Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০৬ মাঘ ১৪২৫, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

দাউদকান্দি থেকে আরও একজন গ্রেফতার

সুবর্ণচরে গণধর্ষণ

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

জেলার সুবর্ণচরের চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্য বাগ্যা গ্রামে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত জামাল ওরফে হেঞ্জু মাঝি (২৯) নামে আরো একজনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। তাকে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় এ পর্যন্ত মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভোরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল কুমিল্লার দাউদকান্দির গৌরীপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। হেঞ্জু মাঝি মধ্য বাগ্যা গ্রামের মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে।
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আবুল খায়ের বলেন, হেঞ্জু মাজি ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামী নয়। যদিও পুলিশের অনুসন্ধ্যান এবং ভুক্তভোগী ও গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে জড়িত হিসেবে হেঞ্জু মাঝির নাম উঠে আসে। কিন্তু ঘটনার পর সে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাকে গ্রেফতার করা যায়নি। ওসি বলেন, পালিয়ে যাওয়ার পর হেঞ্জু মাঝি ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাত্রীবাহী বাসে চালকের সহকারি হিসেবে কাজে শুরু করে। পরে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে শুক্রবার ভোরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।
উল্লেখ্য, গত ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে স্থানীয় একটি ভোট কেন্দ্রে ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সন্ত্রাসী সেহেল, স্বপনসহ অনেকের সাথে তার বাক-বিতন্ডা হয়। এ ঘটনায় ওইদিন রাত ১২টার দিকে ঘরের দরজা ভেঙে স্বামী-সন্তানকে রশি দিয়ে বেধে ওই নারীকে শারীরিক নির্যাতন ও গণধর্ষণ করে তারা। ওই গৃহবধূ জানায়, রোববার রাত ১২টার দিকে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য ও সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মো. রুহুল আমিনের নেতৃত্বে স্থানীয় সন্ত্রাসী সোহেল, চৌধুরী, সোহেল, বেচু, হেঞ্জু, সোহগসহ ১০ জন তাদের ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় তার স্বামীকে মারধর ও ছেলেমেয়েদের বেঁধে রেখে তাকে উঠানে নিয়ে যায়। পরে তারা কাপড় দিয়ে তার মুখ বেঁধে সবাই পালাক্রমে তার ওপরে নির্যাতন চালায়। পরদিন সোমবার দুপুরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। ওইদিন রাতেই ভিকটিমের স্বামী সিরাজ উদ্দিন বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ সংক্রান্ত আরও খবর
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ