Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।
শিরোনাম

কেরানীগঞ্জে অপহরনের ২ দিন পর অপহৃত ব্যাক্তি উদ্ধার ২ অপহরনকারী আটক

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৯, ৭:৪৩ পিএম

ঢাকার কেরানীগঞ্জে অপহরনের দুইদিন পর অপহৃত ব্যাক্তি উদ্ধার ও এই ঘটনার সাথে জড়িত দুই অপহরনকারীকে আটক করেছে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া ব্যাক্তির নাম হচ্ছে আব্দুল মোতালেব(৭০) এবং আটককৃত দুই অপহরনকারী হচ্ছে বিজয় চন্দ্র মাঝি(২৫), তুহিন তালুকদার(২৬)। আজ শনিবার দুপুরে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের খেজুরবাগ মাষ্টারবাড়ি গলির হালিম ঢালীর বাড়ি থেকে অপহৃত ওই ব্যাক্তি ও দুই অপহরনকারীকে আট করা হয়েছে। অপহৃত ব্যাক্তির সাড়ে চার হাজার টাকা নিয়ে নান্টু নামে অপর অপহরনকারী পালিয়ে গেছে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এসআই মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান,গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অপহৃত ব্যাক্তি আব্দুল মোতালেব তার পাওনা টাকার জন্য এক ব্যাক্তির কাছে কদমতলী গোলচত্বর এলাকায় আসেন। পাওনা টাকা আদায় করে পশ্চিম বরিশুড়ে বাসায় যাওয়ার জন্য সে একটি সিএনজি অটোরিকশায় উঠে। এসময় ওই সিএনজি অটোরিকশায় দুই অজ্ঞাত যুবক তার দুইপাশে বসে এবং একজন সামনে বসে। কিছু বুঝিয়ে উঠার আগেই তার দুইপাশে অস্ত্র ঠেকিয়ে অপহরনকারীরা নাকে-মুখে রুমাল চেপে ধরলে সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। তাকে এবস্থায় অপহরন করে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের খেজুরবাগ মাষ্টারবাড়ি গলির হালিম ঢালীর বাড়িতে নিয়ে তাকে আটকিয়ে রাখে। পরে আব্দুল মোতালেবের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অপহরনকারীরা তার নিকট আত্বীয় স্বজনদের কাছে ফোন করে আরো একলক্ষ বিশ হাজার টাকা মুক্তিপন দাবী করে তাদের বিকাশ নম্বরে পাঠাতে বলে। অপহৃত ব্যাক্তি মোতালেবের স্ত্রী হাওয়া নুর বেগমের অভিযোগের সুত্রধরে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে দুপুরে খেজুরবাগ মাষ্টারবাড়ির গলি হালিম ঢালীর বাড়ির একটি কক্ষ থেকে আব্দুল মোতালেবকে উদ্ধার করা হয়। এসময় বিজয় চন্দ্র মাঝি ও তুহিন তালুকদারকে হাতেনাতে আটক করা হয়। আটককৃত বিজয় চন্দ্র মাঝির বাবার নাম জয়দেব চন্দ্রী মাঝি এবং তুহিন তালুকদারের বাবার নাম মনির হোসেন তালুকদার। তাদের উভযের গ্রামের বাড়ি বলিশালের হিজলা থানার বাহেরচর গ্রামে। আব্দুল মোতালের গ্রামের বাড়ি ভোলা জেলার সদর থানার দক্ষিন চরপাতা গ্রামে। সে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পশ্চিম বরিশুর এলাকায় জৈনক জাকারিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকে। এব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্ম যুবায়ের হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথেই আমরা অপহৃত ব্যাক্তিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছি এবং দুই অপহরনকারীকে আটক করা হয়েছে। বাকীদেরও আটকের চেষ্টা চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কেরানীগঞ্জ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ