Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০৫ কার্তিক ১৪২৬, ২১ সফর ১৪৪১ হিজরী

রাজশাহীর রাজকীয় জয়

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

এবারের বিপিএলে খেলছেন কত্ত বড় বড় তারকারা। স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নাররা খেলে চলেও গেছেন। আছেন ক্রিস গেইল, এবি ডি ভিলিয়ার্স, অ্যালেক্স হেলস, আন্দ্রে রাসেল, কাইরন পোলার্ডের মতো খেলোয়াড়রা। খেলেছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও। অথচ প্রথম সেঞ্চুরিটা কি না এল মাঝারী সারির ‘অখ্যাত’ এক ইংলিশ ব্যাটসম্যানের কাছ থেকে! ইংলিশ এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে অলরাউন্ডার পারফরম্যান্স দেখালেন রায়ান টেন ডেসকাট। ইভান্সের সঙ্গে গড়লেন রেকর্ড জুটি। দুর্দান্ত বোলিং করলেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। রাজশাহী পেল রাজকীয় এক জয়। টুর্নামেন্টের অন্যতম ফেবারিট কুমিল্লা ভিক্টারিয়ান্সকে ৩৮ রানে হারিয়েছে রাজশাহী কিংস।
গতকাল মিরপুরে ইভান্সের অপরাজিত সেঞ্চুরি ও ডেসকাটের সঙ্গে রেকর্ড জুটিতে রাজশাহী ২০ ওভারে তুলেছিল ৩ উইকেটে ১৭৬ রান। কামরুল ইসলাম রাব্বির ৪ উইকেটে কুমিল্লা থেমেছে ১৩৮ রানে। পয়েন্ট টেবিলে দুই দলই চলে এসেছে সমতায়। ৭ ম্যাচে দুই দলেরই জয় চারটি করে।
শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় রাজশাহী। ২৮ রানে তিন উইকেট তুলে নিয়ে প্রথম ১০ ওভারে তাদের বেঁধে রাখার চেষ্টায় সফলও ছিলো কুমিল্লা। ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস, মেহেদী মিরাজ ও মার্শাল আইয়ুবরা বিদায় নিলে শ্লথ ছিলো রানের গতি। তবে অপর প্রান্ত অবিচল ছিলেন ইভান্স। ডেসকাটকে সঙ্গে নিয়ে ধীরে ধীরে হাত খুলে মেরেছেন। চতুর্থ উইকেটে ১৪৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন দুজন। চতুর্থ উইকেটে যা বিপিএলের রেকর্ড। ১২৩ রানের জুটিতে আগের রেকর্ড ছিল ২০১৬ বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে মারলন স্যামুয়েলস ও মাশরাফি বিন মুর্তজার। এই ঝড় তুলে এবারের মৌসুমের প্রথম সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছেন ইভান্স। ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত করেছেন ‘ব্যাট ক্যারি’। ৬২ বলে ১০৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। তার ইনিংসে ছিলো ৯টি চার ও ৬টি ছয়। অপর দিকে সঙ্গী ডেসকাটও ছিলেন আগ্রাসী। ৪১ বলে ৫৯ রানের ইনিংস খেলেন ডেসকাট। তার ইনিংসে ছিলে ২টি চার ও ৩ ছয়।
বিপিএলে এটি ত্রয়োদশ সেঞ্চুরি। নবম ক্রিকেটার হিসেবে এই টুর্নামেন্টে সেঞ্চুরি করলেন ইভান্স। সর্বোচ্চ পাঁচটি আছে ক্রিস গেইলের। একাধিক সেঞ্চুরি নেই আর কারও।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
রাজশাহী কিংস : ২০ ওভারে ১৭৬/৩ (শাহরিয়ার ৫, ইভান্স ১০৪*, মিরাজ ০, মার্শাল ২, ডেসকাট ৫৯*; সাইফ ৪-০-৩১-০, মেহেদি ১-০-৪-১, ডসন ৪-০-২০-২, ওয়াহাব ৪-০-৪৪-০, আফ্রিদি ৪-০-৩২-০, থিসারা ৩-০-৪৩-০)।
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৮.২ ওভারে ১৩৮ (তামিম ২৫, এনামুল ২৩, শামসুর ১৫, জিয়াউর ১২, ইমরুল ১৫, ডসন ১৭, থিসারা ০, আফ্রিদি ১৯, সাইফ ০, ওয়াহাব ১*, মেহেদি ১; কামরুল ৩-০-১০-৪, মিরাজ ৩-০-২৭-০, কাইস ৪-০-৪৬-২, ম্স্তুাফিজ ৩.২-০-৮-১, সানি ৩-০-২৮-১, ডেসকাট ২-০-১৫-২)।
ফল : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৩৮ রানে জয়ী।
মাচসেরা : লরি ইভান্স (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স)।



 

Show all comments
  • faysal ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ২:১২ এএম says : 0
    eto vul likle kemne hobe.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিপিএল

২৯ জুলাই, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন