Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

লিভারের রোগীদের জীবন সহজ করার গবেষণা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:২৪ পিএম

ইউরোপীয় এক গবেষণা প্রকল্পের আওতায় গবেষকরা এমন এক যন্ত্র উদ্ভাবনের চেষ্টা করছেন, যা দিয়ে লিভারের রোগীরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন যে, কখন তাদের হাসপাতালে যেতে হবে৷
নিয়মিত হাসপাতালে যাওয়া থেকে রোগীদের মুক্তি দেয়ার লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ডের নয়শাটেলে এই গবেষণা চলছে৷ বিজ্ঞানীরা এমন এক পদ্ধতি বের করার চেষ্টা করছেন, যা দিয়ে রোগীরা তাদের ক্ষতিগ্রস্ত লিভার পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন৷
নিউক্যাসল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক জেমস ওর বলছেন, ‘আমরা রোগীদের চিকিৎসাসেবার মান উন্নত করার চেষ্টা করছি যেন মনিটরিং চলাকালীন তাদের শরীর খারাপ হওয়ার সংখ্যাটা কমে৷ আমরা এতে সফল হলে রোগীদের জীবনযাপনের মান কিছুটা উন্নত হবে, কারণ, তাদের হাসপাতালে কম যেতে হবে৷ রোগীদের কথা বিবেচনা করলে এটি অন্যতম এক সুবিধা৷’
আরেক গবেষক স্টেফান ডাসেন একটি যন্ত্র দেখিয়ে বললেন, ‘এই যন্ত্র দিয়ে ‘ক্লট’ বা জমাট বাঁধতে রক্তের কত সময় লাগে, তা জানা যায়৷ এছাড়া রক্তে পটাশিয়াম, সোডিয়াম, ক্রিয়েটিনিন, অ্যালবুমিন, বিলিরুবিন ইত্যাদির মাত্রা কত, তা-ও পরিমাপ করা যায়৷ এসবের মাত্রা খুব বেশি বা খুব কম হলে ধরে নিতে হবে, লিভারে সমস্যা হয়েছে৷’
এই যন্ত্র দিয়ে রোগীরা স্বয়ংক্রিয়ভাবে হৃদস্পন্দনের মাত্রা, ত্বকের তাপমাত্রা বা রক্তচাপ ইত্যাদিও মাপতে পারবেন৷ নিয়মিতভাবে রক্তের চাপ পর্যবেক্ষণ করা একটি চ্যালেঞ্জের কাজ৷ আরো কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষার পর শিগগিরই যন্ত্রটি বাজারে আনা সম্ভব হবে বলে গবেষকরা আশা করছেন৷
প্রকল্পের সমম্বয়ক ক্যালাম ম্যাকনিল বলছেন, ‘শরীরের অবস্থা নিয়মিত পর্যবেক্ষণে রাখার মতো শরীরে পরা এই যন্ত্র খুব শিগগিরই বাজারে আসার মতো পর্যায়ে রয়েছে৷ আর রক্তের বায়োকেমিস্ট্রি মাপার যন্ত্র আসতে তিন থেকে পাঁচ বছর সময় লাগতে পারে৷ স্মরণশক্তি, নতুন কিছু শেখা, সিদ্ধান্ত নেয়া – এ সব সক্ষমতা কী অবস্থায় আছে, তা মাপার যন্ত্র এক বছরের মধ্যেই চলে আসতে পারে৷’ সূত্র: বিবিসি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চিকিৎসা


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ