Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জৈনপুরী পীর সাহেবের বার্ষিক পরামর্শ সভা ও দোয়া মাহফিল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৪ এএম


মোহাম্মদপুরস্থ আদর্শ ইসলামী মিশন মহিলা কামিল এম.এ মাদরাসা, এতিমখানা ও জৈনপুরী দরবার শরীফ কম্প্লেক্সের উদ্যোগে সম্প্রতি ওলীয়ে কামিল মরহুম আল্লামা সৈয়দ লুতফুর রহমান জৈনপুরী পীর সাহেবের ৪২ তম বার্ষিক ইছালে ছাওয়াব মাহফিল উপলক্ষে এক পরামর্শ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে দোয়া করেন আল্লামা সৈয়দ মাহবুবুর রহমান জৈনপুরী পীর সাহেব। প্রধান অতিথি ছিলেন অত্র কমপ্লেক্সের উপদেষ্টা ও মুখপাত্র হাজী মো. রতন মিয়া। সভাপতিত্ব করেন মো. শফিকুল ইসলাম চৌধুরী। ওয়াজ করেন লায়ন্স আলহাজ মো. রুহুল আমিন, মাওলানা প্রফেসর সোহরাব হোসেন, মাওলানা আবদুছ ছবুর কামাল ও মাওলানা আবদুল আউয়াল। বিশেষ অতিথি ছিলেন মো. আবদুল বারেক, আলহাজ খোরশেদ আলম চৌধুরী, নায়েবে আমির রুহুল আমিন খান মেহেদী প্রমুখ।
বয়ানে জৈনপুরী পীর সাহেব বলেন, হযরত আবু বকর (রা.) এবং হযরত মা খাদীজাতুল কুবরা (রা.) এর দানে সর্ব প্রথম ইসলাম এই জমিনে সুপ্রতিষ্ঠিত হয়। নবীজি এরশাদ ফরমান, আমি হযরত আবু বকর সিদ্দিক (রা.) ও হযরত খাদিজা (রা.) কে ছাড়া একা বেহেস্থে যাবনা, কেননা এই দুইজনের মালের দ¦ারা ইসলামের যে উপকার হয়েছে কারো দ্বারা তা সম্ভব হয়নি। (ছহীহ বোখারী ও মুসলেম শরীফের হাদিস)। অতএব বর্তমানে ইসলামের এই সঙ্কট ময় মুহূর্তে যাদের অবদানে ইসলাম জিন্দা হবে বা স্থায়ী উন্নতি লাভ করবে অবশ্যই তারা হযরত আবু বকর (রা.) এবং মা খাদীজা (রা.) এর সাথে বেহেস্থে যাবেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দোয়া মাহফিল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ