Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ শাওয়াল ১৪৪০ হিজরী।

বিএনপি অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই ভাঙবে: কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:২২ পিএম

বিএনপিকে অবশ্যই আমরা দুর্বল দল ভাবি না। কিন্তু তারা তাদের কর্মকাণ্ডে দলটিকে এলোমেলো, লেজেগুবড়ে করেছে,বিএনপি তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই ভাঙবে বলে মন্তব্য করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর রেডিসন হোটেলে ‘এলেঙ্গা-হাটিকমরুল-রংপুর মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ’ প্রকল্পের চুক্তি স্বাক্ষর শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।
,‘বিএনপি আজ সকালে অভিযোগ করেছে, সরকার নিরন্তরভাবে বিএনপিকে ভাঙার চক্রান্ত করেই যাচ্ছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের
জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেখুন, বিএনপির যা পারফরমেন্স আন্দোলনে, নির্বাচনে; তাতে সরকারের এমন কি প্রয়োজন আছে? বিএনপির এখন যে নড়বড়ে, এলোমেলো অবস্থা, এরকম একটা দলকে ভেঙে দিতে হবে। আমরা তো একটা স্ট্রং অপজিশন (শক্তিশালী বিরোধী দল) চাই। তারা সংসদে আসুক এটাও আমরা চাই। যে কজনই আছে, যে নাম্বার সংসদ সদস্য তারা নির্বাচিত হয়েছে। আমরা তো তাদের স্বাগত জানিয়েছি সংসদে আসতে। বিএনপিকে অবশ্যই আমরা দুর্বল দল ভাবি না। কিন্তু তারা তাদের কর্মকাণ্ডে দলটিকে এলোমেলো, লেজেগুবড়ে করেছে।’

বিএনপি তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলেই জন্যই ভাঙবে বলে মনে করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘এই অবস্থায় বিএনপি যদি ভাঙনের মুখে যায়, তাহলে বিএনপির ঘরোয়া কলহকোন্দলের জন্যই বিএনপি ভাঙবে। আমাদের কোনো প্রয়োজন নেই বিএনপিকে ভেঙে ফেলার।‘

বিএনপির মধ্যে ভাঙন শুরুই ইঙ্গিত দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ইতোমধ্যে তাদের নেতারা ভিন্ন ভিন্ন সুরে কথা বলছে। তাদের নিজেদের মধ্যেই ভাঙনের সুর। যাদের নিজের ঘরেই শত্রু, তাদের সঙ্গে শত্রুতা করার জন্য বাইরের শত্রুর কোনো প্রয়োজন আছে বলে কেউ মনে করে না।’

ঐক্যফ্রন্ট থাকবে না বলেও মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্ট একটা জগাখুচড়ি। এই জগাখিচুড়ি ঐক্য থাকবে না, এটা সবাই জানে।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নিত্যদিন যদি তাদের অফিসে লক্ষ করেন তাহলে দেখবেন, একে অন্যকে হাতাহাতি, সরকারের দালাল বলা, এসব তাদের নিত্যদিনের চিত্র। তারা নিজেরা কলহকোন্দলে জড়জড়িত। এই অবস্থায় তাদের নিজেদের সঙ্গে শত্রুতা করার জন্য তারা নিজেরাই যথেষ্ট।’

জাতীয় পার্টির সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যে হয়েছে, জাতীয় সংসদে তারা বিরোধী দলের ভূমিকায় অবতীর্ণ হবেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।

ক্ষমতাসীদের দলের এই নেতা বলেন, ‘বিএনপি না আসলে ইতোমধ্যে তো জাতীয় পার্টি অপজিশনের ভূমিকায় চলে গেছে। ১৪ দলের যারা সংসদে আছেন, তারাও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, স্ট্রং অপজিশনের ভূমিকায় তারা থাকবেন। কাজেই বিরোধী দল থাকবেই। তারপরও যদি বিএনপি আসে তাহলে আরও কণ্ঠ যোগ হবে। অপজিশনের কণ্ঠ সোচ্চার হবে। সেটা গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ভালোতো।’



 

Show all comments
  • mohammad haris uddin ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ৭:৫৬ পিএম says : 0
    pagale ki bale chagal ki kai. but chori kare lajja nai
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Mofazzal Hossain ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯, ৪:১৫ পিএম says : 0
    You have not any agenda or issue except discussion or research on BNP. After done such a dirty election you have not stopped, now your assignment is to breakup the unity of BNP. Remember that you will not be excused by the people and country.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওবায়দুল কাদের


আরও
আরও পড়ুন