Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২০ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

লিটন-ওয়ার্নার ঝড়ের কবলে রংপুর

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম | আপডেট : ১২:১৯ এএম, ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯

বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সকে হারিয়ে বিপিএলে নিজেদের দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে সিলেট সিক্সার্স। গতকাল সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মাশরাফি বিন মুর্তজার দলকে ২৭ রানে হারায় ডেভিড ওয়ার্নারের দলটি। লিটন দাস ও ওয়ার্নারের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভর করে ৫ উইকেটে সিলেটের করা ১৮৭ রানের জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে ১৬০ রানে থেমে যায় রংপুরের ইনিংস।
বিশাল লক্ষ্যে শুরুটা যেমন হওয়ার দরকার তেমনটা হয়নি রংপুরের। দলীয় ১১ রানে দাঁড়িয়েই তারা হারিয়ে বসে ৩ উইকেট। দলীয় দ্বিতীয় ও নিজের প্রথম ওভারে মেহেদী মারুফ ও অ্যালেক্স হেলসকে ক্যাচে পরিণত করেন মেহেদি হাসান রানা। সেই একই রানে দাঁড়িয়ে এরপর সোহেল তানভিরের বলে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে রংপুরের দুশ্চিন্তা বাড়ান ক্রিস গেইল। তবে পরবর্তি দুই ব্যাটসম্যান রাইলি রুশো ও মোহাম্মাদ মিথুনের ব্যাটিং দেখে মনে হয়নি তাতে তারা চিন্তিত। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে তারা গড়েন ৮৯ রানের জুটি। শুরুর এই ধাক্কা কাটিয়ে উঠেও রংপুর ম্যাচ হার মানে রান তোলায় বলের সঙ্গে পাল্লা দিতে না পেরে। ১৭ রানের ব্যবধানে আউট হন মিথুন ও রুশো। ৩২ বলে ৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৫৮ রান করেন রুশো, মিথুন করেন ২৯ বলে ৫ চারে ৩৫। দুইবার জীবন পেয়ে মাশরাফি করেন ২৭ বলে অপাজিত ৩৩ রান।
এর আগে সিলেটে ঝড়ো শুরু করেন লিটন। ঝড়ের বেগ বাড়ে ওয়ার্নার নামার পর। ক্যারিয়ার সেরা ৪৩ বলে ৯ চার ও ১ ছক্কায় ৭০ রানের ইনিংস আসে লিটনের ব্যাট থেকে। ওয়ার্নার খেলেছেন ৩৬ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংস। সঙ্গে যোগ হয় নিকোলাস পুরানের ১৬ বলে ২৬ রানের ক্যামিও। তাতেই ৫ উইকেটে ১৮৭ রানের বড় সংগ্রহ পায় সিক্সার্স।
ব্যাটিং লাইনে এদিন পরিবর্তন আনে সিলেট। লিটনের সঙ্গে ওপেনে নামেন সাব্বির রহমান। ওয়ার্নার নেমে যান তিনে। তাতে কাজ হয়েছে বেশ। পাওয়ার প্লে-তে সাব্বির-লিটন তুলে নেন ৬১ রান। অপর প্রান্ত থেকে লিটনের খেলা দেখেছেন সাব্বির। নবম ওভারে ভাঙে তাদের ৭৩ রানের জুটি। ২০ বলে ২০ রান করা সাব্বিরকে লেগ বিফোর করে আরো বিপদ বাড়ায় রংপুর। ওয়ার্নার আসায় দুই প্রান্ত থেকেই শুরু হয় আক্রোমণ। দুর্ভাগ্যজনক রান আউটের শিকারে কাটা পড়েন লিটন। তবে শেষ পর্যন্ত তাÐব চালিয়ে যান ওয়ার্নার। বঁ-হাতি হয়েও ডানহাতি ব্যাটিংয়ের গার্ড নিয়ে গেইলকে একটি ছক্কা ও দুটি চার হাঁকান অজি তারকা। মাফ পাননি এখন পর্যন্ত আসরের সফলতম বোলার মাশরাফি বিন মুর্তজাও। এদিন ৩ ওভারে গুনেছেন ৪৩ রান, বিপিএলে তার সবচেয়ে খরুচে বোলিং। ৩১ রানে ৩ উইকেট নিয়ে রংপুরের সেরা বোলার শফিউল ইসলাম।
রংপুরের এটি টানা তৃতীয় হার। সব মিলে ৬ ম্যাচে চতুর্থ পরাজয়ে তালিকার তাদের অবস্থান পাঁচে। অন্যদিকে ৫ ম্যাচে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়ে তলানী থেকে উঠে এসেছে সিলেট। দিনের আগের ম্যাচে রাজশাহীর কাছে আসরের প্রথম হারের স্বাদ পাওয়া ঢাকা ডায়নামাইটস ৫ ম্যাচে ৪ জয়ের তালিকার শীর্ষে।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
সিলেট সিক্সার্স: ২০ ওভারে ১৮৭/৫ (লিটন ৭০, সাব্বির ২০, ওয়ার্নার ৬১*, পুরান ২৬, আফিফ ৬, জাকের ০, অলক ০*; মাশরাফি ৩-০-৪৩-০, শফিউল ৪-০-৩১-৩, সোহাগ ৪-০-৩৮-০, হাওয়েল ৩-০-২২-১, ফরহাদ ২-০-৯-০, গেইল ৩-০-৩৫-০, নাহিদুল ১-০-৭-০)।
রংপুর রাইডার্স : ২০ ওভারে (গেইল ৭, মারুফ ৩, হেলস ০, রুশো ৫৮, মিথুন ৩৫, মাশরাফি ৩৩*, হাওয়েল ১৩, নাহিদুল ৫*; তানভির ১/২২, রানা ২/৪০, তাসকিন ২/৩৪, আফিফ ০/২২, লামিচেন ১/১৮, কাপালি ০/২৩)।
ফল : সিলেট সিক্সার্স ২৭ রানে জয়ী।
ম্যাচসেরা : লিটন দাস



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রংপুর


আরও
আরও পড়ুন