Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ১৭ জুন ২০১৯, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

আবারও গণভবনে সংলাপে বসবেন প্রধানমন্ত্রী : ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:১৯ পিএম

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে যেসব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ হয়েছিল তাদের আবারও প্রধানমন্ত্রী আমন্ত্রণ জানাবেন।

রবিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা এবং তার আশেপাশের জেলা, উপজেলা, পৌরসভা পর্যায়ের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌরসভা মেয়রদের সঙ্গে যৌথ সভায় তিনি একথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগ সভাপতি জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের সকল রাজনৈতিক দলকে সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ঐক্যফ্রন্ট-যুক্তফ্রন্ট সহ ৭৫টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে গণভবনে সংলাপ হয়েছিল। এখন নির্বাচন শেষ হয়েছে, আমাদের নেত্রী গতকাল আমাদের সঙ্গে ওয়ার্কিং কমিটিরও উপদেষ্টা পরিষদের যৌথ বৈঠকে বলেছেন যে যাদের সঙ্গে সংলাপ হয়েছে তাদেরকে আমন্ত্রণ করবেন, আহবান করবেন, নিমন্ত্রণ করবেন। তাদের সঙ্গে কিছু মতবিনিময় করবেন এবং তাদের আপ্যায়নের ব্যবস্থা থাকবে। এ ব্যাপারে আমরাও সবাই একমত, যারা সংলাপ এসেছিলেন তাদেরকে আবারও নেত্রী সংলাপে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন। একসঙ্গে সবাইকে দাওয়াত দেওয়া হবে। সেটা খুব শিগগিরই জানিয়ে দেওয়া হবে। সকল রাজনৈতিক দল গণভবনে আমন্ত্রিত। ঐক্যফ্রন্ট আছে, যুক্তফ্রন্ট আছে, ১৪ দল আছে, জাতীয় পার্টি আছে, অন্যান্য যেসব দল আছে সবাইকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। যাদের সঙ্গে সংলাপ করেছিলেন তাদেরকে চিঠি দিয়ে আমন্ত্রণ জানানো হবে।

উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি আসলে চ্যালেঞ্জ কতটুকু জানতে চাইলে কাদের বলেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক দল হিসেবে যেকোনো নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখি, গ্রহণ করি। কারণ আমরা সত্যিকার অর্থে অর্থবহ একটি একটি নির্বাচন করতে চাই, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আমরা করতে চাই। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে, প্রতিপক্ষকে আমরা কখনো দুর্বল মনে মনে করি না দুর্বল মনে মনে করি না। সেটা মনে করেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করি। সেদিক থেকে বিএনপি বা তাদের তাদের ফ্রন্ট নির্বাচনে বা তাদের ফ্রন্ট নির্বাচনে যদি আসে সেক্ষেত্রে তাদেরকে স্বাগত জানাই। প্রতিপক্ষ যদি সফল হয় তাহলে নির্বাচন একটি মজা থাকে। প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচনেরও আলাদা একটি মজা আছে। প্রতিদ্বন্দ্বিতা মূলক নির্বাচন হবে আমরা সেই রকমই রকমই নির্বাচন হবে আমরা সেই রকমই রকমই আশা করি। তারা উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে এ রকমই আশা করব করব আশা করব করব রকমই আশা করব করব আশা করব

যৌথ সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, উপ দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।



 

Show all comments
  • করিম ১৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:৩৯ পিএম says : 0
    ফালতু নিরবাচনে বি ত্রন পি না যাওযা ভালো শেখ হাসিনা আজীবন ক্ষমতায থাক আওযামীলীগ ভালো নিরবার্চন দিবে না সব সময জনগন কে কলা দেখা , কলা খাবাবে না
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ