Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

রান পাহাড়ে অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৪:১২ পিএম

জো বার্নস ও ট্রাভিস হেডের পর শ্রীলংকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করলেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান কার্তিস প্যাটারসন। তিন সেঞ্চুরিতে ১৩২ ওভার ব্যাট করে ৫ উইকেটে ৫৩৪ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ৩ উইকেটে ১২৩ রান করেছে শ্রীলংকা। ৭ উইকেট হাতে নিয়ে এখনো ৪১১ রানে পিছিয়ে লংকানরা।
ক্যানবেরাতে প্রথম দিন বার্নসের অপরাজিত ১৭২ ও হেডের ১৬১ রানের উপর ভর করে ৪ উইকেটে ৩৮৪ রান করেছিলো অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় দিন নিজের ইনিংসটি বড় করতে পারেননি বার্নস। ১৮০ রানে থেমে যান তিনি। ২৬০ বল মোকাবেলা করে ২৭টি চার-এ ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেন বার্নস।
বার্নসের সাথে ২৫ রান নিয়ে প্রথম দিন শেষ করেছিলেন প্যাটারসন। বার্নসের বিদায়ে অধিনায়ক টিম পাইনকে নিয়ে স্কোরবোর্ডকে শক্তিশালী করতে থাকেন প্যাটারসন। শ্রীলংকার বোলারদের বিপক্ষে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যাট চালিয়ে দলীয় স্কোর ৫শ স্পর্শ করেন প্যাটারসন-পাইন জুটি।
এরমাঝে নিজের দ্বিতীয় টেস্টেই সেঞ্চুরির স্বাদ নেন চলতি সিরিজে অভিষেক হওয়া প্যাটারসন।
প্যাটারসনের সেঞ্চুরির কিছুক্ষণ বাদে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংস ঘোষনা করেন দলপতি পাইন। এসময় প্যাটারসন ১৯২ বলে ১১৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। তার ইনিংসে ১৪টি চার ও ১টি ছক্কা ছিলো। ম্যাচের প্রথম দিন মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলে ক্যাচ দিয়ে জীবন পান প্যাটারসন। তার সাথে ১১৪ বলে ৪৫ রান নিয়ে অপরাজিত ছিলেন পাইন। শ্রীলংকার বিশ্ব ফার্নান্দো ১২৬ রানে ৩ উইকেট নেন।
চা-বিরতির আগে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস ঘোষণায় ব্যাট হাতে নামে শ্রীলংকা। শুরুটা ভালোই ছিলো তাদের। দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও লাহিরু থিরিমান্নে ৮২ রানের জুটি গড়েন। তবে ৩১তম ওভারের চতুর্থ বলে মাথায় বলের আঘাত পেয়ে ৪৬ রানে আহত অবসর নেন করুনারত্নে।
কিন্তু দলীয় ৯০ রানে আরেক ওপেনার থিরিমান্নেকে শিকার করে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম ব্রেক-ধ্রু এনে দেন অসি স্পিনার নাথান লিঁও। ১০৫ বলে ৪১ রান করেন থিরিমান্নে।
এরপর শ্রীলংকার মিডল-অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যান অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল ও কুশল মেন্ডিসকে বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে দেননি অস্ট্রেলিয়ার পেসাররা। ১৫ রান করা চান্ডিমালকে পেসার মিচেল স্টার্ক ও ৬ রান করা মেন্ডিসকে শিকার করেন প্যাট কামিন্স। তবে দিন শেষে অবিচ্ছিন্ন থেকে যান কুশল পেরেরা ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। পেরেরা ১১ ও ডি সিলভা ১ রান করে অপরাজিত আছেন। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে স্টার্ক-কামিন্স ও লিঁও ১টি করে উইকেট নেন।
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
অস্ট্রেলিয়া : ৫৩৪/৫ডি, ১৩২ ওভার (বার্নস ১৮০, হেড ১৬১, প্যাটারসন ১১৪*, ফার্নান্দো ৩/১২৬)।
শ্রীলংকা : ১২৩/৩, ৪৩ ওভার (করুনারতেœ ৪৬ আহত অবসর, থিরিমানে ৪১, কামিন্স ১/২৫)।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অস্ট্রেলিয়া শ্রীলঙ্কা

২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আরও পড়ুন