Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ০৬ চৈত্র ১৪২৫, ১২ রজব ১৪৪০ হিজরী।

কেরানীগঞ্জে ঋণের বোঝা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য ১ যুবকের আত্মহত্যা

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৯:২৮ পিএম

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ঋণের বোঝা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য গলায় ফাঁস দিয়ে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। নিহত যুবকের নাম আনিসুর রহমান বাপ্পী(৩২) ।আজ শনিবার(০২ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ তার নিজ কক্ষের দরজা ভেঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই ইমরান উকিল জানান, কোন্ডা ইউনিয়নের দোলেশ্বর গ্রামের মজিবর মিয়ার ছেলে নিহত আনিসুর রহমান বাপ্পী কয়েক বছর যাবত দোলেশ্বর সততা শ্রমজীবী সমবায় সমিতি নামে মাল্টি পারপাসের ব্যবসা করে আসছিল। সমিতির প্রায় দেড় শতাধিক সদস্য যারা নিয়মিত তার কাছে সাপ্তাহিক ও মানসিকভাবে বিভিন্ন মেয়াদে টাকা সঞ্চয় রাখত। সে সময়মতো সদস্যদের মেয়াদ পূর্ণ হওয়া সত্যেও তাদের সঞ্চয়কৃত আসলসহ লাভের টাকা দিতে ব্যার্থ হয়। এভাবে নিহত আনিসুর রহমান সমিতির সদস্যদের কাছে প্রায় ৫২ লক্ষ টাকা ঋণী হয়ে পড়েন। এতে সদস্যরা বিভিন্ন সময় তাদের পাওনা টাকার জন্য তাকে নানাভাবে চাপ দিতে থাকে। এই ঋণের টাকা নিয়ে তার স্ত্রীর সাথেও বিভিন্ন সময়ে তার ঝগড়া হয়। ঝগড়ার জেড়ধরে গত ৩দিন আগে তার স্ত্রী অভিমান করে তার বাবার বাড়ি চলে যায়। আজকে দুপুরের সময় নিহতের বাবা মজিবর মিয়া ছেলেকে বাড়ি বিক্রি করে ঋণের টাকা পরিশোধ করার কথা বলে । এসময় বাপ্পী তার বাবাকে বাড়ি মর্গেজ রাখার কথা বলে। দুপুরে পরিবারের সাথে খাবার খেয়ে বাপ্পী তাদের বাড়ির তৃতীয় তলায় তার নিজ কক্ষে যায়। এসময় সে তার কক্ষের দরজা বন্ধ করে ফ্যানের পাশে একটি লোহার রডের সাথে গলায় তার পেচিয়ে আত্বহত্যা করে। বিকেলে তার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে বাড়ির লোকজনের সন্দেহ হলে তারা কক্ষের সামনে গিয়ে অনেক ডাক চিৎকার করেও তার কোন সাড়া পায়নি। এতে তারা থানা পুলিশকে অবহিত করলে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে ওই কক্ষের দরজা ভেঙ্গে ভিতর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় বাপ্পীর লাশ উদ্ধার করি। কোন অভিযোগ না থাকায় কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রামানন্দ সরকার ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামানের উপস্থিতে আনিসুর রহমান বাপ্পীর লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন