Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬, ২৩ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান ৯০০ মিটার

বসলো ষষ্ঠ স্প্যান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০২ এএম | আপডেট : ১২:৩২ এএম, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯

পদ্মা সেতুতে যুক্ত হলো আরও একটি স্প্যান। গতকাল সকালে জাজিরা প্রান্তে ৩৬ ও ৩৭ নম্বর খুঁটির ওপর ধূসর রঙের ‘এফ-৬’ নামের এই স্প্যান বসিয়ে দেয়া হয়। এ নিয়ে জজিরা অংশে সেতুটি দৃশ্যমান হলো ৯০০ মিটার। আর মাওয়া প্রান্তে আরো দৃশ্যমান রয়েছে ১৫০ মিটার। গতকাল সকাল ১০টায় ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্য এবং তিন হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটি বসিয়ে দেয়া হয়। এর আগে সেতুর ৩৭, ৩৮, ৩৯, ৪০, ৪১ ও ৪২ নম্বর পিলারের ওপর ৫টি স্প্যান বসানোর মাধ্যমে জাজিরা প্রান্তে পৌনে এক কিলোমিটার কাঠামো দৃশ্যমান হয়েছিলো। গতকাল ‘এফ-৬’ স্প্যানটি বসানোর পরে সেতুটির ঐ অংশে ৯শ’ মিটার দৃশ্যমান হলো।
এছাড়াও, মাওয়া প্রান্তের ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটি প্রস্তুত না থাকায় এই স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) ‘এফ-১’ আপাতত সেতুর ৪ ও ৫ নম্বর পিলারের ওপর রাখা হয়েছে। ৬ ও ৭ নম্বর খুঁটি প্রস্তুত হলে ‘এফ-১’ স্প্যানটি সরিয়ে বসিয়ে দেয়া হবে।
এর আগে নাব্য সঙ্কট মোকাবেলার পর মাওয়া কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে গত মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় রওনা হয়। কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করে বিকাল পৌনে ৫টায় জাজিরা প্রান্তে স্প্যানটি (সুপার স্ট্রাকচার) পৌঁছায়। তিন হাজার ৬শ’ টন ধারণ ক্ষমতার ক্রেন ‘তিয়ান ই’ স্প্যানটিকে নিয়ে আসে।
পদ্মা সেতু কর্তৃপক্ষের কর্মরত প্রকৌশলীরা জানান, স্প্যানটি কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে বসানোর উপযোগী করে বেশ কিছুদিন ধরে ইয়ার্ডের জেটির কাছেই রাখা ছিলো। কিন্তু, নাব্য সঙ্কটে এটি নেয়া সম্ভব হচ্ছিল না। কারণ, স্প্যান বহনকারী ৩৬শ’ টন ধারণ ক্ষমতার ভাসমান ক্রেনটি চলাচলে পানির যে গভীরতা প্রয়োজন সেতুর চ্যানেলে তা ছিল না। এ কারণে অনবরত ড্রেজিং করে নাব্য ফিরিয়ে আনা হয়।
৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসবে ৪১টি স্প্যান। আর সংযোগ সেতু রয়েছে আরও প্রায় ৩ দশমিক ৬৭ কিলোমিটার। সব মিলিয়ে সেতুটি হচ্ছে ৯ দশমিক ৮২ কিলোমিটার। সংযোগ সেতুর কাজও দ্রুত এগিয়ে চলেছে।
উল্লেখ্য, পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। সেতুর নিচতলায় চলবে ট্রেন। তাই নিচতলায় ট্রেন চলাচলের জন্য স্লাভ বসানো হচ্ছে।



 

Show all comments
  • তাসলিমা বেগম ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৪ এএম says : 0
    সুন্দরবনের রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের আপডেট, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের আপডেট চাই, প্রতিদিন এক পদ্মা সেতুর আপডেট দিয়েই দায়িত্ব শেষ?!
    Total Reply(0) Reply
  • Kabir Sardar ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
    টিভির খবরে বলা হয়েছে ৯৫০ মিটার!! কোনটি ঠিক?? এক একটি স্প্যান বসাতে গড়ে কতদিন লেগেছে? তাহলেই জানা যাবে কবে কাজ শেষ হবে
    Total Reply(0) Reply
  • biplob ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
    দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে আমার পদ্মা সেতু এবং আমার দেশ , বিন্দু বিন্দু করেই সিন্ধু হয়, টেকসই কাজের জন্য সময় তো লাগবেই, আমরা বাঙালি আমাদের দৈর্য কম সহ্য বেশি !!
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
    we need to know when this work will be finished.
    Total Reply(0) Reply
  • Sohel S.parvez ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৬ এএম says : 0
    আয়তন অনুযায়ী ৯০০ মিটার তেমন কিছু তো না!!তাও ভাল প্রতি একশো মিটার আলাদা করে উদ্বোধন হচ্ছে না!!হলে আমরা কি করতে পারতাম।
    Total Reply(0) Reply
  • Milton ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৭ এএম says : 0
    ভাল করা খবর। কিন্তু গতি অনেক ধীর। কবে আসবে পদ্মা সেতুর পরিপূর্ণতা সেই অপেক্ষায় আছি।
    Total Reply(0) Reply
  • Md.Mahedi Hasan Khan ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৭ এএম says : 0
    khub valo
    Total Reply(0) Reply
  • Golam Kibria ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৭ এএম says : 0
    আমি একটা বিষয় বুঝিনা, স্প্যান ই কি সেতু? নাকি স্প্যানের পরে আরো কাজ করতে হবে? যদি ৯০০ মিটার স্প্যান বসানো হয় সেটাকে ৯০০ মিটার সেতু দৃশ্যমান বলা কতটুকু সঠিক? আর যে গতিতে একেকটা স্প্যান বসতেছে তাতে কত বছরে এর কাজ শেষ হবে আল্লাহ ছাড়া আর কেউ জানেনা।
    Total Reply(2) Reply
    • Rohan Haider ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
      স্প্যান বসে যাওয়া মানে মূল structure হয়ে যাওয়া । বড় স্বপ্ন গুলু পূরণ হতে একটু সময় লাগে ।
    • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:৫৮ এএম says : 0
      স্প্যানই সেতুর কঙ্কাল। মাংস বসাতে সময় লাগে না। মূল সেতুর ৭২ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। এই স্প্যানের উপরে স্ল্যাব বসবে, ঢালাই হবে। এই কাজগুলোর স্পীড অনেক বেশিই হয়। কাজেই স্প্যান বসানোকে এত গুরুত্ব দেয়া হয়। যদিও মানবেন না, তবুও মাথায় রাখেন।
  • Kazi Jamal ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    নির্বাচনের পর পত্রিকায় পড়ার মতো কোনো নিউজ আসেনাই. তাই এগুলো দিয়ে চলতেসে.
    Total Reply(0) Reply
  • Live Projapti ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০০ এএম says : 0
    ৬ মাস ধরে সুন্দরবনের রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের কোন খবর নাই, রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের আপডেট জানার দরকার কি নাই?
    Total Reply(0) Reply
  • আন্দালিব ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    যারা পদ্মাসেতুর আপডেটের খবরে জ্বলুনি অনুভব করে তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, এ সেতু দক্ষিনবঙ্গের কোটি কোটি অধিবাসিতো বটেই সমগ্র বাংলাদেশেরও আশা আকাংখার নতুন প্রতীক। কারন এটি চালু হলে অবাধ পণ্য সরবরাহে অর্থনীতির গতি আরো ত্বরান্বিত হবে, ঢাকাকে বিকেন্দ্রিকরন কাজেও গতি আসবে। তাছাড়া ভাল খবর বার বার শুনতেও ভাল লাগে, কিন্তু আপনাদের কেন মন্দ লাগে এটা জানতে পারি কি?
    Total Reply(0) Reply
  • Nazmul Hassan ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    আরেকটি স্প্যান ৪ ও ৫ নম্বর পিয়ারে আছে, সেটা সহ সেতুর ১০৫০ মিটার হয়েছে
    Total Reply(0) Reply
  • MD.ROJJOB ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১:০১ এএম says : 0
    মোট সাতটি স্প্যান বসলে হওয়ার কথা ১০৫০ মিটার বুঝাল না হিসাবটা
    Total Reply(0) Reply
  • Nur Hossain ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০:১৩ এএম says : 0
    thank you the daily inkilab
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পদ্মা সেতু

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন