Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, ২২ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

সংরক্ষিত আসনে হিজড়ার সুযোগ পাচ্ছে না

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য এবার তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) আটজন মনোনয়ন সংগ্রহ করলেও এবার প্রার্থী হতে পারছেন না। সংবিধানে তৃতীয় লিঙ্গের কাউকে নারী সাংসদ করার সুযোগ না থাকায় এটি এবার হচ্ছে না।
জানা গেছে, নতুন মন্ত্রিসভার মতো সংরক্ষিত মহিলা আসনেও থাকছে চমক। প্রধান্য পাবে তারুণ্য। আসবে নতুন মুখ। গত নির্বাচনসহ নানা সময়ে সরকারপক্ষে সরব অনেক তারকাও সাথে তাল মিলিয়েছে হিজড়ারা। গত তিন দিন ধরে সংরক্ষিত মহিলা আসনের জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি গত শুক্রবার শেষ হয়েছে। এরই মধ্যে মোট ১৩৭০ জন কিনেছেন ফরম। তাদের মধ্যে আটজন হিজরা ফরম কিনেছেন। এর মধ্যে জমা পড়েছে ৭২৫টি। একাদশ জাতীয় সংসদ অধিবেশন চট্টগ্রামের ফালগুনি, রংপুরের নাদিরা খানম, ময়মনসিংহের আরিফা ইয়াসমিন ময়ূরী, ঢাকার ওয়াহিদুল ইসলাম পার্বতীসহ তৃতীয় লিঙ্গের আটজন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনেছেন এবং জমাও দিয়েছেন।
সংবিধানে তৃতীয় লিঙ্গের কাউকে নারী সাংসদ করার সুযোগ নেই। সংবিধানের সর্বশেষ সংশোধনীর ৬৫ (১)-এর ৩ অনুচ্ছেদে বলা আছে, ‘সংসদে ৫০টি আসন কেবল মহিলা-সদস্যদের জন্য সংরক্ষিত থাকিবে।’ এমনকি গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশেও (আরপিও) তৃতীয় লিঙ্গের বিষয়ে কিছু উল্লেখ নেই। সংবিধানে সংশোধনী না এনে তৃতীয় লিঙ্গের কাউকে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সাংসদ করা সম্ভব নয়। যেহেতু সংবিধানেই সে সুযোগ নেই, তাই তাদের কাছে মনোনয়ন ফরম বিক্রি করা যথার্থ হয়নি।
সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ ইনকিলাব বলেন, সংবিধানে বলা হয়েছে, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য কেবল মহিলারা হতে পারবেন। এ কারণে এ আসনগুলোয় অন্য কোনও লিঙ্গের সদস্য হওয়ার সুযোগ নেই। তিনি বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের কেউ যদি নারী হিসেবে ভোটার হন, সে ক্ষেত্রে কোনও বাধা না থাকলেও তিনি নারী হিসেবেই বিবেচিত হবেন। তৃতীয় লিঙ্গের হিসেবে নয়। এদিকে বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ইনকিলাবকে বলেন, এ সরকার নিজেদের প্রয়োজনে বহুবার সংবিধান পরিবর্তন করেছে। সংরক্ষিত নারী আসনের বিষয়টি সংবিধানে ৫০টি বলা হয়েছে। এর বাহিরে যাওয়ার সুযোগ নেই।
এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, এটি একটি জটিল প্রশ্ন। তবে তারা যদি নিজেকে নারী বা মহিলা হিসেবে দাবি করেন, তা হলে কোনও সংকট তৈরি হয় না। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, এখন মনোনয়ন ফরম বিক্রি করা হচ্ছে। মনোনয়নের বিষয়টি চূড়ান্ত করার ক্ষেত্রে আইনি জটিলতার বিষয়টি আসবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতীয় সংসদ নির্বাচন

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ