Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫, ১৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ওয়াশিংটন গেলেন মিলার

কূটনৈতিক সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ঢাকায় দায়িত্ব নেয়ার ১ মাস ১০ দিনের মাথায় ওয়াশিংটনে গেলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। বুধবার দিবাগত রাতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে গেছেন। কূটনৈতিক সূত্রগুলো রাষ্ট্রদূতের ওয়াশিংটন যাত্রার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কী কারণে চটজলদি তার যেতে হলো তা এখনো অস্পষ্ট। একটি সূত্র দাবি করেছে, স্টেট ডিপার্টমেন্টে জরুরি আলোচনা বা কনসালটেশনের জন্য রাষ্ট্রদূতকে জরুরি তলব করা হয়।
সূত্র জানায়, ওয়াশিংটনে আমেরিকান রাষ্ট্রদূতদের বার্ষিক সম্মেলন এবং বাংলাদেশের সঙ্গে ‘রাজনৈতিক আলোচনা’র কর্মসূচিও রয়েছে। পরারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একাধিক সূত্র জানায়, সব মিলেই রাষ্ট্রদূত মিলার জরুরিভিত্তিতে ওয়াশিংটন যাচ্ছেন বলে সরকারকে আগেই জানানো হয়েছে।
এদিকে, রাজনৈতিক আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক। আগামী ২২ জানুয়ারি মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের রাজনীতি বিভাগের আন্ডার সেক্রেটারি ডেভিড হ্যালের সঙ্গে সচিবের বৈঠকের সূচি নির্ধারিত হয়েছে। ওয়াশিংটনে সেই বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
সেখানে মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলারও উপস্থিত থাকবেন। বৈঠকে ৩০ ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন, রোহিঙ্গা সংকট, অর্থনৈতিক ও প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতা এবং ইন্দো-প্যাসিফিক স্ট্র্যাটেজি নিয়ে আলোচনা হবে বলে আভাস দিয়েছেন ঢাকার কর্মকর্তারা। তারা জানান, ওই বৈঠক এবং রাষ্ট্রদূতের ওয়াশিংটন যাত্রাকে সামনে রেখে গত ২ জানুয়ারি আর্ল রবার্ট মিলার পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক করেন। সেখানে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয় এবং ওয়াশিংটনের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন আর্ল মিলার। নির্বাচন প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্রের সীমাবদ্ধতা থাকলেও তারা বাংলাদেশ তথা সরকার ও বিরোধী দলের সঙ্গে কাজ করে যাবে বলে আগেই স্পষ্ট করেছে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটদানে বিরত রাখাসহ নির্বাচনে যেসব অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে তাতে উদ্বেগ প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্রের তরফে বলা হয় এমনটি নির্বাচনী প্রক্রিয়ার ওপর মানুষের আস্থা কমিয়ে দিয়েছে। অনিয়মের বিষয়ে সব পক্ষকে নিয়ে গঠনমূলকভাবে সমাধান করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি জোরালো আহ্বানও জানায় ওয়াশিংটন।



 

Show all comments
  • Md Alim ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
    এদেশের সবগুলা ধর্মনিরপেক্ষ নেতা-নেত্রী গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে ভয় করে। তাই একবার ক্ষমতা পেলে আর ছাড়তে রাজী হয় না । এদেরকে জোর করে সেনা ও পুলিশ বাহিনী দিয়ে নামাতে হয়, আর না হয় সেনা ও পুলিশ বাহিনী কে ব্যবহার করে ক্ষমতায় থাকতে হয়, আবার সুযোগ পেলেতো সেনাবাহিনীর লীডাররা নিজেরাই জোরপূর্বক ক্ষমতার মসনদে বসে যায়। যা ১৯৭১ থেকে ২০১৯ সালের বাস্তব চিত্র। (প্রমানিত)
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Rafique ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩০ এএম says : 0
    Bangladesh a 11th election a ja hoiasay sai sob (Hather pather gondo) nea USA government a janabe.
    Total Reply(0) Reply
  • Ahmed Montu ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    It's definite that US never support opponent parties as they are only keep busy with their benefits. Definitely this government will fulfill their needs to get US political supports.
    Total Reply(0) Reply
  • Sheikh Asaduz Jaman Masum ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    plz do same think for Bangladesh
    Total Reply(0) Reply
  • Delwar Hosen ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩১ এএম says : 0
    ১/২ দিনের মধ্যে নতুন নাটকের প্রথম পর্ব দেখতে পাবেন!!মিলারকে হত্যার হুমকির অডিও ফাস! তার প্রাথমিক নিরাপত্তার জন্য ভিসা বাতিল করা হইয়াছে!নিরাপত্তা নিশ্চিত এর পর তাকে আবার আনা হবে!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Mofidul Islam ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩২ এএম says : 0
    ফেরার পথে আবার বাংলাদেশের ভিসা পেলে হয়।
    Total Reply(0) Reply
  • মাহদী হাসান মুর্তযা ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩২ এএম says : 0
    বিএনপি অপেক্ষায় থাকুক।তাদের জন্য এক বস্তা ক্ষমতা নিয়ে আসবে
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abul Hossen ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩২ এএম says : 0
    ভয়ংকর গেমপ্লে চলছে এখানে!
    Total Reply(0) Reply
  • Abdullah Ismail ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৩ এএম says : 0
    মিলারকে পূজা কর সবাই । মিলার আপনাদেরকে ক্ষমতায় বসাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Hasan Tushar ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৩ এএম says : 0
    ফলাফল জিরো । আসতে অভিন্দদন বারতা নিয়ে আসবেন
    Total Reply(0) Reply
  • আমিরুল ইসলাম শিকদার ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৩ এএম says : 0
    লাফালাফি কোন কারন নাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Imran Ahmed ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
    যে দেশে শ্রমিকরা ন্যার্য দাবির আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের গুলিতে শ্রমিকের মৃত্যু হয় সেদেশে গনতন্ত্র বলে কিছু আছে বলে আমি মনে করি না
    Total Reply(0) Reply
  • Shohel Rana ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
    মিলার মিলারের দেশে গেছে, এখানে বড় করে নিউজ করে কি লাভ???
    Total Reply(0) Reply
  • Abdul Latif ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৪ এএম says : 0
    বাংলাদেশের উপর অবরোধ আসতে পারে,,এমনটি মনে হচেছ
    Total Reply(0) Reply
  • Elias Khan ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    Very Good Sir Aponi Amader Deshar Kotta O Deshar Manuser Kotta O Nirbachon Niay Kotta Bolbyen Sir Amora Moha Bipodey Achiy Sir Yes Nice To Mityou Thenks Sar well Com
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Alam ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    We want properly election in Bangladesh
    Total Reply(0) Reply
  • Mir Irfan Hossain ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:১১ এএম says : 0
    ট্রাম্পকে ঘুষের টাকা দিতে গেছে। মোদী যা আগে পেয়েছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Sad Ibney Moaz ১১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:১১ এএম says : 0
    In south Asian reason , US policy is to protect Indian interest. Because with Indian assistance they want to counter Chinese interest. Where as what is happening in Bangladesh this isn't matter for them. Because they seem it's Indian eye. So, some one who thinks that they do something for us , is wrong.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ