Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ১৭ রজব ১৪৪০ হিজরী।

সিলেটের মরণ কামড়

স্পোর্টস রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে | প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

টিকে থাকতে হলে জয়ের বিকল্প নেই। বাঁচা-মারার লড়াইয়ে উড়ন্ত সূচনা এনে দিলেন আফিফ হোসেন ধ্রুব, সময়োপযেগী ধৈর্য্যশীল ইনিংস খেললেন সাব্বির রহমান, শেষ দিকে ঝড় তুললেন নিকোলাস পুরান। আর তাতেই রাজশাহী কিংসকে মরন কামড় দিলো সিলেট সিক্সার্স। বিপিএলে চট্টগ্রাম পর্বের শেষ ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উেইকেট হারিয়ে ১৮৯ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়ে তলানির দলটি।
গতকাল সন্ধ্যায় জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ওভারে একটি করে চার ও ছয়ে দারুণ শুরুর ইঙ্গিত দেন লিটন দাস। কিন্তু ষষ্ঠ বলে ১০ রানে আরাফাত সানির এলবিডাবিøউ হলে শুরুতেই হোঁচট খায় সিলেটের টিকে থাকার স্বপ্ন। আফিফ হোসেনের সঙ্গে ৩২ রান যোগ করে জেসন রয় বিদায় নিলে সেটি রূপ নেয় দুঃস্বপ্নে। ৮ বলে ১৩ রান করে মুস্তাফিজুর রহমানের শিকার হন ইংলিশ ব্যাটসম্যান। এরপর আফিফ ও সাব্বির রহমানের ব্যাটে নিয়ন্ত্রণ ছিল সিলেটের হাতেই। ২৫ বলে দুটি করে চার ও ছয়ে ২৯ রানে আফিফ বিদায় নিলে ভাঙে ৪৬ রানের এই জুটি।
পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নামেন পুরান। সাব্বিরকে নিয়ে দুর্দান্ত এক জুটি গড়েন এই উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান। ৫৩ রান যোগ করে দুজনে। কিন্তু ১৬তম ওভারে জোড়া ধাক্কা দেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। সাব্বির ৩৯ বলে ৪৫ রান করে আউট হন, পরের বলে শূন্য রানে মোহাম্মদ নওয়াজ। আর কোনও উইকেট হারায়নি সিলেট।
শেষ চার ওভারে ৪৮ রান আসে পুরান ও অলক কাপালির ব্যাটে। মাত্র ১০ বল খেলে ১০ রান করেন অধিনায়ক কাপালি। অন্য প্রান্তে বিস্ফোরক ব্যাটিং করেন পুরান। শেষ ওভারে পরপর দুই ছয়ে শেষ করেন ইনিংস সেরা পারফরম্যান্স। ৩১ বলে ছয়টি করে চার ও ছয়ে ৭৬ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। এই আসরে এটি তার তৃতীয় হাফসেঞ্চুরি।
রাজশাহীর পক্ষে রাব্বি সর্বোচ্চ দুই উইকেট নেন। একটি করে পান মুস্তাফিজ, মেহেদী হাসান মিরাজ ও আরাফাত।
এটিই রাজশাহীর শেষ ম্যাচ, সিলেট এই ম্যাচের পর সুযোগ পাবে আরও একটি ম্যাচ খেলার। প্লে অফে উঠতে রাজশাহীর মতো তাদেরও সুযোগ থাকছে। ১১ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স। ১০ ম্যাচ খেলে দুইয়ে কুমিল্লা, তাদেরও পয়েন্ট ১৪। রংপুর-কুমিল্লার সমান ১৪ পয়েন্ট নিয়ে প্লে অফ নিশ্চিত করেছে ১১ ম্যাচ খেলা মুশফিকের চিটাগং। সাকিবের ঢাকা ১০ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে আছে চারে।
রাজশাহী কিংবা সিলেট যেই জিতুক না কেন, এই ম্যাচের পর তাদের তাকিয়ে থাকতে হবে ঢাকার পরাজয়ের দিকে। রাজশাহী ১১ ম্যাচে পেয়েছে ১০ পয়েন্ট, সিলেট ১০ ম্যাচে পেয়েছে ৮ পয়েন্ট। টুর্নামেন্ট থেকে আগেই বিদায় নেওয়া খুলনা ১১ ম্যাচে পেয়েছে ৪ পয়েন্ট।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিলেট

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন