Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৬ ফাল্গুন ১৪২৫, ১২ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হলেন সালমান এফ রহমান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বিশিষ্ট শিল্প উদ্যোক্তা সালমান এফ রহমান।
প্রধানমন্ত্রী রুলস অব বিজনেস, ১৯৯৬-এর রুল ৩বি (১)-এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গতকাল মঙ্গলবার সালমান এফ রহমানকে এ নিয়োগ দিয়েছেন। এ নিয়োগ অবৈতনিক এবং পদটিতে থাকাকালে সালমান এফ রহমান মন্ত্রীর পদমর্যাদা ভোগ করবেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তথ্য জানানো হয়েছে। নিয়োগ পাওয়ার পর দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে সর্বাত্মক চেষ্টার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নতনু এই উপদেষ্টা।
সালমান এফ রহমান বাংলাদেশের একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিল্প উদ্যোক্তা। এর আগেও তিনি আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার বেসরকারিখাত বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১ (দোহার-নবাবগঞ্জ) আসন থেকে তিনি বিপুল ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়েছেন।
সালমান এফ রহমান দেশের সবচেয়ে বড় বেসরকারী প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো গ্রুপের মালিক। প্রতিষ্ঠানটি দেশের শিল্পখাতের প্রায় সব শাখায় বিনিয়োগ করেছে যার মধ্যে বস্ত্র, সামুদ্রিক খাবার, আবাসন, হোটেল, নির্মাণ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, মিডিয়া, সিরামিকস, ঔষধ অন্যতম।
এই দূরদর্শী ব্যবসায়ী তাঁর বিনিয়োগ মানসিকতা, অধ্যাবসায় ও বিচক্ষণতা দিয়ে শুধু বেক্সিমকো গ্রুপকেই নয়, সামগ্রিকভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।
বাংলাদেশের ব্যাবসা খাতের সম্ভাবনা যেসব ব্যবসায়ী সত্তর দশকে উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন, সালমান এফ রহমান তাদের মধ্যে অন্যতম। ব্যবসার সাথে সাথে দেশের ভাবমূর্তি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে তুলে ধরার গুরুত্বও তিনি উপলব্ধি করেছিলেন সেই সময়।

১৯৬৬ সালে সালমান ফজলুর রহমান এবং তার ভাই সোহেল ফজলুর রহমান পারিবারিক জুট মিল পরিচালনার মাধ্যমে ব্যবসায় নামেন। ১৯৭১ সালে জুট মিলটি সরকার জাতীয়করণ করলে তাঁরা ১৯৭২ সালে বাংলাদেশ এক্সপোর্ট এন্ড ইমপোর্ট কোম্পানি (যা পরে বেক্সিমকো গ্রুপ হিসেবে পরিচিত হয়) প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁরা সেই সময় ইউরোপে সামুদ্রিক খাবার ও চূর্ণ হাড় রপ্তানি করেন এবং সেই অর্জিত বৈদেশিক মুদ্রা দ্বারা ঔষধ আমদানি করেন।
১৯৭৬ সালে তাঁরা বেক্সিমকো ফার্মা প্রতিষ্ঠিত করেন- যা বর্তমানে বাংলাদেশের ঔষধ খাতের সবচেয়ে নামকরা কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। ১৯৮২ সালে দুই ভাই আরব বাংলাদেশ ব্যাংকের (এবি ব্যাংক) প্রতিষ্ঠা করার জন্য দুবাইভিত্তিক গালাদারি ব্রাদার্স গ্রুপের সাথে চুক্তি করেন। তবে তাঁরা ১৯৮৫ সালে ব্যাংকটির শেয়ার অন্য অংশীদারদের কাছে বিক্রি করে দেন এবং আইএফআইসি ব্যাংকের ৩০% শেয়ার কিনে নেন। ২০১০ সালে সালমান এফ রহমান ব্যাংকটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
সালমান এফ রহমান একসময় এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তিনি আইএফআইসি ব্যাংক ও আবাহনী লিমিটেডের চেয়ারম্যানও। সাথে সাথে তিনি ইংরেজী দৈনিক পত্রিকা দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট এবং ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনেরও মালিক।

২০১৬ সালের নভেম্বরে সালমান এফ রহমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার বেসরকারি উন্নয়নখাতের উপদেষ্টা হিসাবে পুনঃনিয়োগপ্রাপ্ত হন। আওয়ামী লীগ বেসরকারী খাতের উন্নয়নে সালমান এফ রহমানের প্রজ্ঞা ও মেধা কাজে লাগাতে চায়। সে সময় অর্থনীতি বিশেষজ্ঞরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। কারণ, সালমান এফ রহমান একজন সুপরিচিত প্রভাবশালী ব্যবসায়ী যিনি বেক্সিমকো গ্রুপকে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় কর্পোরেট কোম্পানিতে প্রতিষ্ঠায় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।
সালমান এফ রহমান অনেক জনহিতকর কর্মকান্ডে জড়িত। তিনি সামাজিক দায়বদ্ধতা পূরণে বাংলাদেশের মানুষের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সেই লক্ষ্যে তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও দাতব্য সংস্থার সাথে নিজেকে যুক্ত রেখেছেন। এক বছর আগে যখন মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সহিংসতার কারনে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে, তখন সালমান এফ রহমান রোহিঙ্গাদের জন্য উদ্বেগ জানিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। ত্রাণ হিসেবে খাদ্য ও প্রায় ৪ হাজার পরিবারের মধ্যে কাপড় বিতরণ করেন। এর পাশাপাশি উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার লক্ষ্যে একটি মেডিকেল ক্যাম্পও স্থাপন করা হয় তার মালিকানাধীন বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের পক্ষ থেকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সালমান এফ রহমান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ