণিত বিভাগের নাহিদ (১৩তম ব্যাচ), একাউন্টিং বিভাগের নাফিজ (১৩তম ব্যাচ), আইইআর বিভাগের শাহরিয়ার শাকিল ( ১৩তম ব্যাচ) ও জিহাদ (১৩তম ব্যাচ) গুরুতর আহত হয় এবং সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের পারভেজ ( ১১তম ব্যাচ), থিয়েটার বিভাগের সাজ্জাদ ইহসান (১২তম ব্যাচ), নিয়াজ (১২তম ব্যাচ), নূরে আলম (১২তম ব্যাচ), জেনেটিক্স বিভাগের মেজবাউল আজম ( ১৩তম ব্যাচ) গুরুতর আহত হয়। এছাড়া সংঘর্ষের মাঝে পড়ে লোক প্রশাসন বিভাগের ১৩তম ব্যাচের সাধারণ শিক্ষার্থী ভৌমিক আহত হয়।
সংঘর্ষের কারণে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের হস্তক্ষেপে দুপুর দুইটার দিকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম বলেন, মিরপুরগামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বসাকে কেন্দ্র করে জুনিয়র কর্মীদের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। আমরা উভয় পক্ষ বসে সেটার মিমাংসা করেছি এবং উভয়ের মাঝে আর কোনো দন্দ্ব নেই।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর নূর মোহাম্মদ বলেন, উভয় পক্ষের মাঝে ভুল বুঝাবুঝির কারণে একটু সংঘর্ষ হয়েছে। আবার উভয় পক্ষ ভুল বুঝতে পেরে মিমাংসা হয়ে গেছে। এখন ক্যাম্পাস পুরোপুরি শান্ত।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সংঘর্ষ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ