Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১১ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

মোহামেডানের রাজা কিংসলে

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

পিছিয়ে পড়ার পর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল টিম বিজেএমসি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মোহামেডানকে আটকে রাখতে পারেনি তারা। ম্যাচের অন্তিম মূহুর্তে কিংসলে যখন দ্বিতীয় গোলটি করলেন, তখন মাথায় হাত বিজেএমসির ফুটবলারদের। নিশ্চিত ড্রয়ের দিকে এগুতে থাকা ম্যাচটিতে হারতে হলো তাদের। এক পয়েন্ট কেড়ে নেয়ার কথা ভাবলেও শেষ পর্যন্ত তাও খোঁয়াতে হওয়ায় ডিফেন্ডার আল আমিন, রনিরাতো মাটিতেই শুয়ে পড়লেন। কিংসলে চিগোজির জোড়া গোলে জয় নিয়ে লিগে শুভসূচনা করেছে মোহামেডান। গতকাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ২-১ গোলে জেতে মোহামেডান। সর্বশেষ তিন দেখায় বিজেএমসির বিপক্ষে এটি তাদের দ্বিতীয় জয়।

ম্যাচের পঞ্চদশ মিনিটে প্রথম বলার মতো আক্রমণটি করে বিজেএমসি। নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার স্যামসন ইলিয়াসুর জোরালো শট গোলরক্ষক বরাবর যায়। ২৩তম মিনিটে ল্যান্ডিং ডারবোয়ের বাড়ানো বল লক্ষ্যে রাখতে পারেননি মোহামেডানের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড চিগোজি। দুই মিনিট পর আব্দুল্লাহ আল মামুনের শট পোস্টের অল্প একটু বাইরে দিয়ে গেলে হতাশ হতে হয় বিজেএমসিকে। ৩৪তম মিনিটে ডারবোয়ের বাড়ানো ক্রসে চিগোজির হেড জাল খুঁজে পেলে এগিয়ে যায় গত লিগে পঞ্চম হওয়া মোহামেডান। পাঁচ মিনিট পর ডারবোয়ের ফ্রি কিক ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়নি। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার ওতাবেক বাঁকানো ফ্রি কিকে লক্ষ্যভেদ করলে সমতার স্বস্তি ফেরে বিজেএমসি শিবিরে।
৮০তম মিনিটে ক্যামেরুনের ডিফেন্ডার বেইবেক লালকার্ড পেলে শক্তি কমে বিজেএমসির। দুই মিনিট পর ডি-বক্সের একটু ওপর থেকে মোহামেডানের গাম্বিয়া ফরোয়ার্ড ডারবোয়ের ফ্রি কিক ক্রসবারের অনেক ওপর দিয়ে যায়।
দ্বিতীয়ার্ধের যোগ করা সময়ে বাঁ দিক থেকে কায়সার আলি রাব্বীর বাড়ানো ক্রসে অধিনায়ক চিগোজির বুলেট গতির হেড জাল খুঁজে পেলে ফের এগিয়ে যায় মোহামেডান। বাকিটা সময় এ গোল ধরে রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ঐতিহ্যবাহী দলটি।
একই দিন আরামবাগ ক্রীড়া সংঘকে কষ্টে হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগে শুভসূচনা করেছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র। ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূইয়া স্টেডিয়ামে ১-০ গোলে জেতে আসরের সাবেক চ্যাম্পিয়নরা।
ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে ডি বক্সের জটলার মধ্যে থেকে উজবেকিস্তানের ফরোয়ার্ড আজিজভ আলিশের লক্ষ্যভেদ করলে এগিয়ে যায় শেখ রাসেল। ৩৮তম মিনিটে সমতায় ফেরার ভালো সুযোগ নষ্ট হয় আরামবাগের। ডান দিক থেকে জাহিদ হোসেনের বাড়ানো বল ধরে ক্যামেরুনের ফরোয়ার্ড পল এমিলের নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে পড়ে ফেরান গোলরক্ষক। প্রথমার্ধের শেষ দিকে মিডফিল্ডার রবিউল হাসানের ফ্রি কিক অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে গেলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় আরামবাগ।
দ্বিতীয়ার্ধে বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে ধার না থাকায় ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে পারেনি লিগের ২০১২-১৩ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন শেখ রাসেল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ