Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

তৃতীয় পর্ব শেষে শীর্ষে বসুন্ধরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম


ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) একাদশ সংস্করণে এক চমকের নাম বসুন্ধরা কিংস। দেশের সর্বোচ্চ লিগে খেলতে এসে সবাই চমকে দিয়েছে তারা। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ সেরা হয়েই প্রিমিয়ারে আসে দলটি। বিপিএলের অভিষেক আসরে তাক লাগানো ফুটবল উপহার দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বসুন্ধরা। চলতি মৌসুমে ইতোমধ্যে একটি শিরোপা ঘরে তুলেছে তারা। মৌসুম সূচক টুর্নামেন্ট ফেডারেশন কাপে রানার্সআপ হলেও দ্বিতীয় টুর্নামেন্ট স্বাধীনতা কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে সবাই জানিয়ে দিয়েছে ঘরোয়া ফুটবলের নতুন শক্তির নাম বসুন্ধরা কিংস। আগের দুই টুর্নামেন্টের সাফল্য ধরে রেখেছে চলমান লিগেও। ইতোমধ্যে বিপিএলের তিন পর্বের খেলা শেষ হয়েছে। তৃতীয় পর্ব শেষে ৩ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে কোচ অস্কার ব্রæজেনের দল বসুন্ধরা। প্রথম দু’ম্যাচে তারা হারিয়েছে লিগের বর্তমান রানার্সআপ শেখ জামাল ধানমন্ডি ও চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেডকে। তৃতীয় ম্যাচে তাদের কাছে হার মেনেছে আরেক নবাগত নোফেল স্পোর্টিং ক্লাব। বসুন্ধরা যদি জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখে তাহলে বলা যেতেই পারে এবার নতুন চ্যাম্পিয়নের দেখা পাবে বিপিএল।

অন্যদিকে বেহাল দশা তিনবারের লিগ চ্যাম্পিয়ন শেখ জামালের। তিন ম্যাচ শেষে ১ পয়েন্ট পেয়ে ১৩ ক্লাবের মধ্যে ১২তম স্থানে রয়েছে শেখ জামাল। লিগে প্রথম তিন ম্যাচে এমন হতশ্রী চিত্র এর আগে দেখা যায়নি ক্লাবটির। আর ছয়বারের লিগ চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর দশাও খুব একটা ভালো নয়। তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চমস্থানে রয়েছে তারা। লিগে সুখবর নেই ঐতিহ্যবাহীর ট্যাগ লাগানো ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডেরও। অবশ্য মোহামেডানের সুখবর ছিলইবা কবে? অনেকদিন ধরেই সাফল্যহীন সাদাকালোরা। চলতি মৌসুমও এর ব্যতিক্রম নয়। ফেডারেশন ও স্বাধীনতা কাপের গ্রæপপর্ব থেকেই বিদায় নিয়ে সমর্থকদের এবার হতাশ করেছে মোহামেডান। লিগে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করলেও মোহামেডান এখনো নিজেদের প্রমাণ করতে পারেনি। তিন ম্যাচ খেলে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে তারা। প্রথম ম্যাচে টিম বিজেএমসিকে হারালেও দ্বিতীয় ম্যাচে এসেই বিধ্বস্ত হয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের কাছে। ৩ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে টেবিলের নবমস্থানে।

মাঝারিমানের দল আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ অবশ্যই লিগে নিজেদের অবস্থান সুসংহত রেখেছে। যদিও এক ম্যাচ হেরেছে তারা। তারপরও দুই জয়ে গোল গড়ে টেবিলের দ্বিতীয়স্থানে অবস্থান করছে কোচ মারুফুল হকের দল। শেখ রাসেলের বিপক্ষে হেরে পরের দুই ম্যাচে আরামবাগ হারিয়েছে মোহামেডান ও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে। দু’ম্যাচ করে জয় আছে শেখ রাসেল, সাইফ স্পোর্টিং এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী লিমিটেডেরও। এক জয় দুই ড্রয়ে এর পরের অবস্থানে চট্টগ্রাম আবাহনী। একটি করে জয় পাওয়া দল ব্রাদার্স ইউনিয়ন, মুক্তিযোদ্ধা ও মোহামেডান। তিন ম্যাচে দু’ড্রয়ে ২ পয়েন্ট টেবিলের দশমস্থানে পুরনো ঢাকার ক্লাব রহমতগঞ্জের অবস্থান। টিম বিজেএমসি এবং শেখ জামাল ১ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে ১১ ও ১২তমস্থানে। দুই ম্যাচে শূন্য পয়েন্ট নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবের।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বসুন্ধরা

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৩১ জানুয়ারি, ২০১৯
২১ ডিসেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন