Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২১ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

কবিরহাটে গণধর্ষণ, বিচারের দাবিতে নোয়াখালী জেলা শহরে মানববন্ধন

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২১ জানুয়ারি, ২০১৯, ৭:২১ পিএম

কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের নবগ্রামে তিন সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের প্রতিবাদে মানববন্ধন, বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্র নোয়াখালী শাখা। সোমবার দুপুরে জেলা শহর মাইজদী টাউন হল মোড়ে ঘন্টাব্যাপি এ কর্মসূচী পালন করা হয়েছে। সমাবেশে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন, বাসদ (মার্কসবাদী), সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা ধর্ষণকারী যে দলেরই হোক না কেন তাদের গ্রেপ্তার এবং ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার হওয়া আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন। একই সঙ্গে এ ঘটনায় যেন সাধারণ মানুষকে হয়রানি করা না হয় সে দাবীও জানান তারা।

মামলা ডিবিতে হস্তান্তর
এদিকে নোয়াখালী পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরীফ জানান, ঘটনায় এ পর্যন্ত ৪জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের নবগ্রামে স্থানীয় মুদি দোকানি জাকির হোসেন জহিরের নেতৃত্বে কয়েকজন সন্ত্রাসী আবুল হোসেনের ঘরের সিঁধ কেটে ভিতরে প্রবেশ করে। এদের মধ্যে কয়েকজনের মুখোশ পরা ছিল। পরে তারা ঘরের বৈদ্যুতিক লাইট বন্ধ করে ভিকটিমের মা, ভিকটিমের এক ছেলে ও দুই মেয়েকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পালাক্রমে ভিকটিমকে গণধর্ষণ করে। ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে জাকির হোসেন জহিরসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। রবিবার গ্রেপ্তারকৃত জাকির হোসেন জহির আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন