Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।
শিরোনাম

এসএমইখাতের উন্নয়নে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব চেয়েছেন শিল্পমন্ত্রী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জানুয়ারি, ২০১৯, ৬:২২ পিএম

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাতের উন্নয়নে এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পরিষদের কাছে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব চেয়েছেন। তিনি বলেন, এসএমইখাতের উন্নয়নে আবর্তক তহবিল বৃদ্ধির পরিবর্তে বড় প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে। এর মাধ্যমে উদ্যোক্তাদের সনাতনী দক্ষতার আধুনিকায়ন, গ্রাম পর্যায়ে উদ্যোক্তা সৃষ্টি এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে।

ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (এসএমই) ফাউন্ডেশন পরিচালনা পলিসদ সদস্যদের সাথে বৈঠককালে এ প্রস্তাব চান শিল্পমন্ত্রী। শিল্প মন্ত্রণালয়ে সোমবার (২৮ জানুয়ারি) এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে ভারপ্রাপ্ত শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিম, এসএমই ফাউন্ডেশন পরিচালনা পরিসদের চেয়ারপার্সন কে এম হাবিব উল্লাহ, সদস্য ড. মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, মো. আব্দুল মতিন, ড. মফিজুল ইসলাম, মির্জা নূরুল গণি শোভন, মানতাশা আহমেদ, ইসমাত জেরিন খান, রাশেদুল করিম মুন্না, আবুল কালাম ভূঁইয়া, কে এম আকতারুজ্জামান ও সালাউদ্দিন মাহমুদ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে সরকারের ইশতেহার বাস্তবায়নে এসএমইখাতে করণীয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এ সময় চিহ্নিত ১শ’ ৭৭টি এসএমই ক্লাস্টারের আধুনিকায়ণ, উদ্যোক্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি, পণ্য বিপণনে সহায়তা প্রদান, উদ্যোক্তা তৈরি, গ্রাম পর্যায়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ অন্যান্য বিষয় আলোচনায় স্থান পায়।

বৈঠকে এসএমই ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা দেশব্যাপী ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারে আবর্তক তহবিলের পরিমাণ বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা করেন। তারা বলেন, সরকারের দেয়া ২শ’ কোটি টাকা আবর্তক তহবিলের লভ্যাংশ দিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে এসএমই কার্যক্রম প্রত্যাশিত পর্যায়ে এগিয়ে নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ইশতেহার অনুযায়ী শ্রমঘন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পায়ন কার্যক্রম জোরদার করতে এখাতে সরকারের আর্থিক বরাদ্দ বৃদ্ধির সুপারিশ করেন।

বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী বলেন, টেকসই এসএমইখাত গড়ে তুলতে হলে, উদ্যোক্তাদের সনাতনী দক্ষতার আধুনিকায়ন জরুরি। এ লক্ষ্যে লাগসই প্রশিক্ষণ, বিপণন সুবিধা সৃষ্টি এবং কর্মমুখী শিক্ষার প্রসার ঘটাতে হবে। তিনি এসএমই নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে বিশেষ প্রকল্প গ্রহণের জন্য ফাউন্ডেশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এক্ষেত্রে শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে সম্ভব সব ধরনের সহায়তা দেয়া হবে বলে তিনি জানান।

এর আগে কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর সভাপতি গোলাম রহমানের নেতৃত্বে এক প্রতিনিধিদল শিল্পমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করেন। মন্ত্রীর দপ্তরে সাক্ষাতকালে তারা পণ্যের গুণগতমান উন্নয়নে মান অবকাঠামোর আধুনিকায়নের ওপর জোর দেন। তারা ভোক্তা পর্যায়ে মানসম্মত পণ্য ও সেবা নিশ্চিত করতে তৃণমূল পর্যায়ে বিএসটিআই এর কার্যক্রম সম্প্রসারণের পরামর্শ দেন।

গুণগত শিল্পায়নের লক্ষ অর্জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী পণ্য ও সেবার মানোন্নয়নে মাঠ পর্যায়ে বিএসটিআই’র কার্যক্রম জোরদার করা হবে বলে শিল্পমন্ত্রী ক্যাব নেতাদের আশ্বস্ত করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শিল্পমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ