Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

‘ওয়ার্ল্ড সামার গেমসে’ অংশ নিতে আবুধাবি যাচ্ছে পাবনার ১৫জন প্রতিবন্ধী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:০৮ পিএম

দেশের প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়, মানব সম্পদ । তাদের অনেকের নানা কৃতিত্বের কথা আমার জানি। পা দিয়ে লিখে সাফল্য’র সাথে অনেকেই বিভিন্ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। তাঁরা ক্রীড়া ক্ষেত্রেও নৈপুণ্য দেখিয়ে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ক্রীড়া নৈপুণ্য দেখানোর পরে এবারও স্পেশাল অলিম্পিকস-এর ‘ওয়ার্ল্ড সামার গেমসে’ র আসরে দেশের ১১০ জন প্রতিযোগীর মধ্যে পাবনার ১৫ জন প্রতিবন্ধী অংশ নিতে দুবাইয়ের রাজধানী আবুধাবিতে যাচ্ছেন মার্চ মাসে। তাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সংবর্ধনা দেওয়া ব্যবস্থা নেওয়া হয় পাবনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার পক্ষ থেকে পাবনা শহীদ আমিন উদ্দিন স্টেডিয়াম মিলনায়তনে । প্রধান অতিথি হিসেবে সংবর্ধনা প্রদান করেন পাবনা-৫ সদর আসনের এম.পি গোলাম ফারুক প্রিন্স। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পাবনা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন, জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার অন্যান্য কর্মকর্তাগণ। সংবর্ধনা নেওয়ার সময় প্রতিযোগীরা ইশারায় বোঝান, দেশের জন্য খেলতে পেরে তারা নিজেদের গর্বিত মনে করছেন। উপযুক্ত প্রশিক্ষণ আর সরকারি সহযোগিতা পেলে তারা সুস্থ স্বাভাবিক মানুষদের চেয়েও ভালো কিছু করতে পারবে বলে বিশ্বাস তাদের।


আবুধাবিতে ওয়ার্ল্ড সামার গেমসের আসরে যাচ্ছেন, কনক, সাদিয়া, ফাবিয়া, রোহান, রাজিব, আকাশ, স্বপ্না, চাঁদনী, অনিতা, তামান্না, তানাম, খুশী, যুথী, রাব্বী, বৃষ্টি। সামাজিকভাবে বেড়ে ওঠা অন্য শিশুদের মত স্বাভাবিক জীবন নয় তাদের। তবুও অসাধ্যকে সাধ্য করে এগিয়ে চলেছে সামনের দিকে। এর আগেও তারা এর প্রমাণ দিয়েছে। এরা প্রায় সমবয়সী কিশোর-কিশোরী
এদের মধ্যে কয়েকজন বিদেশের মাটিতে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে গৌরব অর্জন করেছে জয় করেছে পদক। গত কয়েকবছর ধরে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করছে এই প্রতিবন্ধীরা। স্বর্ণসহ অন্যান্য পদক জয় করেছে এই প্রতিবন্ধীরা। প্রমাণ করেছে তারা সমাজে অপাংক্তেও এবং তুচ্ছ নয়। তাদেরও মেধা বিকাশের শক্তি রয়েছে।

তাদের অভিভাবকরা জানান, প্রথম দিকে আমরা মানসিকভাবে খুব কষ্টে ছিলাম। কষ্ট পেতাম যখন স্বাভাবিক শিশু-কিশোররা খেলা করতো এবং কথা বলতো। তবে আজ আর সেই ভাবে কষ্ট অনুভব করি না। কারণ সরকার প্রতিবন্ধীদের নিয়ে অনেক কাজ করছেন। তাদের দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে নানা প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে । এবারের স্পেশাল অলিম্পিকস গেমস-এর স্পেশাল অলিম্পিকস এর পরিচালক ও পাবনা সাব চ্যাপ্টারের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল হোসেন বাদশার জানান, পাবনাতে প্রথমে একজন প্রতিবন্ধীকে নিয়ে শুরু হয় খেলার প্রশিক্ষণ দেওয়া । সংখ্যা এখন অনেক বেড়েছে। পাবনা জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন বলেন, প্রতিবারের মত এবারও বাংলাদেশ থেকে প্রায় শতাধিক প্রতিবন্ধী কিশোর স্পেশাল অলিস্পিকস্ এ অংশগ্রহণ করবে। এদের মধ্যে পাবনার ১৫ জন রয়েছে। এর আগেও পাবনার অনেক শিশু জাতীয় এবং দেশের বাইরে স্বর্ণ পদক অর্জন করেছে। এবারও পাবনার অংশগ্রহণকারীরা ভাল করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার তাদের স্বাভাবিক জীবন -যাপনের জন্য সব সুযোগ সুবিধা দিচ্ছেন। প্রতিবন্ধীরা রাষ্ট্র বা সমাজের জন্য বোঝা নয় , মানব সম্পদ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন