Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

লিভারপুলের হোঁচট, চেলসির ৪ গোল হজম

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:১০ এএম


ঘরের মাঠে দারুণ লড়াই করেও আত্মবিশ্বাসী লেস্টার সিটিকে টলাতে পারল না লিভারপুল। সানের গোলে এগিয়ে গিয়েও তাই শেষ পর্যন্ত ইয়ুর্গুন ক্লপের শিষ্যদের মাঠ ছাড়তে হয়েছে ১-১ ড্র নিয়ে। প্রিমিয়ার লিগে পরশু পিছিয়ে পড়েও ঘরের মাঠে ওয়াটফোর্ডোর বিপক্ষে ২-১ গোলের দারুণ জয় তুলে নিয়েছে টটেনহাম। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি চেলসির। বোর্নমাউথের মাঠে তারা ¯্রফে উড়ে গেছে ৪-০ গোলে।
ম্যাচটা লিভারপুল জিতলে প্রিমিয়ার লিগের লড়াইটা আরো একপেশে হয়ে যেত। অল রেড খ্যাত দলটি পয়েন্ট হারানোয় দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির নাগালের মধ্যেই রইল তারা। পার্থক্যটা এখন ৫ পয়েন্টের। ২৪ ম্যাচে ৬১ পয়েন্ট লিভারপুলের, ৫৬ সিটির। ২ পয়েন্ট পিছিয়ে সিটির ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলেছে টটেনহাম। চেলসি ও আর্সেনালের পয়েন্ট সমান ৪৭ করে, তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে চারে আর্সেনাল। পাঁচে নেমে গেছে চেলসি। আর তাতে লাভবান হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আর্সেনাল-চেলসির সঙ্গে ওলে গানার সুলশারের দলের পয়েন্ট ব্যবধান এখন মাত্র ২।

আনফিল্ডের তুষারাবৃত মাঠে ম্যাচের তৃতীয় নিমিটেই গোল পেয়ে যায় লিভারপুল। বাকি সময়ে বলের দখল রাখলেও লেস্টারের ডিফেন্স ভেদ করা তাদের জন্য হয়ে উঠছিল বেশ কঠিন। এরই মাঝে ভয়ঙ্কর পাল্টা আক্রমণও করে লেস্টার। বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে মাগুয়েরের হেডে তারা গোলও পেয়ে যায়। এই গোলটিই ফক্সদের আত্মবিশ্বাসী করে তোলে। দ্বিতীয়ার্ধে স্বাগতিক দর্শকদের বুকে বেশ কবার কাঁপুনি ধরিয়ে দেয় তারা। মানে-ফিরমিনো-সালারাও কম চেষ্টা করেননি। কিন্তু গোলের দেখা পায়নি কোন দলই।
তবে রাতটি চেলসির জন্যে ছিল চরম হতাশার। শক্তিশালী একাদশই নামিয়েছিলেন মাউরিসিও সারি। হ্যাজার্ড-পেদ্রো-লুইসদের সঙ্গে ছিলেন দলের নতুন সদস্য হিগুয়েইনও। কিন্তু প্রথমার্ধে কোনো গোলই পেলো না তারা। আর পরের অর্ধে গোল করবে কী উল্টো চরমভাবে ধরাশায়ী হলো চেলসি। বোর্নমাউথের কাছে একে একে ৪ গোল হজম করে ব্লুরা। এমন হারের দায় নিজ কাঁধে নিলেন সারি, ‘দোষটা আমারই, আমি হয়ত খেলোয়াড়দের সেভাবে বোঝাতে পারিনি।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিভারপুলের হোঁচট
আরও পড়ুন