Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

মহানবীর পথ অনুসরণ করে ঘুষ দুর্নীতি বন্ধ করবো- আ হ ম মুস্তফা কামাল

ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:০২ পিএম

ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে চলার ঘোষণা দিয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, দেশকে এ দু’টি অপরাধ থেকে মুক্ত করার দৃঢ় প্রতিজ্ঞা করেছি। তিনি বলেন, আমরা অন্যায়, দুর্নীতি করবো না। ঘুষ দিবো না। আমাদের নবীজি (স.) ঘুষ-দুর্নীতি পছন্দ করতেন না। আমাদের সবার উচিত প্রিয় নবীর (স.) পথ অনুসরণ করা। ঘুষ দেওয়া-নেওয়া দুটিই অপরাধ। ঘুষ দিলে জাহান্নামে যেতে হবে। তাই সবাইকে অঙ্গীকার করতে হবে কেউ ঘুষ দেবো না। কোনো কাজ দু’দিন দেরি হলেও আমরা ঘুষ দেবো না। প্রধানমন্ত্রী ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে এক ধরনের যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর সাথে একাত্মতা পোষণ করে বলছি, ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে চলবো।

শনিবার (২৬ জানুয়ারি) মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের ‘সংবর্ধনা ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানে’ অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি এবং দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দেয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ও বি এইচ হারুন এমপিকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। দেশের প্রথিতযশা ইসলামী চিন্তাবিদ, বরেণ্য আলেম, ওলি-আউলিয়া, ইসলামী প-িতদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠে অনুষ্ঠানস্থল। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসবিচ অধ্যক্ষ শাব্বীর আহমদ মোমতাজী।

জমিয়াতুল মোদার্রেছীনকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের মনে করেন মন্তব্য করে মুস্তফা কামাল বলেন, তিনি জমিয়াতের একজন অংশীদারও। প্রধানমন্ত্রী যেখানে নিজে যেই প্রতিষ্ঠানের অংশীদার মনে করেন সেই প্রতিষ্ঠানের কোন কাজ করতে অসুবিধা হবে বলে আমি মনে করি না। তিনি বলেন, আমরা এই পৃথিবীতে চিরকাল থাকার জন্য আসিনি। এসেছি ক্ষণিকের জন্য। আল্লাহর সাথে একটি চুক্তি করে এসেছি। এই চুক্তিটি হলো- আমরা মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভের জন্য, তাকে খুশি করার জন্য তার যাবতীয় সাংবিধানিক চাহিদা আছে সেগুলো আমরা পূরণ করবো। সাংবিধানিক চাহিদা হলো- আমাদের পবিত্র কোরআন এবং প্রিয় নবীর (স.) রেখে যাওয়া সুন্নত। আমরা সে অনুযায়ী আমাদের জীবনকে পরিচালিত করবো।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আজ থেকে ৪শ’/৫শ বছর আগে যাকে বলা হতো মধ্য যুগের দেশ। সেই সময়ে সারা বিশ্বে সমাদৃত ছিল ইসলাম। সে সময় জ্ঞান-বিজ্ঞানের প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে ইসলামের ছিল জয় জয় কার। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় আমরা মুসলমান, ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী মানুষ সেই অবস্থান ধরে রাখতে পারি নাই। আমাদের মধ্যে অনেক বিরোধ-বিভাজন। আর এ সব কারণে আমরা যেখানে ছিলাম, সেখানে যেতে পারিনি। জ্ঞান-বিজ্ঞানের সর্বোচ্চ চূড়া থেকে আমরা বিচ্যূত হয়েছি।

সকলের মাঝে দেশপ্রেম থাকতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, খাটি মানুষ ও খাটি মুসলমান হতে হলে অবশ্যই দেশপ্রেম থাকতে হবে। যার দেশপ্রেম নেই; সে কখনো খাঁটি মুসলমান হতে পারে না। আলেম-ওলামাদের উদ্দেশ্য করে অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনারা অনেক ভালো কাজ করেন। ভালো কাজ করেন বলেই দেশের অর্থনীতি আজ অনেক সমৃদ্ধ। সারাবিশ্বের মানুষ আজ বাংলাদেশের অর্থনীতিকে নিয়ে গর্বিত। বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। পিছিয়ে পরা দেশগুলো আজ সামনে এগিয়ে যেতে বাংলাদেশকে উদাহরণ হিসেবে অনুসরণ করে। দেশের এই অবদান সকলের। আপনাদেরকে বাদ দিয়ে দেশ এই অবস্থানে আসতে পারতো না।

সামর্থবানদের যাকাত প্রদানের তাগিদ দিয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আমি লক্ষ্য করেছি যখন রমজান মাস আসে মসজিদে জুমআ এবং অন্যান্য নামাজের সময় ফিৎরা আদায়ের তাগিদ দেয়া হয়। আমার অনুরোধ থাকবে এখন থেকে ফিৎরা আদায়ের পাশাপাশি আমাদের মুসলমানদের অবশ্য কর্তব্য যাকাত দেয়া। উপযুক্তদের সবাইকে যাকাত দিতে হবে। তাই এক্ষেত্রে আপনারা আলেম-ওলামারা সবাইকে অনুরোধ করবেন। তিনি বলেন, পবিত্র কোরআনে ৩২ বার আল্লাহ যাকাতের নির্দেশ দিয়েছেন। এটা ইনকাম ট্যাক্সের জন্য নয়; ইনকাম ট্যাক্সের আওতার বাইরে। আমাদের সমাজে কিছু দরিদ্র মানুষ আছে। তাদেরকে যাকাতের মাধ্যমে সাহায্য করতে হবে। যাকাত গরিবের হক। যাকাত দিলে কারও সম্পত্তি কমে না। সম্পদের সুষ্ঠু বন্টন হবে, সম্পদ পবিত্র হয়, বৃদ্ধি হয়। সমাজে ভারসাম্য বজায় রাখতে আমরা সবাইকে যাকাত দিতে উদ্বুদ্ধ করবো। তাহলে সমাজে ধনী-গরিবের বৈষম্য দূর হবে।

শুধু নিজের কথা নয়, পিতা-মাতার কথাও চিন্তা করার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা সবাই আমাদের পিতা-মাতার প্রতি তাদের হক আদায় করবো। পিতা-মাতার হক আদায় করতে হবে। এটা করতে পারলে সারা পৃথিবী বেহেশতে পরিণত হবে। মারামারি-হানাহানি চাই না। একই সঙ্গে আমরা একজনের অনুপস্থিতিতে কথা বলি, গীবত করি। গীবত বড় অন্যায় কাজ। এটা না করে মানুষকে নামাজে অকৃষ্ট করবেন। নিজরা শুধু নামাজ পড়বেন অন্যরা নয় এটা হবে না। নিজের ছেলে-মেয়েকে নামাজে আকৃষ্ট করবেন। অন্যদেরও নামাজের আহ্বান জানাতে হবে।

মাদরাসা ও ইসলামী শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের ভূমিকার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে জমিয়াতের ঐতিহাসিক ভূমিকা আছে। এ সংগঠনের নেতৃত্বেই মাদরাসা শিক্ষার বৈষম্য দূর হয়েছে। ইসলামী-আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হয়েছে, মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা হয়েছে। স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের সমান মাদরাসা শিক্ষকরা সমান সুযোগ ও মর্যাদা পাচ্ছেন। মাদরাসা শিক্ষার্থীরা আলেমের পাশাপাশি চিকিৎসক, ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার সুযোগ পাচ্ছে। এ সবই হয়েছে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের বর্তমান সভাপতি এ এম এম বাহাউদ্দিনের সুযোগ্য নেতৃত্বে।

শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে মুস্তফা কামাল বলেন, আপনারা অনেক আলোকিত মানুষ, জ্ঞানী মানুষ। জ্ঞানী ও শিক্ষিত ভয়ের কোন কারণ নেই। ভয় করবেন শুধু আল্লাহকে। একই সঙ্গে নিজে যেটা ভালো মনে করবেন সেটা নিজে করার পাশাপাশি দেশের মানুষকে উদ্বুদ্ধ করবেন।

তিনি বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ আগের আওয়ামী লীগ এক নয়; আজকের বাংলাদেশ এবং আগের বাংলাদেশ এক নয়। সুতরাং এই যে পরিবর্তন, এই পরিস্থিতিতে আসুন আমরা সবাই একে অপরের কাধে কাধ মিলিয়ে আমরা এই দেশের উন্নয়নে কাজ করি। শিক্ষা ব্যবস্থা এবং যে দিকটায় আমরা পিছিয়ে আছি সেখানে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করি।



 

Show all comments
  • Md Robiul Islam Sojib ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৪৯ পিএম says : 1
    নির্বাচনের সময় মহানবীর আর্দশের কথা মনে ছিল না? এখন কেন হঠাৎ আর্দশের উদয় হলো?
    Total Reply(0) Reply
  • Jubayer Ahmed ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫০ পিএম says : 0
    হে ঈমানদারগণ! তোমরা আল্লাহর আনুগত্য কর এবং রাসূলের অনুসরণ কর আর নিজেদের আমল বিনষ্ট করো না। (মুহাম্মদ: ৩৩)
    Total Reply(0) Reply
  • সত্যান্বেষী ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫৩ পিএম says : 0
    মারহাবা। আল্লাহ আপনার কথা কবুল করুন। আপনাদের মনে যাই থাক এত সুন্দর অঙ্গীকারকে সমর্থন না দিয়ে পারছি না। হেদায়েতের মালিক তো কেবল আল্লাহই।
    Total Reply(0) Reply
  • তরিকুল ইসলাম হেলাল ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫৫ পিএম says : 0
    ইয়েস, মহানবীর (স.) পথই একমাত্র শান্তি সমৃদ্ধির পথ। কেবল তার অনুসরণ করলেই সমাজ থেকে যাবতীয় অণ্যায়, অবিচার, দুর্নীতি, ঘুষ সমূলে দূর করা সম্ভব। আল্লাহ আপনাকে কবুল করুন।
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Shah Alam Khan ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৮:৫৬ পিএম says : 0
    অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জামিয়াতুল মোদাররেছিন এর সংবর্ধনা ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানে যোগদান করে তার পুরো আলোচনাটাই তিনি ইসলামের উপর করেছেন। এটা যে একটা ব্যাতিক্রম ধর্মী বক্তব্য এটা মানতেই হবে। আমি বলে আসছিলাম নেত্রী হাসিনা একজন ধর্ম প্রিয় নেত্রী তিনি ইসলামের উপর নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করছেন এখন ওনার সময় হয়েছে সবাইকে ইসলামের উপর প্রতিষ্ঠা করা। অর্থমন্ত্রীর আজকের এই বক্তৃতা প্রমাণ করে নেত্রী হাসিনা তার এবারের শাসন আমলে দেশকে উন্নতীর কত উপরে নিয়ে যাবেন সেটা একমাত্র আল্লাহ্ই ভাল জানেন। আমরা বলে থাকি শুরুতেই যিনি ভাল ভাবে শুরু করতে পারেন তিনি শেষও করতে পারেন ভাল ভাবেই। এবারের সরকারের কর্মকাণ্ড জানান দিচ্ছে বাংলাদেশের প্রকৃত সুদিন এসেগেছে এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। নেত্রী হাসিনা তার দ্বিতীয় টার্ম থেকেই ইসলাম ধর্মের উপর কাজ শুরু করেছিলেন এখন তার পরিষদদের নিয়ে সম্মিলিত ভাবেই ইসলামের কাজে তিনি নেমেছেন। ইসলাম হচ্ছে আমাদের ধর্ম এটা দেশ বা সংবিধানের বিষয় নয় কিন্তু যেহেতু আমার মুসলমান ৯০% সেহেতু আমাদেরকে প্রকাশ্যে আমাদের নিয়ন্ত্রনের আইন ইসলামিক পদ্ধতীতে হতে হবে। ইসলামের আইন অন্য কোন ধর্মকে বাধা গ্রস্ত করেনা কোরান সেটাই বলে। কাজেই ইসলামকে নিয়ে আমাদের এখন গবেষনা করা দরকার দেশের আইন কানুন ইসলামিক হলে প্রথমেই সত্য প্রতিষ্ঠা করা দরকার। এইযে, দুর্নীতির কথা বলা হচ্ছে, আমরা যদি খেয়াল করি তাহলে দেখা যায় আমাদের মধ্যে যদি সত্য এসে যায় তাহলে দুর্নীতি এমনিতেই বন্ধ হয়ে যাবে। সেজন্যেই আমি এই ইনকিলাবের মাধ্যেমে বার বার একটা কথাই বলে আসছি সেটা হচ্ছে সত্য কথা বলা সত্যকে জানা, সত্যকে উপলব্ধি করা এবং সত্য পথে চলা। ঈমান হচ্ছে সত্য আর সত্যই হচ্ছে ঈমান......... আসুন আমরা সবাই প্রতিজ্ঞা করি আজ থেকে আমরা সত্য বলিব, সত্যের উপর চলিব। আমিন পরিশেষ আমি ইনকিলাবের সম্পাদক বাহাউদ্দিন সাহেবকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন। আজ দেশে ইসলামি শিক্ষার যে উত্থান হয়েছে সেটা অবশ্যই ওনার (বাহাউদ্দিন) প্রচেষ্টাতেই হয়েছে। উনি বর্তমান সরকারের সাথে একাত্ত হয়ে নীরব ভাবে দেশে ইসলামের কাজ করে আসছিলেন তারই ফল আজ আমরা পাচ্ছি এটাই সত্য। আমি উদীয়মান ইসলামি চিন্তাবিদ নেতা বাহাউদ্দিন সাহেবে দীর্ঘায়ু ও সুসাস্থ কামনা করছি। আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • মুক্তিকামী জনতা ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৯:০৫ পিএম says : 0
    মন্ত্রী মহোদয়ের কথায় অনেক আশাবাদি হলাম। পক্ষান্তরে যখন ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচনের ভয়াল কালো রাতের কথা মনে ভেসে ওঠে তখন শুধুই এসব কথা কেবলই ধাপ্পাবাজি মনে হয়। তারপরেও দোয়া করবো, আল্লাহ আপনার সঠিক অঙ্গীকার পালন করার তৌফিক দান করুন। আমীন
    Total Reply(0) Reply
  • মিরাজ আলী ২৬ জানুয়ারি, ২০১৯, ৯:০৭ পিএম says : 0
    ঘুষ দুর্নীতির মূলোৎপাটন করতে হলে অবশ্যই নবীজী (স.) এর পথ অনুসরণ করতে হবে। নতুবা চেষ্টা করলে তা হবে বিফল প্রচেষ্টা। মন্ত্রীর শুভবুদ্ধি উদয় হয়েছে, এটাই ভালো।
    Total Reply(0) Reply
  • Shoayeb Jobaied Ullah ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:০৭ এএম says : 0
    সবই ভুলে গেলেন নেতাজী...? এই তো গত তিন সপ্তাহ আগে নিজ নির্বাচনের এলাকায়, সামান্য একটা ভোটের জন্য বিরোধী মতের লোকদের উপর কত নির্যাতন করেছেন । সে গুলো কি ক্ষমার যোগ্য...? অার যারা জনগনের উপর অত্যাচার করেন, নিশ্চই আল্লাহ তাদের কে পছন্দ করেন না ।
    Total Reply(0) Reply
  • Farooq Mohd Amin ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:০৭ এএম says : 0
    ভোট চুরি করার সময় নবীজির ঐ বানী মনে ছিলো না ? জনগনের টাকা চুরি করে বার বার হজ্বে যায় ঐ সময় নবীজি ও আল্লাহর ভয় মনে আসে না ৷ এখন ওনি বড় মোল্লা সেজেছে !!!
    Total Reply(0) Reply
  • Imam Hossain ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:০৮ এএম says : 0
    আমাদের দেশের নেতা নেত্রীরা যদি দুর্নীতি মুক্ত হতে পারতো তবে দেশের মানুষ দরিদ্র থাকতোনা । আপনি অনেক ভালো এবং মহামূল্যবান কথা বলেছেন ।
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Siam ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:০৮ এএম says : 0
    মানুষ ইচ্ছেকরে ঘুষদেয়না ঘুষখুররা বাধ্যকরে ঘুষদিতে তখন মানুষ নিরুপায় হয়েযায় ঘুষগ্রহনকারিকে কঠিন শাস্তির আওতায় আনলেই অনেকাংশ কমেযাবে
    Total Reply(0) Reply
  • Maksud Alam Ahad ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:০৯ এএম says : 0
    ভাইজানরা কামাল আসলে ভাল মানুষ এটা আওয়ামীলীগ হোক আর বিএনপির হোক ওনাকে নিয়া আজে বাজে কমেট করা ঠিক হবেনা উনি সামান্য খেলার জন্য আইসিসি থেকে সরে এসেচেন,
    Total Reply(0) Reply
  • MH Mukul ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১০ এএম says : 0
    আরে,,,,সুদ,ঘুস আল্লাহ পছন্দ করতেন না।।হারাম হালাল এটা আল্লাহই নিদিষ্ট করে দিয়েছেন। আর আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তা সমাজে বাস্তবায়ন করছেন।।।
    Total Reply(0) Reply
  • Azad Cm ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১১ এএম says : 0
    মাননীয় অর্থমন্ত্রী কেমন পারেন যাকাত ভিওিক অর্থনীতি চালু করে দেখান আর কোন কিছু লাগবে না 2 বছরে উন্নত দেশে রুপ নিবে
    Total Reply(0) Reply
  • Shajahan Saju ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১১ এএম says : 0
    কথা গুলো সুন্দর আলহামদুলিল্লাহ আপনি কতটুকু মেনে চলতে পারছেন নিজেকে প্রশ্ন করুন???????? আল্লাহর কাছে আপনিও জবাব দিতে হবে যতবড় মন্ত্রী হন সেটা মনে রাখবেন।।।। অতি ভক্তি???????
    Total Reply(0) Reply
  • মোঃ ওবায়েদুর রহমান ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১১ এএম says : 0
    সুদকে পবিত্র কুরআন মাজীদে হারাম করা হয়েছে। এক্ষেত্রে আমাদের মন্ত্রীমোদয় কি বলবেন।বাংলাদেশ তো সুদ ভিত্তিক অর্থনীতি নির্ভর।
    Total Reply(0) Reply
  • Abbas Ahmed ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১২ এএম says : 0
    মাননীয় মন্ত্রী ঠিক বলেছেন ।নবীজি সাঃ কিন্তু বলেছেন সমস্ত ক্ষমতার মালিক ক্ষমতার উৎস জনগন নয় এসবের এবং সমস্ত আসমান জমিনের মালিক আল্লাহ।আর আপনারা বলেন ক্ষমতার মালিক বা উৎস জনগন! তাহলে কি শিরক হয়ে গেল না!!!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Ashura Akter ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১২ এএম says : 0
    কথা গুলো যদি মন থেকে বলেন মাননীয় অথ্ মন্ত্রী তাহলে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে।আর যদি কথা গুলি লোক দেখানো সম্মেলন হয় তা হলে দেশ আগের মত থেকে যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • MD Bashar Mahmud ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৩ এএম says : 0
    তিনি মনে হয় সকালে মক্তবে গিয়েছিলেন,তা না হলে তিনি জানলেন কি ভাবে আগে তো জানতেন না, আগে যদি এই হাদিছ জানতেন সরকারি কর্মচারিদের বোঝাতে পারতেন তোমরা ঘুষ খেওনা, ঘুষ হারাম এখন যতোই বোঝান আর কাজ হবেনা।
    Total Reply(0) Reply
  • এসো আল্লাহর পথে ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৩ এএম says : 0
    আশা করি ভারত থেকে সরে গিয়ে আওয়ামীলীগ চীন-পাকিস্তান পন্থী হওয়াতে শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছে তাদের। তারা ধর্মনিরপেক্ষতা থেকে সরে এসে ধর্মীয় রাজনীতি শুরু করবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Kaniz Kaniz Fatema ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৩ এএম says : 0
    সরকারী চাকুরীতে ঘুষ না দিলে চাকুরী হয় না এটা আগে বন্ধ করেন, বাবা, মা, ছেলে, মেয়েদেরকে কত কষ্ট করে লেখা পড়া শেখান, এত কষ্ট করে লেখা পড়া শেখানোর পরেও সার্টিফিকেটর কোনো মূল্য নেই, আগে ঘুষ তারপর চাকুরী,,,
    Total Reply(0) Reply
  • Shams Tibriz ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৪ এএম says : 0
    ঘুষ দুর্নীতি আর লুটপাটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিন এবং জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করুন দুর্নীতি লুটপাট বাংলাদেশের জনগণের কাছে অভিশাপে পরিনত হয়েছে ।
    Total Reply(0) Reply
  • MI Raju ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৪ এএম says : 0
    আলহামদুলিল্লাহ প্রতিটা মন্ত্রীই যদি এভাবে আল্লাহর বিধি নিষেধ স্মরণ করিয়ে দিতো , বাংলাদেশ পরিবর্তন হয়ে যেতো।
    Total Reply(0) Reply
  • Tamim Ahmed Chy Metoo ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৫ এএম says : 0
    Jai hok allah rasoler nam tho apnader muke akohon aste se...doya kore durniti komanur try korun neta saheb
    Total Reply(0) Reply
  • Nasir Waqar ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৬ এএম says : 0
    Great discussion. Salute Finance Minister
    Total Reply(0) Reply
  • Amirul Islam ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৬ এএম says : 0
    মন্ত্রী সাহেবের মনে হয় মাথা খারাপ হয়ে গেছে। ঘুষ জনগণকে দিতে নিষেধ করেছেন কিন্তু সরকারি কর্মকর্তাদের ঘুষ গ্রহণ করতে নিষেধ করেননি। আচ্ছা বলুন তো ঘুষ কি কেউ ইচ্ছে করে দেয়? না বাধ্য হয়ে দেয়? ঘুষ না দিয়ে কাজ হলে তো আমরাই লাভোবান।
    Total Reply(0) Reply
  • H M Ismail Hossain ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৬ এএম says : 0
    স্যার, একজন মন্ত্রী সাহেব বলেছিলেন আপনারা ঘুষ খান আমিও খাই, তবে সহণীয় মাত্রাই খান।উনি সহণীয় মাত্রা বলতে কতটুকু বুঝিয়েছেন তা আমার জানা নাই। যেহেতু উনি আপনার সহকর্মী সুতরাং আপনি একটু সমাধান করে দিবেন -প্লিজ।
    Total Reply(0) Reply
  • Nobab Nobab ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৭ এএম says : 0
    আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) আর একটা জিনিষ মোটেই পছন্দ করতেন না, সেটা হলো একজন আরএকজনের হক নষ্ট করা।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rifon ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৭ এএম says : 0
    মাশা আল্লাহ ভালো উদ্দেশ্য আল্লাহ কবুল করুক? আর যদি নাটক হয় তাহলে সাথে সাথে জেন দংশ হয় আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • Monir Islam Roman ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৮ এএম says : 0
    I give you salute
    Total Reply(0) Reply
  • MD Aynal Haque ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৮ এএম says : 0
    Good mind, thank you
    Total Reply(0) Reply
  • Md J Masud Feni ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৩:১৮ এএম says : 0
    এম পি সাহেব আপনি ঠিক থাকলে সব ঠিক।আপনি একটু ভাবেন।প্রতিটি কাজের ই হিসাব হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Live Projapti ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫৮ পিএম says : 0
    ঈমাম মেহেদীর আগমন ঘটেছে, কেয়ামত সম্ভবতঃ সন্নিকটে -----
    Total Reply(0) Reply
  • Ahmed Saleh ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫৮ পিএম says : 0
    এইসব শুনে মন ভরে গেল আমাদের এমপি মন্তী যদি চান সব বন্ধ হয়ে যাবে ১/২ সাপ্তাহর মধ্যে আল্লাহ যেন কবুল করেন আমিন। জনগনের দোয়া রহিল আল্লাহর রহমত আসবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Rubel Ahmed ২৭ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:৫৮ পিএম says : 0
    আল্লাহ একই কথার উছিলায় ঐনাকে হেদায়েত নসীব করুন ঃ "আমিন"
    Total Reply(0) Reply
  • আজিজুর রহমান ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৭:০৮ এএম says : 0
    আল্লাহোক আপনার ওয়াদা কবুল করুক।আমিন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অর্থমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ