Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে আসেনি: দায়িত্বশীলদের সভায় ইসলামী আন্দোলন মহাসচিব

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ৪:০০ পিএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় বসার সাথে সাথেই সর্ব প্রথম চালের মূল্যবৃদ্ধির মধ্য দিয়ে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি শুরু হয়েছে। কথিত আছে ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই চাল ও লবনের মূল্যবৃদ্ধি পায়’ এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। তিনি বলেন, লবণের মূল্য বৃদ্ধি না হলেও, খাদ্যমন্ত্রী ব্যবসায়ীদের নিয়ে বৈঠক করার পর চালের মূল্য সামান্য কমলেও বাজার নিয়ন্ত্রণে আসেনি। সীমান্তে পিয়াজের কেজি ৪/৫ টাকায় বিক্রি হলেও ঢাকায় ক্রেতাদের কাছে তা বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকায়। ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের কারসাজি এবং মধ্যসত্ত্বভোগীদের অতি মুনাফালোভের কারণেই বাজারের এই উর্ধ্বগতি। এরফলে কৃষকরা তাদের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না, অপরদিকে ক্রেতারাও ন্যায্যমূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য কিনতে পারছেন না। বাজারের এরূপ মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতা অতিদ্রুত নিয়ন্ত্রণে না আনলে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী ও মধ্যসত্ত্বভোগীরা মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতাকে আগামী রমজান পর্যন্ত টেনে নিয়ে জনগণের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে নিয়ে যাবে। আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় বারে ক্ষমতায় থাকার সময় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে বাণিজ্যমন্ত্রীর ব্যর্থতা ও খাদ্যমন্ত্রীর পচা গম আমদানির কেলেঙ্কারীর কথা জনগণ এখনো ভুলেনি।

আজ বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে দায়িত্বশীলদের এক সভায় মহাসচিব এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা দিয়েছেন। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারসাজিও দুর্নীতির আওতায় আসে। এক্ষেত্রেও প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স ঘোষণা কার্যকর হতে হবে। আর এটাই জনগণের দাবি। জিরো টলারেন্সের ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রী দৃঢ় থাকলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলে জনগণ মনে করেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, শ্রমিকনেতা হারুনুর রশিদ প্রমুখ।



 

Show all comments
  • jack ali ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ৫:০০ পিএম says : 0
    Oh Muslim Scholar---This is your duty to rule our country by the Law of Allah--But unfortunately you moaning just one thing regarding increase the price of essential commodities-------We will suffer ---We will suffer ---until Allah's Law is Establish---Certainly Allah will held responsible All The Scholar in our Golden Bangladesh--
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ