Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

ধর্ষণ মামলায় পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

রাজধানীতে সাবলেট হিসেবে বাসা ভাড়া নিয়ে গৃহবধূকে ধর্ষণের মামলায় পুলিশ কনস্টেবল তরুণ কান্তি বিশ্বাসের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন ঢাকার একটি আদালত। গতকাল রোববার ঢাকার ৩ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জয়শ্রী সমাদ্দার এ পরোয়ানা জারির আদেশ দেন। এ ট্রাইব্যুনালের পেশকার মোক্তার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, ২০১৭ সালের ১৮ অক্টোবর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি দায়ের করা হয়। পরে বিচারক পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দেন। পিবিআইয়ের পরিদর্শক শামীম আহমেদ গত ২০ নভেম্বর আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এদিন ওই তদন্ত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।
মামলায় বলা হয়, ২০১৫ সালের মে মাসে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন পুলিশ কনস্টেবল তরুণ কান্তি। সে সময় তিনি ওই নারীর ভাড়া করা বাসায় ‘সাবলেট’ হিসেবে ওঠেন। পরে তিনি বিভিন্ন সময় তাকে উত্ত্যক্ত করেন। স্বামী ঘরে না থাকার সুযোগে ওই গৃহবধূকে দুধের সাথে ঘুমের ওষুধ খাওয়ান তরুণ কান্তি। এতে অচেতন হয়ে পড়ায় তিনি তার ভিডিও করেন। ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে তরুণ কান্তি ওই গৃহবধূকে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে বাধ্য করেন। তাকে বিয়ের আশ্বাসও দেয়া হয় বলে মামলায় অভিযোগ করেছেন ওই নারী। পরে ওই পুলিশ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন ওই গৃহবধূ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন