Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

তিন দিনের মধ্যেই লন্ডনের নতুন মেয়র সাদিকের ব্যাপক উদ্যোগ

প্রকাশের সময় : ১১ মে, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সাদিক খান লন্ডনের মেয়র হয়েছেন মাত্র তিনদিন। এরই মধ্যে তিনি রাজধানীতে পরিবহন ব্যয়ে ব্যাপক পরিবর্তনের পরিকল্পনা ঘোষণা করে লন্ডনের বাসভাড়া ব্যাপক পুনর্বিন্যাস করতে শুরু করেছেন।
সাদিক খান তার একঘন্টার ‘হুপার’ ফেয়ার সিস্টেম প্রবর্তন করতে যাচ্ছেন। এতে লন্ডনবাসীদের বাসে যাতায়াতে অর্থের প্রচুর সাশ্রয় হবে। এই ব্যবস্থায় যাত্রীরা এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে একটির ভাড়া দিয়ে দুইটি বাসে ভ্রমণ করতে পারবে।
নতুন এই বাসভাড়া ব্যবস্থা এ বছরের সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর হবে এবং যারা ‘পে অ্যাজ ইউ গো’ ওয়েস্টার কার্ড ব্যবহার করে অথবা যারা এই কার্ড ব্যবহার করেনা সেসব যাত্রী তাদের প্রথম বাসভ্রমণের এক ঘন্টার মধ্যে অতিরিক্ত ভ্রমণে ১ দশমিক ৫০ পাউন্ড সাশ্রয় দেখতে পাবেন।
সাদিক খান তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় হুপার ফেয়ার সিস্টেম চালুর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। যদিও এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে লন্ডনে সর্বত্র সীমাহীন ভ্রমণে চালু করার তার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে মেয়রের অফিস বলছে, লন্ডনে পরিবহন ব্যবস্থার ব্যবহৃত প্রযুক্তির সীমাবদ্ধতার কারণে বর্তমানে এখনই এটা পুরোপুরি চালু করা সম্ভব নয় তবে আগামী বছর নাগাদ এই প্রযুক্তির উন্নয়ন ঘটানো হলে ২০১৮ সালের শেষ নাগাদ এক ঘন্টা সময়সীমার ভেতর যাত্রীরা একই ভাড়ায় লন্ডনে সীমাহীন বাস ভ্রমণ করতে পারবে। ২০১৫ সালে গোটা লন্ডনে বাসভ্রমণের সংখ্যা ছিল প্রায় আড়াইশো কোটি। মেয়রের অফিসের তথ্য উপাত্ত অনুযায়ী প্রায় ৬০ কোটি ভ্রমণ ছিল ‘পে অ্যাজ ইউ গো জার্নি’। এরমধ্যে এক ঘন্টা সময়ের মধ্যে প্রায় ৮ কোটি যাত্রী বাস বদল করে আরেক বাসে যাতায়াত করেছে।
সাদিক খান আশা করছেন যে নতুন এই পরিকল্পনায় লন্ডনবাসীর প্রচুর আর্থিক সাশ্রয় হবে বিশেষ করে স্বল্প আয়ের লোকজন যারা যাতায়াতের জন্য বাস নেটওয়ার্কের উপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল তারা এতে অনেক উপকৃত হবে। তিনি বলেন, আমার পিতা ৪৪ নম্বর বাসের ড্রাইভার ছিলেন এবং লন্ডনের পরিবহন সবসময়ই আমার জীবনের একটি বড় অংশ হয়ে রয়েছে।
লন্ডনে আট বছর ধরে বাসভাড়া বেড়েছে এবং এতে মানুষের কাজে যাতায়াতে প্রচুর অর্থ ব্যয় হচ্ছে। এখন মেয়র হিসেবে আমি যাতায়াতের বাড়তি ব্যায় রোধে বদ্ধপরিকর।
সদ্যবিদায়ী মেয়র বরিস জনসনের অধীনে এবছরর লন্ডনের বাসভাড়া এক শতাংশ বাড়ানো হয়েছে যদিও একক বাস ভাড়া একই রাখা হয়েছে।
লন্ডনের ট্রান্সপোর্ট কমিশনার মাইক ব্রাউন বলেন, লন্ডনের বাসিন্দাদের মধ্যে অনেকে এমন এলাকায় বাস করে বা কাজ করে সেখানে টিউব বা রেল সার্ভিসের সুবিধা ভালোভাবে পাওয়া যায়না তাদের চাহিদা এখন ভালোভাবে মেটানো যাবে। এই নতুন উদ্যোগ তাদের জন্য প্রভূত সুবিধা বয়ে আনবে।
নির্বাচনী প্রচারণায় সাদিক খান প্রথম বছরে লন্ডনে বাসভাড়া কমানো এবং এরপর ভাড়া অপরিবর্তিত রাখাসহ আগামী ৪ বছরের জন্য সকল টিএফএল আন্ডারগ্রাউন্ড, ডিএলআর ও ওভারগ্রাউন্ড পরিবহনের ভাড়া না বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পরপরই তিনি তার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ণের চিন্তা-ভাবনার পাশাপাশি কাজও শুরু করে দিয়েছেন। সূত্র : নিউজ রিপাবলিক।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ