Inqilab Logo

রোববার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

মার্কিন সিনেটে সরকারি অচলাবস্থা নিরসনের ২ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত জরুরি অবস্থার প্রস্তুতি হোয়াইট হাউজে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:১১ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ সীমান্তে জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তুতি নিচ্ছে হোয়াইট হাউজ। এ লক্ষ্যে খসড়া ঘোষণা প্রস্তুতির কাজ শুরু হয়েছে। এছাড়া সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য ৭০০ কোটি মার্কিন ডলারের সম্ভাব্য তহবিলের উৎসও চিহ্নিত করা হয়েছে। শুক্রবার হোয়াইট হাউজের অভ্যন্তরীণ কিছু নথি বিশ্লেষণ করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ তথ্য জানিয়েছে। এর আগে মার্কিন সিনেটে সরকারি অচলাবস্থা নিরসনের যে ২ প্রস্তাব উত্থাপন করা হয় তা প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। নির্বাচনী প্রতিশ্রæতি পূরণের জন্য ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য কংগ্রেসের কাছে সীমান্ত নিরাপত্তা বাবদ ৫৭০ কোটি ডলার চেয়েছেন। তবে প্রতিনিধি পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠ ডেমোক্র্যাটরা এই তহবিলের অনুমোদন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে কেন্দ্রীয় সরকারের বাজেটে অনুমোদন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। এর ফলে সরকারের একটি অংশে সৃষ্টি হয়েছে ‘শাটডাউন’ বা অচলাবস্থা। শুক্রবার ৩৪ দিন পার হওয়া এই শাটডাউনের কারণে বেতন পাননি কেন্দ্রীয় সরকারের আট লাখ কর্মী। ট্রাম্প এর আগে হুমকি দিয়েছিলেন, তার প্রস্তাব না মানলে তিনি জরুরি অবস্থা জারি করবেন। তবে কংগ্রেসকে পাস কাটিয়ে বিকল্প কোনো পন্থা অবলম্বন নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত আছেন ট্রাম্পের উপদেষ্টারা। এর মধ্য দিয়েই জরুরি অবস্থা জারির খসড়া ঘোষণার কাজ চলছে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। ওই খসড়া ঘোষণায় বলা হয়েছে, ‘প্রতিদিন অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করা বিপুল পরিমাণ বিদেশি আমাদের জাতির নিরাপত্তার জন্য সরাসরি হুমকি এবং একটি জরুরি অবস্থা জারির পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।’ এতে আরো বলা হয়েছে, ‘এমতাবস্থায় এখন আমি ডোনাল্ড জে, ট্রাম্প সংবিধানে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এবং ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি অ্যাক্টসহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুসারে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ সীমান্তে জরুরি অবস্থা জারি করছি।’ সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের অর্থের সম্ভাব্য তহবিলের উৎসও চিহ্নিত করেছে হোয়াইট হাউজ। এর মধ্যে হিসেবে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বাজেয়াপ্তকরণ তহবিল থেকে ৬৮১ মিলিয়ন ডলার, পেন্টাগনের সরকারি কর্ম তহবিল থেকে ৩ বিলিয়ন ডলার, সামরিক নির্মাণ খাত থেকে ৩ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলার এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা তহবিল থেকে ২০০ মিলিয়ন ডলার। অপর এক খবরে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রে এক মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা আংশিক অচলাবস্থা (শাটডাউন) নিরসনে বৃহস্পতিবার মার্কিন সিনেটে উত্থাপিত দুইটি প্রস্তাবই খারিজ হয়ে গেছে। এদিন ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানদের পক্ষ থেকে আলাদা করে প্রস্তাব দুইটি উত্থাপিত হয়েছিল। ৫০-৪৭ ভোটে প্রত্যাখ্যাত হয় রিপাবলিকান বিল। আর ডেমোক্র্যাট দলীয় বিলটি প্রত্যাখ্যাত হয়েছে ৫২-৪৪ ভোটে। পাস করানোর জন্য প্রত্যেকটি প্রস্তাবের পক্ষে অন্তত ৬০টি করে ভোট থাকতে হতো। বিল দুটি খারিজ হয়ে যাওয়ায় সহসা অচলাবস্থা নিরসনের সম্ভাবনাও মøান হয়ে গেলো। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে বরাদ্দ অনুমোদনের প্রশ্নে ট্রাম্পের সঙ্গে ডেমোক্র্যাটদের সমঝোতা না হওয়ায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে যুক্তরাষ্ট্র সরকারে চলছে আংশিক শাটডাউন। দেশটির ৮ লাখ সরকারি কর্মীকে ঘরে থাকতে কিংবা বেতন ছাড়া কাজ করতে বলা হয়েছে। তারপরও দেয়াল নির্মাণের প্রশ্নে অনড় অবস্থানে রয়েছেন ট্রাম্প। এ অবস্থায় পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সিনেটে দুইটি বিল উত্থাপন করতে সম্মত হয় ডেমোক্র্যাট ও রিপালিকানরা। রিপাবলিকানদের উত্থাপিত বিলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সব শাখায় অর্থ বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়। বিবিসি, রয়টার্স, সিএনএন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন