Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৭ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৩ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

কল রেকর্ডিং ফাঁস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

বৃটিশ পার্লামেন্ট ব্রেক্সিট চুক্তি প্রত্যাখান হওয়ার দুই ঘন্টা পরে মঙ্গলবার রাতে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক ‘কনফারেন্স কলে’ কথা বলছিলেন বৃটিশ অর্থমন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ড। সেখানে ব্রেক্সিট নিয়ে কিছু স্পর্শকাতর মন্তব্য করেন তিনি। প্রায় এক ঘন্টা ব্যাপী তার এই কলের রেকর্ডিং বুধবার রাতে ফাঁস হয়ে গেলে ব্রিবতকর অবস্থায় পড়ে যান অর্থমন্ত্রী। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ।
প্রতিবেদনে বলা হয়, কনফারেন্স কলে দ্রুতই চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের ঝুঁকি দূর হবে বলে ব্যবসায়ীদেরকে আশ্বস্ত করেন অর্থমন্ত্রী। একই সঙ্গে সরকারি নীতির ব্যতিক্রম ঘটিয়ে ইইউ’র সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে লিসবন চুক্তির আর্টিকেল-৫০ বাতিল করা হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
বেক্সিট নিয়ে আতঙ্কের কথা তুলে ধরে ব্যবসায়ী নেতারা দ্বিতীয় ব্রেক্সিট গণভোটের দাবি তোলেন। এর প্রেক্ষিতে হ্যামন্ড তাদের আশ্বস্ত করে বলেন, পার্লামেন্টের সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যরা চুক্তিবিহীন বিচ্ছেদের বিরুদ্ধে। এসময় তিনি চুক্তিবিহীন বিচ্ছেদের বিরোধীতা করে বলেন, এটা বৃটিশ অর্থনীতি ও ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য ক্ষতিকর। সাবেক মন্ত্রী নিক বোলসের প্রস্তাবের মাধ্যমে কিভাবে চুক্তিবিহীন বিচ্ছেদ ঠেকিয়ে দেয়া যায়, আলাপচারিতায় সে বিষয়টিও উঠে আসে।
কনফারেন্স কলে অংশগ্রহণকারী বাকীরা হলেন- সিমেন্স, অ্যামাজন, স্কটিশ পাওয়ার, টেস্কো ও বিপির প্রধান। তারা চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের বিষয়ে অর্থমন্ত্রীর কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। জবাবে অর্থমন্ত্রী ইঙ্গিত দেন, প্রয়োজনে সরকার কাস্টমস ইউনিয়নের সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারে



 

Show all comments
  • Ghalib Ansari ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১১ এএম says : 0
    আগের রাতেই ব্যালট বাক্স ভরে রাখতে পারলে এভাবে হারতে হত না টেরেসা মেকে। গরিব দেশের কাছ থেকেও তাদের অনেক কিছু শেখার আছে।
    Total Reply(1) Reply
    • Rahman ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ৫:০১ পিএম says : 0
      Haaaa Haaaa Thik Bolsen Ansari Bhai. Ei Shob Bepare Aamra Britain Theke 50 Bosor Forward Aasi.
  • mohammed ahad ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
    If Brexit doesn’t happen we will see more and more Shipon Itali become Shipon England ! No banglali in Italy left!
    Total Reply(0) Reply
  • Masud Parvez ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
    বুঝলাম না জেরেমি করবিন এখনও গ্রেপ্তার হয়নি কেনো, মে বোকা নাকি!
    Total Reply(0) Reply
  • Mr.RupoM. ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১২ এএম says : 0
    বৃটেনের ক্ষমতাসীনদের অগনতান্ত্রিক আচরনের ধারাবাহিকতায় প্রয়া ২ বৎসরের অধিক হতে চলল ব্রেক্সিটের পক্ষে জনগনের ভোটের রায়কে নানাহ তালবাহানা করে তামাশায় পরিনত করেছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Abdul Hai ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৩ এএম says : 0
    thankfully British parliament once again shows that they are a super democratic parliament, which is the people, for the people and by the people
    Total Reply(0) Reply
  • রিদওয়ান বিবেক ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৩ এএম says : 0
    Brexit is pitting the government against parliament,and parliament against the people.
    Total Reply(0) Reply
  • Piyal ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৩ এএম says : 0
    আগে এই চুক্তিটি ভাল করে বিচার বিশ্লেষনের পূর্বেই ভোটাররা অনুমোদন করেছিল। এতে প্রচারনার গাফিলতি/ভুল ছিল পূর্বের প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের। ব্রেক্সিট বাতিল হবে এবং থেরেসা মে কেও বিদায় নিতে হবে শেষ পর্যন্ত।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammad Rasel ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
    ইইউ বা ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্য কেন বের হতে চাচ্ছে? ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকলে যুক্তরাজ্যের কি ক্ষতি হতো? ইইউ এর কারনে যুক্তরাজ্যের মানুষের কি সমস্যা হচ্ছে? বা কোনো ক্ষতি কি হচ্ছে? নাকি যুক্তরাজ্যের ইইউতে থাকলে ইইউর কোনো সমস্যা হবে?যেখানে তুরস্ক ইইউতে থাকার জন্য বিভিন্ন ধরনের শর্ত পালন করে আসছে, সেখানে যুক্তরাজ্য কেন বেরিয়ে যাচ্ছে?
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
    Most of the common people in the United Kingdom are against the brexit because, it will create a kind of financial havoc in their daily life as everything gonna be so expensive which is really a struggle for the British citizens.
    Total Reply(0) Reply
  • Sengupta ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:১৪ এএম says : 0
    ব্রেক্সিটের চেয়ে বাংলাদেশের চিন্তা করার মতো যথেষ্ট জিনিস আছে। এটা ব্রিটেনের সমস্যা তাই তাদের মোকাবেলা করা উচিত। অনেক দেশকে অত্যাচার করার কর্মফল থেকে কেউ বাঁচতে পারে না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন