Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১১ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

শহীদ জিয়ার আজ ৮৩তম জন্মবার্ষিকী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা, সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী আজ। ১৯৩৬ সালের এই দিনে তিনি বগুড়ার গাবতলীর বাগবাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন। জিয়াউর রহমানের পিতার নাম মনসুর রহমান। তিনি পেশায় ছিলেন একজন রসায়নবিদ। বগুড়া ও কলকাতায় শৈশব ও কৈশোর অতিবাহিত করার পর জিয়াউর রহমান পিতার সাথে তাঁর কর্মস্থল করাচিতে চলে যান। শিক্ষাজীবন শেষে ১৯৫৫ সালে তিনি পাকিস্তান মিলিটারি একাডেমীতে অফিসার হিসেবে কমিশন লাভ করেন। বর্ণাঢ্য কর্মজীবনের অধিকারী শহীদ জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের গণমানুষের কাছে বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা ও বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে স্বীকৃত হয়েছেন। একজন সৈনিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করলেও তাঁর জীবনের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে দেশের সকল সঙ্কটে তিনি ত্রাণকর্তা হিসেবে বার বার অবতীর্ণ হয়েছেন। দেশকে সংকট থেকে মুক্ত করেছেন। অস্ত্র হাতে নিয়ে নিজে যুদ্ধ করেছেন। যুদ্ধ শেষে আবার পেশাদার সৈনিক জীবনে ফিরে গেছেন। জিয়াউর রহমান সময়ের প্রয়োজনেই তিন দশক আগে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। তাঁর গড়া সে রাজনৈতিক দল তার সহধর্মিণী সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আজ দেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল হিসেবে স্বীকৃত। আর বেগম খালেদা জিয়া দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতৃত্বে পরিণত হয়েছেন। জিয়াউর রহমানের জনপ্রিয়তায় খালেদা জিয়ার তিন তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।
অসাধারণ দেশপ্রেমিক, অসম সাহসীকতা, সততা-নিষ্ঠা ও সহজ-সরল ব্যক্তিত্বের প্রতীক জিয়াউর রহমানের অবদান দেশের জন্য অসামান্য। ১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধে খেমকারান সেক্টরে অসীম সাহসিকতার সাথে তিনি যুদ্ধ করেন। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের একটি সেক্টরের কমান্ডার হিসেবে যুদ্ধ পরিচালনা করেন। বাংলাদেশ ও বাংলাদেশীদের বিশ্ব মানচিত্রে তিনি ব্যাপকভাবে পরিচিত করিয়েছেন স্বাতন্ত্র বৈশিষ্ট্যে। জাতির মর্যাদাকেও বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত করেছেন তাঁর শাসনামলে।
জিয়াউর রহমানের সৈনিক ও রাজনৈতিক জীবনের সততা, নিষ্ঠা ও নিরলস পরিশ্রম প্রতিটি মানুষ শ্রদ্ধাভরে এখনো স্মরণ করে। একজন খাঁটি দেশপ্রেমিক হিসেবেও তাঁর পরিচিতি সর্বজনবিদিত। সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে শহীদ জিয়ার রাজনৈতিক দর্শন ও দিক-নির্দেশনা। তাঁর প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দল বিএনপি দেশের স্বাধীনতা পরবর্তীকালে সর্বাধিক সময় রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত ছিল।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে নিহত হওয়ার পর তাঁরই (শেখ মুজিব) সহকর্মী খন্দকার মোশতাক আহমদ ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন। পরবর্তী সময়ে নানা রাজনৈতিক পট-পরিবর্তন ও ঘটনাপ্রবাহের পরিপ্রেক্ষিতে সিপাহী-জনতার ঐক্যবদ্ধ অভ্যুত্থান ঘটে। দেশের সেই চরম ক্রান্তিকালে সিপাহী-জনতার মিলিত প্রয়াসে জিয়াউর রহমান নেতৃত্বের হাল ধরেন। রাষ্ট্রক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে তিনি দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতা, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেন। দেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করতে আমৃত্যু চেষ্টা চালিয়েছেন। জাতির মধ্যে একটি নতুন উদ্দীপনার সৃষ্টি করে তাদেরকে জাগিয়ে তুলতে তিনি সফল হয়েছিলেন। তাঁর স্বল্পকালীন শাসনকার্য পরিচালনায় তিনি যে গভীর দেশপ্রেম, সততা, কর্তব্যনিষ্ঠা ও দূরদর্শিতার পরিচয় দিয়েছিলেন তা আজও কেউ অতিক্রম করতে পারেনি। শুধু দেশে নয়, ইরাক-ইরান যুদ্ধসহ মধ্যপ্রাচ্য ও বিশ্বের নানা সঙ্কটে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এমনকি তার রাজনৈতিক বিরোধীরাও মৃত্যুর পর তাঁর সততা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারেনি। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এ কারণেই এ দেশের সর্বস্তরের জনগণের অন্তরে স্থায়ী আসন করে নিয়েছেন।
কর্মসূচি : শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ২দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি। এর মধ্যে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকাসহ দেশের প্রতিটি বিএনপি কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। গতকাল (শুক্রবার) বেলা আড়াইটায় সুপ্রিম কোর্ট বার অডিটোরিয়ামে বিএনপি’র উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আজ ১৯ জানুয়ারি সকাল ১০টায় শেরেবাংলা নগরস্থ শহীদ জিয়ার মাজারে দলের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও নেতাকর্মীরা ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পার্ঘ অর্পণ করবেন। দিবসটি উপলক্ষে ইতোমধ্যেই পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হয়েছে। অনুরুপভাবে সারাদেশে জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা, পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিটে যথাযোগ্য মর্যাদায় জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী পালন করা হবে।



 

Show all comments
  • Nur Alam Bhuiyan Emon ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪০ এএম says : 0
    তুমি জন্মেছিলে বলেই গর্ব করি - আমরা বাংলাদশী < ৮৩ তম জন্মদিনে বিনম্র শ্রদ্ধা ক্ষনজম্মা হে মহানায়ক
    Total Reply(0) Reply
  • Md Robel ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪০ এএম says : 0
    তুমি এসেছিলে বলেই এই স্বাধীনতা এই বাংলাদেশ..
    Total Reply(0) Reply
  • Emdad Hossain ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪০ এএম says : 0
    শুভ জন্মদিনে মহান নেতার মাগফেরাত কামনা করছি৷
    Total Reply(0) Reply
  • Mir Irfan Hossain ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 0
    যারা ওনাকে অপমান করে মুক্তিযুদ্ধের খেতাব কেড়ে নিয়েছে, তারা ২৯ ডিসেম্বর কালরাতে তোমার ভোট ও কেড়ে নিয়েছে, আমরা দেখেছি পৈশাচিক বিজয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Live Projapti ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 0
    স্বাধীনতার ঘোষক তুমি, মুক্তিযুদ্ধের প্রাণ,, তুমায় দেখে চূর্ণ হউক সব ভন্ড নেতার মান,,
    Total Reply(0) Reply
  • Nazrul Islam ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪১ এএম says : 0
    হে নেতা তোমার জন্মদিন, হাজার সালাম
    Total Reply(0) Reply
  • FaHad Niloy ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    উনার অবদান যারা মানেনা তাদের কাছে আমার কথা আওয়ামী লীগের নেতারা তো তখন জেলে ছিলেন না উনি তো এইরকম চুরি কইরা সরকারে আসেনাই
    Total Reply(0) Reply
  • পারভেজ হোসেন ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    শুভ জন্মদিনে মহান নেতার মাগফেরাত কামনা করছি৷ অাল্লাহ তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন, অামীন৷
    Total Reply(0) Reply
  • Ali Akbar ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 0
    আজ শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীনতার ঘোষক , বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রবক্তা , বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদের প্রান পুরুষ, সার্কের প্রতিষ্ঠাতা , বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিএনপি'র প্রতিষ্ঠাতা ও আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮৩তম জন্মবার্ষিকী । শহীদ জিয়াউর রহমান একটি ইতিহাস , একটি নাম , একটি স্পন্দন বাংলাদেশের নামক দেশ জন্মের মহানায়ক তিনি । যে শহীদ জিয়ার জন্ম নাহলে স্বাধীনতার লাল সূর্য উড্ডয়নের কত না সময় অতিবাহিত হত , কত না রক্তের গঙ্গা বহমান হত । তার বীরত্ব গাঁথা ভূমিকা স্বর্ণ অক্ষরে লিখা থাকবে লাল সবুজের পতাকায় । আজ তিনি আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তার আর্দশ ও তার দেশ গঠনের উপর দাঁড়িয়ে আছে এই দেশ আমার বাংলাদেশ । তার প্রতি বিন্রম শ্রদ্ধান্জলী মহান রাব্বুল আলামিন এই মহান নেতাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করবেন ।
    Total Reply(0) Reply
  • Mir Nurul ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    শুভ জন্মদিন মহান নেতা। তোমার রেখে যাওয়া গণতন্ত্র আজ আমাদের নেই তবে আবার আসবে ফিরে এদেশে তোমার জন্য তোমার কর্মের জন্য। শুভ জন্মদিন ক্ষণজন্মা
    Total Reply(0) Reply
  • Md Kajol Hawladar ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    ১৯শে জানুয়ারি ২০১৯,বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক মহান স্বাধীনতার ঘোষক বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর (৮৩) তম জন্মবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা।
    Total Reply(0) Reply
  • Nilima Nila ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    আজ ১৯ জানুয়ারী মহান স্বাধীনতার ঘোষক বীর উত্তম শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮৩ তম শুভ জন্মদিন । ১৯৩৬ সালের এই দিনে বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার বাগবাড়ী গ্ৰামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এই মহান নেতা। আজকের এই দিনে তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি,হে আল্লাহ তুমি তাকে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন - আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • Naym Hasan ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 0
    বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ জিয়া.....আল্লাহ আপনাকে জান্নাত বাসি করুন.....
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ