Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার ২২ জুলাই ২০১৯, ০৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

সিলেটের অধিনায়ক সোহেল তানভির

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ডেভিড ওয়ার্নার চলে যাওয়ার রব ওঠার পর থেকেই আলোচনা চলছিল কে হচ্ছেন সিলেট সিক্সার্সের অধিনায়ক। গুঞ্জনে এগিয়ে ছিলেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাস। তবে বেশ চমকই দিয়েছে দলটি। অধিনায়ক হিসেবে পাকিস্তানি ক্রিকেটার সোহেল তানভিরের নাম ঘোষণা করেছে দলটি। আর নেতৃত্ব পেয়ে দারুণ খুশি এ পেসার।
অথচ চলতি আসরে নিয়মিত একাদশে জায়গাই মিলছিল না তানভিরের। এখন পর্যন্ত সাতটি ম্যাচ খেলেছে সিলেট। তাতে মাত্র তিনটি ম্যাচে খেলার সুযোগ মিলেছে তার। সেই খেলোয়াড়কেই অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দিয়েছে দলটি। এদিকে দলের অবস্থাও খুব একটা সুবিধা জনক নয়। সাত ম্যাচের পাঁচটিতেই হেরেছে তারা।
তবে নেতৃত্ব নতুন কিছু তানভিরের। ঘরোয়া ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব করেছেন, করেছেন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগেও। সে অভিজ্ঞতা থেকে ভালো কিছু করার প্রত্যয় ঝরে তার কণ্ঠে, ‘আমি এটা (অধিনায়কত্ব) আগেও অনেকবার করেছি। পাকিস্তানে স্থানীয় দলে এবং কানাডা লিগেও করেছি। তাই আমার জন্য এটা নতুন নয়। আমরা এখন আদর্শ অবস্থানে নেই। তবে আমরা ঘুরে দাঁড়াতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। একটা দুইটা ম্যাচই আমাদের মোমেন্টাম এনে দিতে পারে।’
ভাষাগত সমস্যাটা নিয়ে কথা উঠলেও সেটা নিয়েও ভাবছেন না তানভির। আপাতত নজর তার ম্যাচের দিকেই, ‘আমি ওয়াকার ভাইয়ের সঙ্গে পাকিস্তান দলের আগেও কাজ করেছি। তিনি খুবই উৎসাহী এবং ভাষাগত কোন সমস্যাই আটকাবে না। আমরা একটি একটি ম্যাচ নিয়ে চিন্তা করছি। পাঁচটি ম্যাচ আছে। এর মধ্যে তিন থেকে চারটি জিততেই হবে প্লে-অফ খেলার সুযোগ ধরে রাখার জন্য। আমি ছেলেদের বলেছি, আমরা যদি টানা দুই-তিনটা ম্যাচ হারতে পাড়ি তাহলে আমরা টানা দুই-তিনটা ম্যাচ জিততেও পারি।’
এদিকে দলের নিয়মিত অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের চলে জাওয়াকে বড় ক্ষতি মনে করছেন তানভির। তবে জায়গা পূরণ করতে ইংল্যান্ড থেকে জেসন রয়কে উড়িয়ে এনেছে দলটি। তার প্রতি আস্থা রয়েছে তানভিরের। এছাড়া স্থানীয় খেলোয়াড়দের দিকেও তাকিয়ে আছেন তিনি। দলীয় প্রচেষ্টায় কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন বলে আশা করছেন এ পাকিস্তানি পেসার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ