Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সিজারে নবজাতককে কেটে ফেলার অভিযোগ : আটক ৩

ময়মনসিংহ ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ময়মনসিংহে অদক্ষ ও হাতুড়ে চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসার খেসারত দিতে হলো এক নবজাতকের বাবা-মাকে। সিজারিয়ানের আধা ঘন্টা পরেই মৃত্যু হয়েছে ওই নবজাতকের। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে ময়মনসিংহ শহরের কৃষ্টপুর আলীয়া মাদ্রাসা রোড এলাকার বেসরকারি পরশ হাসপাতালে। স্বজনদের অভিযোগ, নবজাতকের গালে ৩ থেকে ৪টি কাটার দাগ ও পিঠ পুরোটাই ফাঁড়া (কাটা) ছিল।
গতকাল সোমবার দুপুরে এই ঘটনায় পুলিশ ওই হাসপাতালের ৩ জনকে আটক করেছে। তারা হলেন- জনি (৩২), মুরাদ (৪৪) ও জুয়েল (৩০)। এই ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।
নবজাতকের বাবা ময়মনসিংহ সদর উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের হারুন অর রশিদ অভিযোগ করে বলেন, গত রোববার রাতে আমার স্ত্রীকে বাচ্চা প্রসবের জন্য শহরের কৃষ্টপুর আলীয়া মাদ্রাসা রোড এলাকার ওই পরশ হাসপাতালে ভর্তি করাই। পরে তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। এর ঠিক আধা ঘন্টা পর আমার স্ত্রী কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষস্বজনদের সুস্থ নবজাতক দেখিয়ে যান।
হারুন অর রশিদ অভিযোগ করেন, আমাদের কাছে কিছুক্ষণ পর এসে চিকিৎসক ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান নবজাতক মারা গেছে। আমরা নবজাতকের গালে ৩ থেকে ৪টি কাটার দাগ ও পিঠ পুরোটাই ফাঁড়া (কাটা) দেখেছি। সেইসব স্থানে তারা কসটেপ পেঁচিয়ে দিয়েছে।
নবজাতকের বাবার অভিযোগ, এই ঘটনায় গতকাল সোমবার সকাল ১১ টার দিকে আমরা কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করি।
জানতে চাইলে কোতোয়ালী মডেল থানার এসআই পলাশ কুমার রায় জানান, এই ঘটনায় তিনজকে আটক করা হয়েছে। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে নবজাতকের ময়না তদন্তের কাজ চলছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আটক

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৬ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ