Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৩ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

মুসলিম হত্যা-নির্যাতনের প্রতিবাদে সিভিল সার্ভিস থেকে ইস্তফা

‘ভারতে মুসলিমরা দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক’

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

কাশ্মীর থেকে সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় প্রথম শীর্ষস্থান দখল করা শাহ ফয়সল ‘কাশ্মীরিদের হত্যা’ ও ‘হিন্দুত্ববাদীদের হাতে মুসলিমদের কোণঠাসা হওয়ার’ প্রতিবাদে বুধবার সিভিল সার্ভিস থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। খবর গ্রেটার কাশ্মীর ও আনন্দবাজার পত্রিকা।
কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলার লোলাব উপত্যকার সোগাম এলাকার বাসিন্দা শাহ ফয়সল আমেরিকার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে ২ জানুয়ারি দেশে ফেরেন। পোস্টিংয়ের অপেক্ষায় ছিলেন এই তরুণ আইএএস। আমেরিকায় থাকাকালীনই সামাজিক মাধ্যমে তার একাধিক পোস্ট দেয়ায় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার জম্মু-কাশ্মীর সরকারকে চাপ দেয়। দেশে ধর্ষণের একাধিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি টুইটারে লেখেন, ‘জনসংখ্যা, পিতৃতন্ত্র, অশিক্ষা, মদ, পর্নোগ্রাফি, প্রযুক্তি ও অরাজকতার ফলে দেশ রেপিস্তান হয়ে গেছে।’ এরপরে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রান্ত সংবিধানের ৩৫এ ধারাকে ভারত ও ওই রাজ্যের মধ্যে ‘বিয়ের দলিল’-এর সঙ্গে তুলনা করেন তিনি।
বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় এক পোস্টে ফয়সল লেখেন, ‘কাশ্মীরিদের হত্যা থামাতে সদিচ্ছা দেখাচ্ছে না কেন্দ্রীয় সরকার। রাজ্যের বিশেষ মর্যাদার উপরেও আঘাত হানার চেষ্টা হচ্ছে। হিন্দুত্ববাদীদের চাপে দেশের ২০ কোটি মুসলিম কার্যত দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিকে পরিণত হয়েছেন। এর প্রতিবাদে সিভিল সার্ভিস থেকে ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’
নরেন্দ্র মোদী সরকারের কড়া সমালোচনা করেন ফয়সল। তার কথায়, ‘রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, সিবিআই, এনআইএ-র মতো প্রতিষ্ঠানে হস্তক্ষেপ এ দেশের সাংবিধানিক কাঠামোকে নষ্ট করে দিতে পারে। আমি ফের জানাতে চাই, দেশের শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষকে বেশি দিন চুপ করিয়ে রাখা যাবে না।’
শাহ ফয়সল ২০১০ সালে মর্যাদাজনক ইন্ডিয়ান অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস (আইএএস) পরীক্ষায় কাশ্মীর থেকে প্রথম শীর্ষস্থান দখল করে বিস্ময়ের সৃষ্টি করেন। তারপর থেকে তিনি বান্দিপোরার ডেপুটি কমিশনার, পরিচালক, কাশ্মীর স্কুল শিক্ষাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। ২০১৮ সালে তাকে পর্যটন দফতরের সচিব করা হলে তিনি যোগ দিতে অস্বীকৃতি জানান এবং স্টাডি লিভ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে যান।
সংবাদমাধ্যমে দাবি করে, ফয়সল ন্যাশনাল কনফারেন্সে যোগ দিয়েছেন। তাকে রাজনীতিতে স্বাগত জানিয়েছেন ন্যাশনাল কনফারেন্স প্রধান ওমর আবদুল্লাহ। ওমর একটি পোস্টে লেখেন, ‘আমি ফয়সলকে রাজনীতিতে স্বাগত জানিয়েছি। তার রাজনৈতিক পরিকল্পনার কথা তিনিই জানাবেন।’
ফয়সল জানান, আজ শুক্রবার সংবাদ সম্মেলন করে ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথা জানাবেন তিনি। এদিকে হুররিয়্যাত নেতা মিরওয়াইজ উমর ফারুক টুইটারে লেখেন, ‘কাশ্মীরিদের হত্যার প্রতিবাদে ফয়সলের ইস্তফা দেওয়াকে স্বাগত জানাই। আশা করি, হত্যার প্রতিবাদ জানাতে ফয়সল উপযুক্ত রাজনৈতিক মঞ্চই বেছে নেবেন।’ ন্যাশনাল কনফারেন্স সূত্রের খবর, লোকসভা ভোটে বারামুলা-কুপওয়ারা কেন্দ্র থেকে ফয়সলকে প্রার্থী করতে পারে ওমরের দল। আগামী এপ্রিল-মেতে লোকসভা নির্বাচন হওয়ার কথা।



 

Show all comments
  • Shahinur islam ১২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:৩০ এএম says : 0
    Paysal sahosi nitiban tegi moslim odikar protistar. moslim hotta bonder rajnoytik jodda.balo legece tar manobadikar prosesta.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ