Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৯ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

নাটকীয় হারে সেরেনার বিদায়

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম

নাটকীয় বললেও কম বলা হবে। একবার দুবার নয়, চার চারবার পৌঁছান ম্যাচ পয়েন্টের সামনে। সেই ম্যাচ শেষ পর্যন্ত জিততে পারলেন না ২৩ গ্র্যান্ড ¯ø্যামের মালিক ও চলতি অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মেয়েদের এককে সবচেয়ে ফেভারিট সেরেনা উইলিয়ামস। নাটকীয়তায় ঠাসা ম্যাচে অবিশ্বাস্যভাবে শেষ ছয় গেম জিতে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠেছেন চেক সাত নম্বর বাছাই ক্যারোলিনা পিসকোভা।

সর্বোকালের সর্বোচ্চ ২৪ গ্র্যান্ড ¯ø্যাম জয়ের যৌথ রেকর্ড গড়ার লক্ষ্যে শেষ আটেই থামতে হলো আসরের সাতবারের চ্যাম্পিয়ন সেরেনাকে। মেলবোর্ন পার্কে প্রথম সেট জেতেন পিসকোভা। পরের সেটে ঘুরে দাঁড়ান সেরেনা। শেষ সেটে ৫-১ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর মনে হচ্ছিল শেষ চারে পা রাখা সেরেনার জন্য কয়েকটা মুহূর্তের ব্যাপার মাত্র। কিন্তু নাটকীয়তার শুরু তখন থেকেই। টানা ছয় সেট জিতে সেরেনাকে হয়ত জীবনের সবচেয়ে বাজে অভিজ্ঞতা উপহার দেন পিসকোভা। এরই মাঝে চার চারবার ম্যাচ পয়েন্টের সামনে ছিলেন ৩৭ বছর বয়সী সেরেনা। পিসকোভাও দুইবার ম্যাচ পয়েন্ট হাতছাড়া করার পর তৃতীয়বার আর ভুল করেননি, জিতেছেন ৬-৪ ৪-৬ ৭-৫ গেমে।
৫-১ (৪০-৩০) ব্যবধানে এগিয়ে যখন ম্যাচ পয়েন্টের সামনে তখন গোড়ালীর চোটে পড়েন ১৬ নম্বর বাছাই সেরেনা। এরপরও বার বার ঘুরে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত চাপ ধরে রাখতে পারেননি। ম্যাচ শেষে তাই হতাশ সেরেনা, ‘আমার মনে হয় ম্যাচ পয়েন্টের সামনে গিয়ে সে আমাকে অন্ধকারে ঠেলে দেয়ার মত খেলেছে। সে লাইন বরাবর খেলছিল, পাগলের মত। ম্যাচ পয়েন্টের সময় সে অবিশ্বাস্য খেলেছে।’ তবে নিজ ব্যর্থতার কারণ হিসেবে চোটের কথাও উল্লেখ করেন সেরেনা, ‘গোড়ালীর বিষয়ে আমার কিছুই করার নেই। অবশ্যই আমি কিছু ভুল করেছি তবে সে আসলেই দুর্দান্ত খেলেছে।’
আর পিসকোভার সরল ভাষ্য, ‘আমি আমার সুযোগগুলো নিয়েছি।’ সাবেক এক নম্বর তারকা এসময় মনের অবস্থা প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, ‘৫-১-এ পিছিয়ে পড়ার পর আমার মন যেন আবদ্ধ ঘরে বন্দি হয়ে গিয়েছিল।’ শেষ চারের ম্যাচে আজ পিসকোভা লড়বেন জাপানের চতুর্থ বাছাই নোমানি ওসাকার বিপক্ষে। দুজনেই প্রথমবারের মত আসরের সেমিফাইনালে খেলবেন। ইউএস ওপেন চ্যাম্পিয়ন ওসাকাকে যথার্থ সম্মান দিয়ে ২৬ বছর বয়সী বলেন, ‘নোমানি ওসাকা ভয়ঙ্কর কিন্তু সেরেনার মত ভয়ঙ্কর আর কেউ নেই।’ নারী এককের অন্য সেমিফাইনালে আট নম্বর বাছাই পেত্রা কেভিতোভার প্রতিপক্ষ আমেরিকান অবাছাই ডানিয়েল কলিন্স।
এদিকে ছেলেদের এককে শেষ চারে উঠেছেন আসরের ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ও বিশ্বের এক নম্বর তারকা নোভাক জোকোভিচ। মেলবোর্ন পার্ক অ্যারেনায় সার্বিয়ান তারকা যখন ৬-১ ৪-১ গেমে এগিয়ে তখন উরুর ইনজুরিতে পড়ে ম্যাচ থেকে অবসর নেন জাপানের আট নম্বর বাছাই কেই নিশিকোরি। ৩১ বছর বয়সী জোকোভিচ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শেষ চারে যতবার উঠেছেন ততবারই শিরোপা নিয়ে তারপর থেমেছেন। আগামীকালের শেষ চারের ম্যাচে তার প্রতিপক্ষ ফ্রান্সের লুকাস পুলি। মিলোস রনিককে ৭-৬ (৭-৪) ৬-৩ ৬-৭ (২-৭) ৬-৪ গেমে হারিয়ে প্রথমবারের মত কোন গ্র্যান্ড ¯ø্যামের শেষ চারে উঠেছেন পুলি। দিনের অন্য সেমিফাইনালে ১৭ গ্র্যান্ড ¯ø্যামজয়ী স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদালের প্রতিপক্ষ টুর্নামেন্টের চমক ও গ্রীক প্রতিভা ২০ বছর বয়সী স্টেফানোস সিসিপাস।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সেরেনা

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
১৬ আগস্ট, ২০১৮
২৯ জানুয়ারি, ২০১৭

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ